তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২১st অক্টোবর ২০১৫

তথ্যবিবরণী -21/10/2015

তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৩০৭৮ 


সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকার নিরলস কাজ করছে
                                          -- সমবায় প্রতিমন্ত্রী

গংগাচড়া, রংপুর, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) :
এলজিআরডি ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মো. মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এ সম্প্রীতি রক্ষায় বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। 
    প্রতিমন্ত্রী আজ রংপুরের গংগাচড়া উপজেলা পরিষদ হলরুমে উপজেলার বিভিন্ন পূজাম-পের প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। সভায় হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 
    প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিরাজমান শান্তি, সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধ নষ্ট করতে একটি মহল ধর্মের অপব্যাখ্যা করে নানা অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে তিনি সনাতন ধর্মাবলম্বী জনগণকে সতর্ক থেকে ষড়যন্ত্র রুখে দেয়ার আহ্বান জানান। তিনি উপজেলার পূজাম-পসমূহে যাতে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় থাকে সে জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে সচেষ্ট থাকার নির্দেশ দেন। 
    পরে প্রতিমন্ত্রী রংপুর জেলার বিভিন্ন পূজাম-প পরিদর্শন করেন ও পূজা উদযাপন কমিটির সদস্যদের সাথে পৃথক মতবিনিময়সভায় উপস্থিত হন। তিনি ডাব্লিউ এসসি গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানেও প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন। 
#

আহসান/আফরাজ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/১৯০৫ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                 নম্বর :  ৩০৭৭

অসাম্প্রদায়িক ভাবমূর্তি তুলে ধরতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে 
                                                         -- স¦াস্থ্যমন্ত্রী
ঢাকা, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) :
    স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদেরকে পূজাম-পগুলোতে পাহারা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, সারা বিশ্বের কাছে অসাম্প্রদায়িক ও শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে আরো ঊর্ধ্বে তুলে ধরতে ধর্মবর্ণনির্বেশেষে সব মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। কোনোভাবেই যেন অশুভ শক্তি মাথাচাড়া দিতে না পারে সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে।
    মন্ত্রী আজ ঢাকার মিরপুর কেন্দ্রীয় মন্দিরে দুর্গাপূজা পরিদর্শনকালে একথা বলেন।
    স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিগত কয়েক বছর যাবৎ দেশের সর্বত্র শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে দুর্গাপূজা পালিত হচ্ছে। ১৪  দলের নেতাকর্মীরা পূজাম-পে নিরাপত্তা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করছে। তিনি পূজা পরিচালনা কমিটি, পূজারি ও ভক্তদের উদ্দেশ্যে বলেন, যখনই দেখবেন পূজায় বিশৃঙ্খলার অপচেষ্টা হচ্ছে তখনই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলীয় নেতাকর্মীদের খবর দিবেন। মনে রাখতে হবে, একাত্তরে সকল ধর্মের মানুষ দেশ স্বাধীন করতে রক্ত ঝরিয়েছে। এ দেশ হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান সকলের। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়া থামিয়ে দেয়ার কোনো ষড়যন্ত্র সফল হতে দেয়া হবে না।
    স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু বলতে কোনো কিছু নাই। এ জাতীয় শব্দ নির্যাতন ও হামলার জন্য ব্যবহার করা যায়। এ ধরনের হামলা নির্যাতন কেন হবে? সরকার কখনোই এটা বরদাশত করবে না। 
    এসময় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক শিখা চক্রবর্তী, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক শ্রভাশীষ বিশ্বাস, মিরপুর কেন্দ্রীয় মন্দিরের সভাপতি সুজিত কুমার রায় এবং সাধারণ সম্পাদক নিখিল বিশ্বাস বক্তৃতা করেন।
    ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম এর আগে মঙ্গলবার রাতে ১৪ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের নিয়ে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দির, রমনা কালী মন্দির, রামকৃষ্ণ মিশনের পূজাম-প পরিদর্শন করে সকলকে শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে পূজা উদযাপনের আহ্বান জানান।     
    বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী কাজী ফিরোজ রশীদ, সাম্যবাদী দলের সভাপতি সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়–য়া, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ নুরুল আম্বিয়া এবং আওয়ামী লীগ নেতা ডা. দিলীপ কুমার রায় পূজাম-প পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সাথে ছিলেন। 
#
পরীক্ষিৎ/আফরাজ/রফিকুল/সেলিম/২০১৫/১৮৩০ ঘণ্টা     
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০৭৬ 


