তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ অক্টোবর ২০২১

তথ্যবিবরণী ৯ অক্টোবর ২০২১

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৮২৫

 

সকল ধর্মের কল্যাণে  উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে সরকার

                                                          -- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

 

বরগুনা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) : 

 

          ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান বলেছেন, সকল ধর্মের অনুসারীদের কল্যাণে সরকার পর্যাপ্ত উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। তিনি বলেন, বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের চাহিদার আলোকে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। গত ১২ বছরে সরকারের গৃহীত এ সকল প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে,  সকল ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ধর্মীয় বিধি-বিধান, উৎসব ও  অনুষ্ঠানাদি পালন সহজ ও উন্নত হয়েছে।

 

          প্রতিমন্ত্রী আজ বরগুনা জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণার আওতায়  ‘আন্তঃধর্মীয় সংলাপ’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার বৃহত্তর ধর্মীয় জনগোষ্ঠী মুসলমানদের কল্যাণে সারা দেশে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করছে। হজ ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন করে ডিজিটাল হজ ব্যবস্থাপনার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। ওয়াকফ সম্পত্তির ব্যবস্থাপনাকে উন্নয়নের লক্ষ্যে সকল ওয়াকফ সম্পত্তির ডাটাবেজে করা হয়েছে।  তিনি বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে হাজার হাজার আলেম-ওলামার কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। মসজিদভিত্তিক শিশু ও  প্রাক-প্রথমিক শিক্ষার মাধ্যমে লাখ লাখ শিশুকে ধর্মীয় ও  নৈতিকতা শিক্ষা দিয়ে উন্নত মানব সম্পদ তৈরি করা হচ্ছে।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন,  ইমাম মুয়াজ্জিনদের কল্যাণে সরকার প্রয়োজনীয় অর্থ সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। একইভাবে হিন্দুধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ  ট্রাস্ট এবং খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট এর মাধ্যমে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের কল্যাণে বহু সংখ্যক উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। মন্দির ও প্যাগোডা ভিত্তিক শিশু ও গণ শিক্ষা প্রকল্পের আওতায় লক্ষ লক্ষ শিশুকে  নিজ নিজ ধর্মীয় ও নৈতিকতা শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। মন্দির, প্যাগোডা,  গির্জা, শ্মশান, সিমেট্রির সংস্কার ও উন্নয়নে  উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অনুদান প্রদান করা হচ্ছে।

 

          জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) জালালুদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, শওকত হাচানুর রহমান, সুলতানা নাদিরা এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম আতিকুর রহমানসহ প্রমুখ। সভায় বরগুনা জেলার  বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধি, ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবী শ্রেণির প্রতিনিধিবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

 

#

 

আনোয়ার/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২২:২৫ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৮২৪

 

পুরো ডাক ব্যবস্থাকে ডিজিটালে রূপান্তর করেছে সরকার

                               -- ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

 

ঢাকা,  ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) : 

 

          ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডাকঘরের দেশব্যাপী নেটওয়ার্ক ও অবকাঠামো আমাদের বিশাল সম্পদ। এই সম্পদকে জাতির কল্যাণে কাজে লাগাতে হবে। ডিজিটাইজেশনের প্রভাবে ব্যক্তিগত পর্যায়ে চিঠি আদান-প্রদানের যুগ শেষ হয়ে গেলেও পণ্য পরিবহনে ডাক বিভাগকে শ্রেষ্ঠতম প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি পুরো ডাক ব্যবস্থাকে ডিজিটাল করছি আমরা। ডাকঘর ডিজিটাল সেবা প্রদানের কেন্দ্র হিসেবে পরিণত হবে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।

 

          মন্ত্রী আজ ঢাকায় ডাক ভবন মিলনায়তনে  বিশ্ব ডাক দিবস উপলক্ষ্যে ডাক অধিদপ্তর আয়োজিত আলোচনা সভা ও জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পত্রলিখন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

          ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ সিরাজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে  ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে ডাক  ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মোঃ আফজাল হোসেন  এবং অনুষ্ঠানে বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বক্তৃতা করেন।

 

          ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বিশ্ব ডাক দিবসের ঐতিহাসিক গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, ডিজিটাল যুগের  চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ডাকঘরকে পণ্য পরিবহন ও বিতরণের ব্যাকবোন হিসেবে প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই । তিনি বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তির  কল্যাণে  চিঠির যুগ শেষ হয়ে গেলেও ডাক সেবার প্রয়োজন শেষ হয়ে যায়নি বরং উত্তরোত্তর এর প্রয়োজনীয়তা বেড়েই চলেছে। তিনি বলেন, ডাকঘরকে ডিজিটাইজেশনের জন্য ডিজিটাল সার্ভিস ল্যাব করেছি। সেখান থেকে ডিজিটাল প্রক্রিয়া কিভাবে করা যায়-সে লক্ষ্যে কাজ শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে ডিজিটাল ডাকঘরের উদ্যোক্তাদের মাধ্যমে ২০০টি ডিজিটাল সরকারি সেবা প্রদান করা হচ্ছে উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, জনবলকে দক্ষ করে তৈরি করা থেকে শুরু করে অবকাঠামো পর্যন্ত ডিজিটাল বাংলাদেশের পথ ধরেই এগুবে ডাক বিভাগ। ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ইউনিভার্সেল পোস্টাল ইউনিয়ন (ইউপিইউ) এবং আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়ন (আইটিইউ) এর সদস্য পদ অর্জনের ধারাবাহিকতায় আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের বিভিন্ন গৌরবোজ্জ্বল অর্জনের কথা তুলে ধরেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে ডাক বিভাগ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় বাংলা জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষার গৌরব অর্জনের পাশাপাশি নুবায়শাদের সফলতার পথ বেয়ে  বাংলা ইউনিভার্সল পোস্টাল ইউনিয়নের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে একদিন প্রতিষ্ঠা পাবে।

 

          মন্ত্রী বিশ্ব ডাক সংস্থা ইউনিভার্সাল পোস্টাল ইউনিয়ন (ইউপইউ) আয়োজতি ৫০তম পত্র লিখন প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক বিজয়ী  সিলেট আনন্দ নিকেতন বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী নুবায়শা ইসলামকে পুরস্কৃত করেন। এছাড়াও মন্ত্রী ৪৮, ৪৯ ও ৫০তম আন্তর্জাতিক পত্রলিখন প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

 

#

 

শেফায়েত/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২১:৪০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৮২৩

 

বর্তমান সরকার অসম্প্রদায়িক রাজনীতিতে বিশ্বাসী

                                               -- শিল্পমন্ত্রী

 

মনোহরদী (নরসিংদী), ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) : 

 

          শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার সবসময় অসাম্প্রদায়িক রাজনীতিতে বিশ্বাসী। প্রতিটি সম্প্রদায়ের মানুষের কল্যাণে সরকার  সমানভাবে কাজ করছে। সরকার দেশে হাজার বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর।

 

          মন্ত্রী আজ মনোহরদী উপজেলা পরিষদ হলরুমে শারদীয় দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণভাবে উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভা ও পূজামণ্ডপের জন্য অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

          নরসিংদীতে কোনো সাম্প্রদায়িকতার স্থান নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধে আমরা সকল ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে যুদ্ধ করেছি। আমরা স্বাধীনতা চেয়েছি, মুক্তি চেয়েছি। সেজন্য যুদ্ধ করেছি, রক্ত দিয়েছি। যার ফলেই আমরা মহান স্বাধীনতা অর্জন করতে পেরেছি। নরসিংদী সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ । এখানে আমরা সবাই একত্রে মিলে মিশে জাঁকজমকভাবে পূজা উদযাপন করি।

 

          তিনি বলেন, ধর্মীয়  সংস্কৃতির এ সৌহার্দ্য সম্প্রীতির সেতুবন্ধ সূদৃঢ় রাখতে এবং দেশে সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা রুখতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

 

          উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এস এম কাশেমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাকির হোসেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম খান (বীরু), নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শিবপুর-মনোহরদী সার্কেল) মেসবাহ উদ্দিন, মনোহরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট মু. ফজলুল হক, মনোহরদী পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সভাপতি সনজন রায় প্রমুখ।

 

