তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ৪৬৭৫

 

ঐক্যবদ্ধ থাকার মাধ্যমে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে

                                                  -- সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

 

ময়মনসিংহ, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

 

          সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মুক্তাগাছা উপজেলা শাখার সভাপতি কে এম খালিদ বলেছেন, দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে কোনো বিভেদ নয়, ভুল বোঝাবুঝি নিরসন করে ঐক্যবদ্ধ থাকার মাধ্যমে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।

 

          আজ ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মনিরাম বাড়ী মেইন রোড সংলগ্ন মাঠে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মুক্তাগাছা উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২১-এ সভাপতির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত এক মাস ধরে একটি পৌরসভাসহ মুক্তাগাছা উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও ৯৯টি ওয়ার্ডে সম্মেলনের মধ্য দিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২১ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তৃণমূলের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ব্যাপক উৎসাহ- উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, এ সম্মেলনের মাধ্যমে নবীন-প্রবীণের মিশেলে মুক্তাগাছা উপজেলায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একটি সুসংগঠিত ও কার্যকরী কমিটি গঠিত হবে।

         

#

 

ফয়সল/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/রফিকুল/সেলিম/২০২১/২১.২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                 নম্বর : ৪৬৭৪

দুবাইতে বাংলাদেশি কর্মীদের সাথে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর মতবিনিময়

দুবাই (৩০ সেপ্টেম্বর) :

          প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদের সাথে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে বাংলাদেশি কর্মীদের সাথে মত বিনিময় করেন। বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি এসময় উপস্থিত ছিলেন।

          আজ দু’জন মন্ত্রী দুবাইতে পরিচ্ছন্নতা কাজে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠান আল ওয়াফা গ্রুপ এবং পারফিউম প্রস্তুতকারী শিল্প প্রতিষ্ঠান আল হারামাইন গ্রুপ অভ্ কোম্পানি আজমান পরিদর্শন করেন।

          এ সময় মন্ত্রীদ্বয় বাংলাদেশী কর্মীদের সার্বিক খোজ খবর নেন। বাংলাদেশী কর্মীরা করোনা মহামারীর কারণে সৃষ্ট সমস্যাসমূহ সমাধানের অনুরোধ জানায়। মন্ত্রী দু’জন কর্মীদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনে দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন।

          এরপর প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী সকল প্রবাসী বাংলাদেশী কর্মীদের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্যপদ গ্রহণপূর্বক সকল প্রকার সরকারী সেবার অংশীদার হওয়া এবং বৈধ পত্রে রেমিট্যান্স প্রেরণের অনুরোধ জানান।

          আল ওয়াফা গ্রুপ ও আল হারামাইন গ্রুপের চেয়ারম্যানরা কোম্পানীর নিজস্ব খরচে তাদের কোম্পানীতে কর্মরত কর্মীদের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্যপদের ব্যবস্থা এবং তাদের কর্মীগণকে বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণে উদ্বুদ্ধ করবেন বলে মন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন।

          পরিদর্শন কালে আরো উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস এম শফিকুজ্জামান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব নাসরীন জাহান, দুবাই কনসাল জেনারেল বিএম জানাল হোসাইন, কাউন্সিলর (শ্রম) ফাতেমা জাহান, প্রথম সচিব (শ্রম) মনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

#

রাশেদুজ্জামান/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৫৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৪৬৭৩

রাষ্ট্রপতির কাছে সুপ্রিম কোর্টের ২০২০ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ

ঢাকা, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

          রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের কাছে আজ বঙ্গভবনে সুপ্রিম কোর্টের ২০২০ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল।

          প্রতিনিধিদলে ছিলেন আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী ও বিচারপতি মোঃ নূরুজ্জামান এবং হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি ফরিদ আহমেদ ও বিচারপতি সহিদুল করিম।

          প্রতিনিধিদল রাষ্ট্রপতিকে প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক এবং সুপ্রিম কোর্টের সার্বিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে অবহিত করে।

