তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

তথ্যবিবরণী ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

তথ্যবিবরণী                                                                                             নম্বর : ২৩৩৬
 
সঙ্গীত মনকে পরিশুদ্ধ ও কালিমামুক্ত করে
                                                                     -- সংস্কৃতিমন্ত্রী
ঢাকা, ২৭ ভাদ্র (১১ সেপ্টেম্বর) : 
 
সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, সঙ্গীত মানুষের মনকে শুধু আনন্দ দেয় না, মনকে পরিশুদ্ধ ও কালিমামুক্ত করে। এটি মানুষের মানবিকতাবোধকে জাগ্রত করে এবং পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে বিকশিত হতে সহায়তা করে। সেজন্য দেশব্যাপী শিক্ষার পাশাপাশি সঙ্গীতচর্চার আরো প্রসার ঘটাতে হবে। মানবিকতাবোধে উদ্বুদ্ধ প্রকৃত শিক্ষিত জাতি গঠিত হলে দেশে আর সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ থাকবে না। 
 
মন্ত্রী আজ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে বাংলাদেশ মিউজিশিয়ান্স ফাউন্ডেশন (বিএমএফ) আয়োজিত ‘জাতীয় যন্ত্রসঙ্গীত শিল্পী সম্মেলন ২০১৭’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
 
মন্ত্রী বলেন, শিল্পচর্চা আমরা শুধু ঢাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে চাই না, জেলা-উপজেলা তথা তৃণমূল পর্যায়েও এর ব্যাপক প্রসার ঘটাতে চাই। সরকার এ লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে জেলা পর্যায়ে শিল্পকলা একাডেমি স্থাপন করা হয়েছে। উপজেলা পর্যায়েও এটি সম্প্রসারণে সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে। সঙ্গীত শিক্ষার সম্প্রসারণে জেলা পর্যায়ে সরকারিভাবে সঙ্গীত শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, সরকার ঐতিহ্যবাহী বাদ্যযন্ত্রের সংরক্ষণেও কাজ করে যাচ্ছে। বিলুপ্তপ্রায় বাদ্যযন্ত্র যথা- বেহালা, বাঁশি, পাখোয়াজ প্রভৃতি ব্যবহারের মাধ্যমে আমাদের প্রাচীন বাদ্যযন্ত্রশিল্পকে আরো সমৃদ্ধ করতে চাই। সরকার যন্ত্রসঙ্গীত শিল্পীদের সমস্যা সমাধানে অত্যন্ত আন্তরিক বলে তিনি এসময় উল্লেখ করেন।
 
বাংলাদেশ মিউজিশিয়ান্স ফাউন্ডেশন (বিএমএফ) এর সভাপতি গাজী আব্দুল হাকিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন ও বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী সৈয়দ আবদুল হাদী। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএমএফ এর সাধারণ সম্পাদক দেবু চৌধুরী।
 
অনুষ্ঠানে দু’জন প্রধান যন্ত্রসঙ্গীতশিল্পী ওস্তাদ বাসুদেব দাস (বাঁশি বাদক) ও ওস্তাদ আলাউদ্দিন মিয়া  (বেহালা বাদক) কে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়।
 