অভিবাসী সংকট বিশ্ব শান্তির জন্য হুমকি
                        -- ডেপুটি স্পিকার

জেনেভা, ২১ অক্টোবর : 
    ডেপুটি স্পিকার এডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া বলেছেন, বর্তমান বিশ্বে অভিবাসী সমস্যা এক জটিল ধাঁধার দ্বারপ্রান্তে এসে পৌঁছেছে। সাম্প্রতিক অভিবাসী সংকট মারাত্মক মানবিক বিপর্যয়ের সৃষ্টি করেছে, যা বিশ্ব শান্তির জন্য হুমকিস্বরূপ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এটাই সবচেয়ে বড় অভিবাসী সংকট। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী অভিবাসীর সংখ্যা ৫০ মিলিয়নে পৌঁছেছে। 
    ডেপুটি স্পিকার গতকাল সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ১৩৩ তম আইপিইউ সম্মেলনে ভাষণ দানকালে একথা বলেন।
        ডেপুটি স্পিকার বলেন, বিশ্বব্যাপী এ মানবিক বিপর্যয়ের প্রভাব বাংলাদেশের মত তৃতীয় বিশ্বের দেশেও আঘাত হানবে। তাই এ সংকট ও মানবিক বিপর্যয়ের আশু সমাধান প্রয়োজন। বর্তমানে বাংলাদেশের প্রায় আট মিলিয়ন মানুষ বিশ্বের ১৫০টি দেশে অভিবাসী হিসেবে অবস্থান করছে। 
    তিনি বলেন, অভিবাসী সমস্যার সমাধানকল্পে বিভিন্ন দেশের সরকার, আন্তর্জাতিক সংস্থা, এনজিও ও অন্যান্য সংগঠনগুলোকে একত্রিত হয়ে একটি সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। গ্রহণযোগ্য অভিবাসী নীতিমালা প্রণয়নের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকারের সাথে একযোগে কাজ করতে হবে। সে জন্য রাজনৈতিক ঐকমত্য প্রয়োজন। 
#


মিজানুর/আফরাজ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/১৯১৫ঘণ্টা 

   তথ্যবিবরণী                                                                  নম্বর :  ৩০৭৫

বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয় 
সম্পর্কিত সংসদীয় স'ায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত
ঢাকা, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) :
         দশম জাতীয় সংসদের বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন  মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স'ায়ী কমিটির ১৩তম বৈঠক আজ জাতীয় সংসদভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারম্নক খান এতে সভাপতিত্ব করেন। 
    কমিটির সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, মো. নজরম্নল ইসলাম চৌধুরী, কামরম্নল আশরাফ খান, মো. আফতাব উদ্দীন সরকার এবং সাবিহা নাহার বেগম বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। 
        ন্ন


বৈঠকে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের ২০১৬ পর্যটন বছরের কর্মসূচি উপস'াপন এবং দশম জাতীয় সংসদের বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন  মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স'ায়ী কমিটির ১ম বৈঠক থেকে ১২তম বৈঠক পর্যনত্ম গৃহীত সিদ্ধানত্মসমূহের আলোকে জাতীয় সংসদে প্রতিবেদনের ওপর  আলোচনা হয়।
          বৈঠকে জানানো হয়, বর্তমানে ঈশ্বরদী বিমানবন্দর বিমান চলাচলের উপযোগী রয়েছে। কোনো এয়ারলাইন্স এ বিমানবন্দরে উপযুক্ততা বিবেচনা করে ফ্লাইট অপারেট করার আগ্রহ প্রকাশ করলে সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপড়্গ প্রয়োজনীয় ব্যবস'া গ্রহণ করবে। 
           বৈঠকে আরো জানানো হয়, বর্তমান সরকারের সৈয়দপুর ও বরিশাল বিমানবন্দরকে  আঞ্চলিক বিমানবন্দরে উন্নয়নের পরিকল্পনা রয়েছে। এ বিমানবন্দর দু’টির উন্নয়নের লড়্গ্যে সম্ভাব্যতা সমীড়্গা, ড্রইং-ডিজাইন, মাস্টার পস্নান ও প্রাক্কলন ব্যয় নির্ধারণের জন্য পরামর্শক নিয়োগের নিমিত্তে প্রকল্প প্রসত্মাব মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে । 
    বৈঠকে পদোন্নতির পাশাপাশি সরাসরি নিয়োগের মাধ্যমে বিমানের দড়্গ জনবল বাড়িয়ে যাত্রীদের সেবার মান আরো উন্নত করার সুপারিশ করা হয়। 
    বাংলাদেশ বিমানের বর্তমান ব্যবস'াপনা পরিচালকের চুক্তির মেয়াদ পুনরায় বৃদ্ধি না  করার  বিষয়ে  কমিটি সুপারিশ করে। 
           বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান, মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশিস্নষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ বৈঠকে উপসি'ত ছিলেন।
#
সাব্বির/আফরাজ/মিজান/রফিকুল/সেলিম/২০১৫/১৮০০ ঘণ্টা     