          রাষ্ট্রপতি করোনাকালে ভার্চুয়াল আদালত চালু করে জনগণের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য প্রধান বিচারপতিকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফলগুলোর মাঝে এটি অন্যতম।

          রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম এবং সচিব (সংযুক্ত) মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

ইমরানুল/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৩০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ৪৬৭২

 

চীন বাংলাদেশের সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে

                                    -- কৃষিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

 

          কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক ৪৬ বছরের। দু’দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক ও সহযোগিতা অনন্য উচ্চতায় পৌঁছেছে। অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে চীন বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে আর্থিক, কারিগরিসহ নানাভাবে সহায়তা করছে। সামনের দিনগুলোতে এ সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।

 

          মন্ত্রী আজ ভার্চুয়ালি চীনের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ-চীন সিল্ক রোড ফোরাম আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

          মন্ত্রী বলেন, সুদূর অতীতকাল থেকেই  আজকের বাংলাদেশ ও প্রাচীন চীনের মধ্যে যোগাযোগ ও সম্পর্ক বিদ্যমান ছিল। তবে আধুনিক সময়ে যোগাযোগ ও সম্পর্ক স্থাপিত হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাধ্যমে। তিনি ১৯৫২ ও ১৯৫৭ সালে চীন সফরে গিয়েছিলেন। চীনের প্রধানমন্ত্রী চৌ এন লাইয়ের সাথে মতবিনিময় করেছিলেন যা দু’দেশের সম্পর্কের ভিত্তি স্থাপন করেছিল।

 

          ড. রাজ্জাক বলেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে বাণিজ্য সম্পর্ক দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। চীন এখন বাংলাদেশের আমদানির সবচেয়ে বড় উৎস দেশে পরিণত হয়েছে। তবে বাংলাদেশ ব্যাপক বাণিজ্য ভারসাম্যহীনতায় ভুগছে। এটিকে কমিয়ে আনতে দু’দেশকে আরো আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে হবে।

 

          মন্ত্রী আরো বলেন, স্ট্র্যাটেজিক ইস্যু হিসেবে নিয়ে চীনকে বাংলাদেশের রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসতে হবে। মানবিক দিক বিবেচনা করে রোহিঙ্গাদেরকে দ্রুত মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে সহযোগিতার জন্য চীনকে অনুরোধ জানান মন্ত্রী।  

 

          আলোচনা সভায় ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ-চীন সিল্ক রোড ফোরামের চেয়ারম্যান ও সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়ার সভাপতিত্বে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি, জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি, সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বিএনপির স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য ড. মঈন খান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

         

#

 

কামরুল/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২০.০০ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                           নম্বর : ৪৬৭১

পানির ভবিষ্যৎ চাহিদা পূরণে কাজ করছে সরকার

                                  -- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

নারায়ণগঞ্জ, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

            স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, ঢাকা মহানগরীতে ভবিষ্যতে বর্ধিত পানির চাহিদা পূরণ করতে নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার।

            মন্ত্রী আজ নারায়ণগঞ্জে ঢাকা ওয়াসা কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন গন্ধবপুর ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট প্রকল্পের ইন্টেক পাম্পিং স্টেশন পরিদর্শনে এসে এ কথা বলেন।

            মন্ত্রী বলেন, ঢাকা ওয়াসার উদ্যোগে গন্ধবপুর ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট, সায়দাবাদ ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট (ফেইজ-৩) সহ বেশ কয়েকটি প্রকল্প চলমান রয়েছে। এগুলো বাস্তবায়িত হলে ঢাকা নগরবাসী এবং শিল্প কলকারখানায় পানি সরবরাহে কোনো সমস্যা থাকবে না। ঢাকা শহরে আগামী দিনে পানির যে চাহিদা বৃদ্ধি পাবে তা মোকাবিলা করা সম্ভব হবে। মেঘনা নদী থেকে পানি উত্তোলন করে ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে ঢাকায় পানি সরবরাহে যে প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়েছে এটি ২০২৩ সালে সমাপ্ত হবে এবং এ থেকে প্রতিদিন পঞ্চাশ কোটি লিটার পানি সরবরাহ করা যাবে বলেও জানান তিনি।