#
 
ফয়সল/মাহমুদ/মোশারফ/রেজাউল/২০১৭/২১৪৮ ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ২৩৩৫
এইডস সচেতনতায় গণমাধ্যমের জোরদার ভূমিকা প্রত্যাশা তথ্যসচিবের
ঢাকা, ২৭ ভাদ্র (১১ সেপ্টেম্বর) : 
এইডস সচেতনতায় গণমাধ্যমের জোরদার ভূমিকার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ। সেইসাথে নিজ মন্ত্রণালয়ের সকল বিভাগকে একযোগে কাজ করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ের তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় আয়োজিত এইচআইভি-এইডস প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও এইডস আক্রান্ত ব্যক্তির সাথে আচরণ বৈষম্য দূরীকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা সংক্রান্ত এডভোকেসি কর্মশালায় সভাপতির বক্তব্যে সচিব এ আশা ব্যক্ত করেন ও এ নির্দেশনা জানান।
মরতুজা আহমদ বলেন, এ বিষয়ে গণমাধ্যমে জোর প্রচারণা মানুষের প্রাণরক্ষা করবে ও এইডস আক্রান্ত ব্যক্তির সাথে আচরণ বৈষম্যও দূর করবে। প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক ও অনলাইন গণমাধ্যমের মিলিত প্রচেষ্টা একাজে সবচেয়ে বেশি সুফল দেবে।
বেসরকারি গণমাধ্যমগুলোসহ বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার, তথ্য অধিদফতর, গণযোগাযোগ অধিদফতর, চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতর, বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা দেশব্যাপী তাদের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে প্রাণঘাতী জীবাণু এইচআইভি সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায় ও সংক্রমিত ব্যক্তির জীবনপদ্ধতি বিষয়ে সচেতনতা জোরদার করার ক্ষেত্রে যে কাজ করবে, তাতে সহযোগিতা দেবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সেভ দি চিল্ড্রেন।
মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবদের মধ্যে মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ, মোঃ মনজুরুর রহমান, রোকসানা মালেকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, সেভ দি চিল্ড্রেন এবং তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিভাগগুলোর প্রতিনিধিবৃন্দ কর্মশালায় অংশ নেন।
#
 
আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/রেজাউল/২০১৭/১৯৫৫ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                          নম্বর : ২৩৩৪

 
বাংলাদেশ বিশ্ব পর্যটন সংস্থার দক্ষিণ এশিয়ার সভাপতি নির্বাচিত
 
ঢাকা, ২৭ ভাদ্র (১১ সেপ্টেম্বর) : 
চীনের  চেংডুতে (ঈযবহমফঁ) বিশ্ব পর্যটন সংস্থার (টঘডঞঙ) ২২তম অধিবেশনে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে। 
আজ চেংডু থেকে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতা স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার টেলিফোনে বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেননকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মন্ত্রী বলেন, এটি পর্যটন খাতে বাংলাদেশের এগিয়ে যাবার একটি স্বীকৃতি যা এ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আরো নিবিড়ভাবে কাজ করতে প্রেরণা যোগাবে। 
এ অধিবেশন ১৬ তারিখ পর্যন্ত চলবে। সম্মেলনে ৫ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল অংশগ্রহণ করছে।
#
তুহিন/মাহমুদ/আলী/মোশারফ/আব্বাস/২০১৭/১৯২২ ঘণ্টা

Handout                                                                                                             Number : 2333

Foreign Minister holds diplomatic briefing on Rohingya issue

Dhaka, 11 September:

Foreign Minister A H Mahmood Ali held diplomatic briefings this afternoon at the State Guest House Padma. Ambassadors, High Commissioners and representatives from diplomatic Missions of Afghanistan, Brunei Darussalam, China, Indonesia, Japan, Malaysia, Vietnam, Philippines, Thailand, Singapore, South Korea, India, Bhutan, Nepal, Sri Lanka, Pakistan and Maldives were present at the briefing.

The Foreign Minister briefed the diplomats about the current situation regarding influx of Rohingyas and apprised that around 300,000 Rohingyas have already entered Bangladesh in last two weeks. He also mentioned that Bangladesh has already been hosting 400,000 Rohingyas for 3 decades and currently the total number of Myanmar nationals living in Bangladesh has reached over 700,000. This is creating huge challenge for Bangladesh in terms of providing shelter as well as other humanitarian assistances to them.

The Foreign Minister highlighted that Bangladesh has always preferred bilateral solution to this long standing problem and was successful in repatriating 236,599 Rohingyas to their homeland through a bilateral agreement in 1992. He mentioned that the 1992 Agreement recognized Rohingyas as ‘members of Myanmar society’. Foreign Minister also highlighted Bangladesh’s efforts to address the security concerns of Myanmar particularly by proposing MoUs in 2014 on Border Liaison Office and Security Dialogue. Bangladesh has also proposed joint inspection, coordinated patrolling of border; and ‘joint operation’ along the border. Unfortunately Myanmar has not responded to these proposals. Rather, they have been running a malicious propaganda terming the Rohingyas as ‘illegal migrants from Bangladesh’ and the attackers to their BGP posts as ‘Bengali terrorists’.