          পরে শিল্পমন্ত্রী মনোহরদী উপজেলার  শেখের বাজার বাজিতপুর রোডের সাভারদিয়া মোড়ে শেখ রাসেল গেটের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এছাড়া তিনি সকালে গোতাশিয়ায় এডভোকেট এম এ মজিদ বি.এম কলেজের বহুতল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

#

 

মাহমুদুল/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২১:৫৫ ঘণ্টা 

 

 

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৮২২

 

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ

                        -- সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

 

আদিতমারী (লালমনিরহাট),  ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) : 

 

          সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। তিনি এক সময়ের তলাবিহীন ঝুঁড়ির দেশকে উপচে পড়া ঝুঁড়ির দেশে পরিণত করছেন।

 

          মন্ত্রী আজ আদিতমারী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে উপজেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদ ও মন্দির কমিটির সাথে মতবিনিময় সভা এবং ব্যক্তিগত ও সরকারি অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

          মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার এ দেশের সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন করেছে। শেখ হাসিনার বিকল্প আর কেউ নেই। তিনি একের পর এক উন্নয়ন করে দেশকে রোল মডেলে পরিণত করেছেন।

 

          মন্ত্রী আরো বলেন, মানুষের জন্য সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী শতভাগ ভাতার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এমনকি ক্যান্সার ও হৃদরোগসহ দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্তদের আর্থিক সহায়তার ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

 

          অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অতিঃ দায়িত্বে) আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন পূজা
উদ্‌যাপন পরিষদ আদিতমারী উপজেলা শাখার সভাপতি পূর্ণ চন্দ্র বর্মন। প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মফিজুল ইসলামের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শেখ রফিকুল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মতিয়ার রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েস, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চিত্তরঞ্জন সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ মোল্লা ও পূজা উদযাপন পরিষদের সম্পাদক তপন কুমার ঘোষ প্রমুখ।

 

          শেষে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী উপজেলার ১১৩টি পূজামণ্ডপে সরকারিভাবে ৪৯৫ কেজি জিআর চাল ও  নিজ তহবিল থেকে ২ হাজার টাকা করে অনুদান পূজামণ্ডপের নেতাদের হাতে তুলে দেন।

 

#

 

জাকির/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২১:২০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                            নম্বর :  ৪৮২১

 

শেখ হাসিনা দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন

                             ---প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

 

 

সিলেট, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) :

 

          প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, শেখ হাসিনা দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন। তিনি সবাইকে প্রধানমন্ত্রীর অবদানকে অনুসরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

 

          মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মহান মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহিদ এবং দেশ গঠনে যারাই অবদান রেখেছেন তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকতে হবে। অকৃতজ্ঞ জাতি কখনো উন্নতি করতে পারে না।

 

          মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল ধর্মের মানুষের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরো বলেন, আমাদের সরকারের লক্ষ্য বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অসম্প্রদায়িক সোনার বাংলা গঠন করা।

 

          মন্ত্রী আজ সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে স্থানীয় পূজা কমিটি আয়োজিত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় ও এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন।

 

          কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পূজা কমিটির সভাপতি অখিল চন্দ্র বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ জয়নাল আবেদীন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন আচার্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজদ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আপ্তাব আলী কালা মিয়া প্রমুখ।

 

          উল্লেখ্য, সভাশেষে মন্ত্রী পূজা পরিষদের নেতৃবৃন্দের নিকট করোনা সুরক্ষা সামগ্রী হস্তান্তর করেন।

 

 

#

রাশেদুজ্জামান/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/আব্বাস/২০২১/২০:০২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                            নম্বর :  ৪৮১৯

 

জনবিচ্ছিন্ন দলই নির্বাচন বর্জনের কথা বলে

                        ---তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) :

 

          তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, জনবিচ্ছিন্ন দলই নির্বাচন বর্জনের কথা বলে। যাদের রাজনীতি জনগণনির্ভর, তারা নির্বাচন বর্জন করে না। 

          আজ ঢাকা থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে মন্ত্রী তাঁর নিজ নির্বাচনী এলাকা চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলা মিলনায়তনে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের রাঙ্গুনিয়া শাখা আয়োজিত চেক ও বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যদান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন। 