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০৭৪

বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস্ এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজ
এর প্রতিনিধিদলের সাথে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) : 
    বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বলেছেন সরকার দেশীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি বস্ত্রশিল্পের প্রসারে বিদেশি কাপড়ের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে, বস্ত্ররপ্তানি বৃদ্ধি এবং তৈরিপোশাক শিল্পের কাচাঁমাল বিদেশ থেকে আমদানি কমানোর লক্ষ্যে দেশীয় বস্ত্রদ্বারা তৈরিপোশাক রপ্তানির ক্ষেত্রে সকল ধরনের সহায়তা করবে। 
    বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস্ এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজ এর প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময়সভায় আজ তিনি একথা বলেন। 
    মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে বস্ত্রবয়ণ উইডিং শিল্পে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি আপগ্রেড হওয়ায় এসকল আধুনিক যন্ত্রপাতি পরিচালনা করে এ শিল্পে ব্যবহৃত সকল কাপড় দেশে উৎপাদন করা হবে।
    বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস্ এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজ এর প্রেসিডেন্ট আজিজুল হক বস্ত্রবয়ন উইডিং শিল্প দেশের সর্ববৃৎশিল্প সেক্টর উল্লেখ করে  এ শিল্পের সম্ভাবনা ও বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা তুলে ধরেন। প্রতিমন্ত্রী প্রতিবন্ধকতাসমূহ দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেন।    
    সভায় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, অতি:সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম বাংলাদেশ স্পেশালাইজড টেক্সটাইলস মিলস্ এন্ড পাওয়ারলুম ইন্ডাস্ট্রিজ ভাইস পেসিডেন্ট নূর আলী, পরিচালক ও সদস্য সচিব শেখ আব্দুল হাকিমসহ এ সংগঠনের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন। 
#
সৈকত/শাহআলম/আলী/আসমা/২০১৫/১৫২০ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০৭৩ 

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সাথে অধীনস্থ ৭টি দপ্তরের বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিস্বাক্ষর

ঢাকা, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) : 
    জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ ৭টি দপ্তর ও সংস্থার প্রধানদের সাথে মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব 
ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিস্বাক্ষর করেছেন। এ চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠান আজ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতাসহ কর্মকর্তাদের পেশাগত দক্ষতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি করাই এ চুক্তির লক্ষ্য।
    এসময় দপ্তরপ্রধানদের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের রেক্টর এ কে এম আবদুল আউয়াল মজুমদার, বিসিএস প্রশাসন একাডেমীর রেক্টর মো. সোহরাব হোসাইন, বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক শিরীন আখতার, সরকারি যানবাহন অধিদপ্তরের কমিশনার মুন্সি শাহাবুদ্দিন আহমেদ, মুদ্রণ ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম মাঞ্জুরুল হক, বিয়াম ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক মো. ফজলুল হক এবং সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সাদিয়া সাজমিন সিদ্দিকা। 
    অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বলেন, চুক্তির মাধ্যমে দপ্তর ও সংস্থাসমূহের কার্যক্রমকে একটি কাঠামোর মধ্যে আনা সম্ভব হবে। বিশেষ করে দপ্তরপ্রধানদের কাজের হিসাব নেয়ার সুযোগ হবে। এতে প্রতিটি দপ্তর ও সংস্থার কাজে গতিশীলতা আসবে। কেউ লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হলে তাকে অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে।
    জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বাজেট) মো. অব্দুর রউফ বলেন, কোন সংস্থা কর্মসম্পাদনে ব্যর্থ হলে তাদের বাজেট কমে যাবে এবং এজন্য ব্যাখ্যা দিতে হবে। আর, লক্ষ্য অর্জনে সফল হলে ঐ সংস্থার বাজেট বেড়ে যাবে। 
    চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. ইব্রাহীম হেসেন খানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
#
তৌহিদুল/শাহআলম/আলী/আসমা/২০১৫/১৫০০ ঘণ্টা
        
          
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০৭২

এদেশ সকল ধর্মের সব মানুষের
    - বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটনমন্ত্রী