The Foreign Minister referred to the recently published report of the Kofi Annan Commission and urged the international community to pursue the Myanmar Government for immediate and unconditional implementation of the recommendations of this report in its entirety for permanent solution to this crisis. He also requested the international community to help Bangladesh with urgent humanitarian assistances to address the current crisis, support for transportation of the Rohingyas to Bhashan Char, as well as to provide political support to ensure sustainable return of all Myanmar nationals to their homes in Myanmar.

The diplomats thanked the government of Bangladesh for the briefing. They highly praised the government of Bangladesh for hosting the Rohingyas for all these years and also giving shelter to the Myanmar nationals who are fleeing violence in the Rakhine State. They also stressed on the protection of civilians in the Rakhine State.

State Minister for Foreign Affairs Shahriar Alam, Foreign Secretary and other senior officials of the Foreign Ministry were also present. 

#

 

Khaleda/Mahmud/Mosharaf/Joynul/2017/1850hours
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ২৩৩২
প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জ্বালানি বিভাগের অনুদান প্রদান
 
ঢাকা, ২৭ ভাদ্র (১১ সেপ্টেম্বর) : 
প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে আজ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের পক্ষ থেকে ৮ কোটি ৪ লাখ ৫ শত ১৫ টাকা অনুদানের একটি চেক হস্তান্তর করা হয়েছে। বন্যার্তদের সহায়তা করার জন্য জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থাগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ১ দিনের বেতন থেকে এ অর্থ প্রদান করা হয়। 
 
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুদান হস্তান্তর অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব নাজিমউদ্দিন চৌধুরী। 
 
#
 
আসলাম/মাহমুদ/মোশারফ/রেজাউল/২০১৭/১৮০৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ২৩৩১
 
নবপ্রতিষ্ঠিত মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের কার্যক্রম চলবে 
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের নীতি অনুসরণে

ঢাকা, ২৭ ভাদ্র (১১ সেপ্টেম্বর) : 
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের নীতি অনুসরণ করে নবপ্রতিষ্ঠিত চট্টগ্রাম ও রাজশাহী মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের কার্যক্রম চলবে।
আজ সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম ও রাজশাহী মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের কার্যক্রম প্রক্রিয়া সংক্রান্ত এক সভায় এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এতে সভাপতিত্ব করেন।
এই দুই বিশ^বিদ্যালয়ের বাজেট দ্রুত অনুমোদনের জন্য শীঘ্রই শিক্ষামন্ত্রীকে সাথে নিয়ে অর্থমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে বসবেন বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সভায় জানান। মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের সাত বিভাগে একটি করে মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় স্থাপনের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে জমি বরাদ্দ করে বিশ^বিদ্যালয় অবকাঠামো নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে উপাচার্য নিয়োগও হয়ে গেছে। প্রয়োজনীয় জনবল পেলে তাদের পক্ষে প্রশাসনিক কাজ শুরু করা সম্ভব হবে। এজন্য দ্রুত অর্থ ছাড় করানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, সরকার ইতোমধ্যে সিলেটেও একটি মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় স্থাপনের প্রক্রিয়া শুরু করেছে। চিকিৎসা শিক্ষা ও গবেষণার মান উন্নয়নে সরকারের এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব সিরাজুল হক খান, বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, বিএসএমএমইউ’র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. ইসমাইল খান, রাজশাহী মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মাসুম হাবিব উপস্থিত ছিলেন। 
সভায় জানানো হয়, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজগুলোর এমবিবিএস কোর্সের কার্যক্রম বিএসএমএমইউ’র অধীনে আনতে প্রস্তাবনা উপস্থাপনের লক্ষ্যে গঠিত কমিটি সাত সদস্য বিশিষ্ট হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ সচিব, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব, বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান, বিএসএমএমইউ উপাচার্য, বিএমডিসি সভাপতি, বিএমএ সভাপতি এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (চিকিৎসা শিক্ষা) কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত থাকবেন।

পরীক্ষিৎ/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৭/১৮১০ঘণ্টা

Todays handout (5).docx Todays handout (5).docx

Share with :
Facebook Facebook