          'বিএনপি এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না, ২০ দলীয় জোট নিয়ে সরকার পতনের আন্দোলনের ডাক দিয়েছে' এ বিষয়ে জানতে চাইলে ড. হাছান সাংবাদিকদের বলেন, 'বিএনপি যে ২০ দলীয় জোট বলছে, সেই জোট থেকে বেশ কয়েকটি দল পালিয়ে গেছে। এখন ২০ দলীয় জোট যে কত দলীয় জোট, সেটি একটি পরীক্ষা নিরীক্ষার বিষয়। বিএনপি নেতারা যে বলছেন, সব দলকে নিয়ে আন্দোলন করবেন, তাদের মধ্যের ঐক্যটাই তো ভেঙে গেছে।'

          আগের নির্বাচনের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, '২০১৮ সালের নির্বাচনের আগেও বর্জনের কথা বলেছিল, শেষ পর্যন্ত তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে। যেসমস্ত দলের কোনো জনভিত্তি নেই, নির্বাচন বর্জনের কথা তারাই বলে। বিএনপিকে যদি জনমুখী রাজনৈতিক দল হিসেবে টিকিয়ে রাখতে হয়, তাহলে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কোনো বিকল্প নেই।'

          'আমি আশা করবো, বিএনপি অতীতের মতো আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়ে নির্বাচন বর্জনের দিকে যাবে না' বলেন তথ্যমন্ত্রী। 

          এর আগে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা মিলনায়তনের অনুষ্ঠানে অনলাইনে দেয়া বক্তব্যে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সকল ধর্মের মানুষের মিলিত রক্তস্রোতে স্বাধীন বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির কোনো স্থান নেই। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিশ্বাস করে 'ধর্ম যার যার, উৎসব সবার'। সেইমতে বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য নজির।

          হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি উত্তম কুমার শর্মার সভাপতিত্বে রাঙ্গামাটির জ্যোতিশ্বর বেদান্ত মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ অভেদানন্দ ব্রহ্মচারী অনুষ্ঠানে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলন করেন এবং আয়োজনটি উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক বেনু কুমার দে। 

          কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিল্লোল বিশ্বাস, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব শাহজাহান সিকদার, রাঙ্গুনিয়া উপজেলার  নির্বাহী অফিসার মোঃ ইফতেখার ইউনুচ, সহকারী কমিশনার ভূমি বাবু রাজীব চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার প্রমুখ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। 

 

#

আকরাম/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/আব্বাস/২০২১/২০:১৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                       নম্বর :  ৪৮১৮

ঢাকাকে অধিকতর নান্দনিক শহরের পাশাপাশি যোগাযোগ সহজীকরণের লক্ষ্যে

একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রজেক্ট গ্ৰহণে বিশ্বব্যাংককে অর্থমন্ত্রীর আহ্বান

ঢাকা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর)  :

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মু্স্তফা কামালের নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল ও বিশ্ব ব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট হার্টউইগ শেফার এর নেতৃত্বে বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধি দলের মধ্যে গতকাল এক ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিনসহ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ এবং বাংলাদেশে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রিডিরেক্টর মার্সি টেম্বনসহ অন্যান্য কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন।

অর্থমন্ত্রী বাংলাদেশের চলমান বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে সরকারি খাতে সহজ শর্তে আরো অধিকতর অর্থায়নের পাশাপাশি উন্নত প্রযুক্তি হস্তান্তর ও বেসরকারি খাতেও সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য বিশ্বব্যাংকের প্রতি অনুরোধ করেন। তিনি প্রকল্প বাস্তবায়নে বাংলাদেশের সক্ষমতা বৃদ্ধি ও ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের দক্ষতা ও সক্ষমতার কথা বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধিদলকে অবহিত করেন। অর্থমন্ত্রী, ঢাকার চারপাশের নদীগুলোর পুনরুজ্জীবন ও সংস্কারের মাধ্যমে বিশ্বের অন্যতম সুপ্রাচীন ঐতিহাসিক শহর ঢাকা মহানগরীকে আরো অধিকতর নান্দনিক শহরের পাশাপাশি যোগাযোগ সহজীকরণের লক্ষ্যে বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতায় একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রজেক্ট গ্ৰহণের জন্য বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্টকে আহ্বান জানান। বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট এ বিষয়ে সার্বিক সহযোগিতারও আশ্বাস প্রদান করেন।