ঢাকা, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) :
    বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, বাঙালি জাতির অসাম্প্রদায়িক চেতনা সকল ধর্মের মানুষের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সেতুবন্ধ হয়ে কাজ করছে। অশুভশক্তি বারবার চিরায়ত এ চেতনা বিনাসীরূপে আভির্ভুত হওয়ার দুর্দান্ত চেষ্টা করেছে। কিন্তু সফল হতে পারেনি। এদেশের মানুষ রুখে দাঁড়িয়েছে প্রতিবার। তিনি বলেন, আবহমানকাল থেকেই এ ভুখ-ে মুসলিম-হিন্দু, বৌদ্ধ-খ্রিস্টানসহ সকল ধর্মের সকল মানুষ স্বাধীনভাবে নিজ নিজ ধর্মপালন করলেও উৎসব হলো সকলের। বাংলাদেশ প্রমান করেছে এদেশ সকল ধর্মের সকল মানুষের।
    মন্ত্রী আজ ঢাকার কাওলায় সিভিল এভিয়েশন পূজামন্ডপ, ঢাকেশ্বরী পূজামন্ডপ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল পূজামন্ডপ এবং রমনা কালিমন্দির পূজামন্ডপ পরিদর্শনকালে একথা বলেন।
    রাশেদ খান মেনন বলেন, ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার এটাই রীতি। এ দেশের স্বাধীনতা অর্জনে হিন্দু -বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সকলের অবদান রয়েছে। বর্তমান সরকারের লক্ষ্য এদেশের সবমানুষ সুখে থাকুক। সুন্দরভাবে বসবাস করুক। 
    বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সংবিধান থেকে ধর্মনিরপেক্ষতা তুলে দেয়া হয়েছিল। ২০০৯ সালে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর সবমানুষের সমান স্বাধীনতা ও মর্যাদা নিশ্চিত করা হয়েছে। আমাদের দেশের 
নৃজাতি-গোষ্ঠীর অধিকারও সংবিধানে নিশ্চিত করা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
    মন্ত্রী পূজারি ও ভক্তদের সাথেও শুভেচ্ছাবিনিময় করেন।
#

শেফায়েত/শাহআলম/আলী/মিজান/আসমা/২০১৫/১৪১৫ ঘণ্টা 

 


 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০৭১

ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতা বরদাস্ত করা হবে না 
                                  - ভূমিমন্ত্রী 

ঢাকা, ৬ কার্তিক (২১ অক্টোবর) :
ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেছেন, এদেশে ধর্মীয় বিদ্বেষসৃষ্টির সুযোগ দেবে না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এবং ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতা বরদাস্ত করা হবে না।
    গতকাল রাজধানীর বাংলাবাজার হরিশ চন্দ্র বসু স্ট্রীট -এ সর্বজনীন দুর্গোৎসব সমিতির শারদীয়া দুর্গাপূজার ৮২তম বর্ষপূর্তি দুর্গাসপ্তমী অনুষ্ঠান পরিদর্শনশেষে হিন্দুধর্মাবলম্বীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী একথা বলেন।
ভূমিমন্ত্রী বলেন, শান্তি, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির বার্তা নিয়ে সারাবিশ্বে শারদীয় দুর্গোৎসব পালিত হচ্ছে। সত্য, ন্যায় ও সুন্দরের পথে দেশের শান্তিপ্রিয় মানুষ সহাবস্থান করছে। তিনি বলেন, যার যার ধর্মীয় আচারানুষ্ঠানাদি সঠিকভাবে পালন করার বিষয়ে সরকার অত্যন্ত আন্তরিক রয়েছে। তিনি জাতীয় উন্নয়নে সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখার আহ্বান জানান। মন্ত্রী সার্বিক আইনশৃঙ্খলা ও সুন্দর পরিবেশসৃষ্টিতে পুলিশপ্রশাসনের কর্মতৎপরতায় সন্তোষপ্রকাশ করেন। 
এসময় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাবাজার সর্বজনীন দুর্গোৎসব সমিতির সভাপতি শ্যামল পাল, সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মীকান্ত গোস্বামী, শিল্পমন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব সীমা সাহা, ঢাকা ৪৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী আরিফ হোসেন, বিশ্ব শান্তি মিশন বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান ড. কমল কুমার সাহা উপস্থিত ছিলেন।
#

রেজুয়ান/শাহআলম/আলী/মিজান/আসমা/২০১৫/১২৪০ ঘণ্টা

Todays handout (3).doc Todays handout (3).doc

Share with :

Facebook Facebook