সভায় হার্টউইগ শেফার বিশ্বব্যাংকের International Development Association (IDA)-এর সম্পদের সর্ববৃহৎ ব্যবহারকারী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি IDA- এর অর্থায়নে উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সমগ্র বিশ্বে বাংলাদেশকে রোল মডেল হিসেবে অভিহিত করে বাংলাদেশের এই দক্ষতা ও সাফল্যকে  বিশ্বব্যাংক-আইএমএফ এর বার্ষিক সম্মেলনে যথাযথভাবে তুলে ধরার মাধ্যমে IDA খাতে উন্নত ও ধনী দাতাদেশসমূহের অধিকতর অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালনে নেতৃত্ব প্রদানের আহ্বান জানান। তিনি বিশ্বব্যাংকের IDA খাত থেকে সহায়তা গ্রহণের  ৫০ বছরপূর্তি এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের ৫০ বছরপূর্তিতে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল এর মাধ্যমে বাংলাদেশের সরকার ও জনগণকে শুভেচ্ছা জানান।

হার্টউইগ শেফার দারিদ্র্য দূরীকরণ, দুর্যোগ মোকাবিলাসহ জলবায়ু পরিবর্তনজনিত পরিস্হিতিতে বাংলাদেশের গৃহীত লাগসই পরিকল্পনা ও এ সকল ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অর্জিত সাফল্যেরও প্রশংসা করেন।  এ সকল ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশ্বে নেতৃত্ব প্রদান করতে পারে মর্মে অভিমত ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাংকের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিয়ে  যাওয়ার ক্ষেত্রে অর্থমন্ত্রী ও সরকারের উচ্চ পদস্হ কর্মকর্তাগণের সহযোগিতা কামনা করেন।

#

তৌহিদুল/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/রেজাউল/২০২১/১৯৪৬ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৮১৭

 

অধ্যাপক ড. আফসার আহমেদের মৃত্যুতে

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী এবং সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) : 

 

          জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. আফসার আহমেদ এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এবং সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

 

          আজ পৃথক শোকবার্তায় মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

 

          শোকবার্তায় মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী বলেন, ড. আফসার আহমেদ ছিলেন একাধারে কবি, নাট্যকার, অনুবাদক, গবেষক ও সাহিত্য সমালোচক। তাঁর মৃত্যুতে দেশের অপূরণীয় ক্ষতি হলো।

 

#

 

বিবেকানন্দ/ফয়সল/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/১৯:১৫ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                            নম্বর :  ৪৮১৬

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) :

 

            স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৬ হাজার ৯২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪১৫ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৬১ হাজার ৮৭৮ জন। 

 

          গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ জন-সহ এ পর্যন্ত ২৭ হাজার ৬৭৪ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন।

 

          করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ২৩ হাজার ১৩৪ জন।

 

#

 

ফেরদৌস/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/আব্বাস/২০২১/১৯:১৪ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                       নম্বর : ৪৮১৫

বাংলাদেশ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বিশ্বে অনুকরণীয় মডেল

                                               ----ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৪ আশ্বিন (৯ অক্টোবর) :

            দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ এনামুর রহমান বলেছেন, দুর্যোগ মোকাবেলায় দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা, পরিশ্রম আর দূরদর্শী পরিকল্পনা এবং নতুন নতুন কৌশলকে কাজে লাগিয়ে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে আজ সারা বিশ্বের কাছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় অনুকরণীয় মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে ।

 

            প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকায় সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত ‘দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ’ শীর্ষক মুক্ত আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন ।

 

            দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোহসীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা’ ফ্রেন্ডশিপ’-এর জ্যেষ্ঠ পরিচালক কাজী এমদাদুল হক। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আতিকুল হক এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শাহ মোহাম্মদ নাসিম ।

 

            প্রতিমন্ত্রী বলেন, দুর্যোগে জীবন ও সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে দুর্যোগ সহনীয় টেকসই নিরাপদ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় পরিকল্পিতভাবে কাঠামোগত ও অবকাঠামোগত কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে । বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনায় ঘূর্ণিঝড় ও বন্যা হতে মানুষের জানমাল রক্ষার্থে মাটির কিল্লা নির্মাণ করা হয়, যা সর্বসাধারণের কাছে মুজিব কিল্লা নামে পরিচিত । তারই আধুনিক রূপে উপকূলীয় ও বন্যা উপদ্রুত ১৪৮টি উপজেলায় ৫৫০টি মুজিব কিল্লা নির্মাণ, সংস্কার ও উন্নয়ন কার্যক্রম চলমান । উপকূলীয় দুর্গত জনগণ যেমন সেখানে আশ্রয় নিতে পারবে তেমনি তাদের প্রাণিসম্পদকে ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে পারবে । এছাড়া জনসাধারণের খেলার মাঠ, সামাজিক অনুষ্ঠান ও হাটবাজার হিসেবেও এটি ব্যবহার করা যাবে ।

 

            তিনি আরো বলেন, বন্যাপ্রবণ ও নদীভাঙন এলাকায় দুর্যোগ ঝুঁকিহ্রাসে বন্যাপীড়িত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য দ্বিতল বিশিষ্ট ২৩০টি বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে । এতে প্রায় ৯২ হাজার মানুষ এবং ২৩ হাজার গবাদি পশুর আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে । ২০১৮-২০২২ মেয়াদে ৪২৩টি বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে ।

 

            সভাপতির বক্তৃতায় মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোহসীন বলেন, বঙ্গবন্ধু ১৮ হাজার স্বেচ্ছাসেবক নিয়ে সিপিপি’র যাত্রা শুরু করেছিলেন যাঁরা আগাম সতর্কসংকেত প্রচার এবং সন্ধান ও উদ্ধার কার্যক্রমের মাধ্যমে মানুষের জানমাল রক্ষায় ব্যাপক ভূমিকা রেখে আসছে । বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক-নির্দেশনায় সিপিপি স্বেচ্ছাসেবক সংখ্যা ৭৬ হাজার ২০ জনে উন্নীত হয়েছে । এই স্বেচ্ছাসেবকদের ৫০ শতাংশ নারী । তিনি আরো উল্লেখ করেন, পুরো দেশজুড়ে আধুনিক আবহাওয়ার রাডার এবং পূর্বাভাস ব্যবস্থা রয়েছে । উপকূলে ৫ হাজারের বেশি বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র রয়েছে । জরুরি পরিস্থিতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হয় । দুর্যোগে প্রাণহানির তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সচিব বলেন, ১৯৭০ সালের ঘূর্ণিঝড়ে ১০ লক্ষাধিক মানুষ প্রাণ হারান । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন নেতৃত্বে সাম্প্রতিক কালে একই মাত্রার ঘূর্ণিঝড়ে প্রাণহানি একক সংখ্যায় নেমে এসেছে ।

 

            এছাড়াও মুক্ত আলোচনায় সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পটুয়াখালী, কক্সবাজার, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা-সহ বিভিন্ন দুর্যোগকবলিত জেলার ২০ জন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এবং ২০ জন এনজিও প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় আরো বেশিসংখ্যক ঘুর্ণিঝড় ও বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ, লবণাক্ত এলাকায় সুপেয় পানির উৎস তৈরি ও সংরক্ষণ, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলা ও নদীভাঙন রোধে বৃক্ষায়ন-সহ বিভিন্ন কর্মসূচির সুবিধা ও চ্যালেঞ্জসমূহ তুলে ধরেন বক্তাগণ ।

 

#

সেলিম/নাইচ/এনায়েত/মোশারফ/আব্বাস/2021/১৯:১৩ NÈv  

তথ্যবিবরণী                                                                                                       নম্বর :  ৪৮১৪

 

অধ্যাপক ড. এ এম হারুন-অর-রশিদের মৃত্যুতে বিজ্ঞান মন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ২৪ আশ্বিন

2021-10-09-16-33-86371e3aafb56bbe6a424c373a314fcd.doc 2021-10-09-16-33-86371e3aafb56bbe6a424c373a314fcd.doc

Share with :

Facebook Facebook