            তাজুল ইসলাম বলেন, মেঘনা নদীসহ বিভিন্ন নদী থেকে পানি ওয়াটার ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে দূষণ মুক্ত করে নেয়া হচ্ছে। ঢাকা শহরের নাগরিকের বাসায় ওয়াটার রির্জাভে পানি পৌঁছাতে ওয়াসা কর্তৃপক্ষ সক্ষম হচ্ছে।

            পদ্মা-জশলদিয়া ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট থেকে ঢাকা শহরে পানি আসার কথা উল্লেখ করে মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন, ঐ প্ল্যান্টে উৎপাদিত সম্পূর্ণ পানি শহরে নিয়ে এসে মানুষের বাসায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে কাজ চলছে। বিদেশি একটি সংস্থা এই সরবরাহ লাইনে অর্থ সহায়তা দেয়ার প্রস্তাব করেছে। এটি না হলে সরকার নিজস্ব অর্থায়নেই পানির এই সংযোগ লাইন স্থাপন করবে।

            পদ্মা-জশলদিয়া প্রকল্পের ন্যায় গন্ধবপুর প্রকল্পেও সংযোগ লাইন ছাড়াই প্রকল্পের কাজ এগোচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, এই প্রকল্পে একই ঘটনা ঘটবে না। কারণ এখানে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট এবং সংযোগ লাইন তৈরির কাজ সমানতালে এগিয়ে চলছে।

            তিনি জানান, মানুষের নিকট পানি পৌঁছে দিতে স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীনে থাকা ঢাকাসহ সকল ওয়াসা, সিটি কর্পোরেশন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, পৌরসভাসহ অন্যান্য সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে। যার ফলে দেশে বর্তমানে ৯৮ শতাংশের বেশি মানুষ এখন সুপেয় পানি পাচ্ছে।

            মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে ১শ’টি অর্থনৈতিক জোন তৈরি হচ্ছে। এগুলোতে শিল্পসহ বিভিন্ন ধরনের কলকারখানা গড়ে উঠবে। যেখানে ব্যাপক পানির প্রয়োজন হবে। এই চাহিদা পূরণ করতেও মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

            এসময় তিনি ইনটেক পাম্পিং স্টেশনের বিভিন্ন কার্যক্রম ঘুরে দেখেন। পরে, বিআইডব্লিউটিএ’র একটি জাহাজযোগে মেঘনা নদীর দখল ও দূষণ রোধে গৃহীত কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।

            পরিদর্শনকালে ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, জার্মানি, ফ্রান্স ও ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত, এডিবি ও কেএফডব্লিউ’র কান্ট্রি ডিরেক্টর এবং নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

#

হায়দার/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৪০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                        নম্বর : ৪৬৭০

 

জেনেভায় গ্লোবাল ফান্ড ম্যানেজমেন্ট টিমের সাথে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বৈঠক

 

জেনেভা (সুইজারল্যান্ড), ৩০ সেপ্টেম্বর :

 

          গতকাল ২৯ সেপ্টেম্বর সুইজারল্যান্ডে গ্লোবাল ফান্ড ম্যানেজমেন্ট টিমের সাথে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেকের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে গ্লোবাল ফান্ড থেকে যে সহযোগিতা বাংলাদেশ সরকার পেয়ে থাকে সে বিষয়গুলোর ওপর আলোচনা হয়। বৈঠকে কোভিড মোকাবেলায় করণীয় বিষয়াদির পাশাপাশি গ্লোবাল ফান্ডের অর্থ কোভিড-১৯ চিকিৎসাসহ স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টি উন্নয়নে কিভাবে ব্যবহার করা যাবে সে বিষয়গুলো নিয়েও আলোচনা করা হয়।

 

          এ সময় গ্লোবাল ফান্ড ম্যানেজমেন্ট টিমের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান Mark Eldon-Edington, Head of High Impact Asia Department Dr. Urban Weber-সহ অন্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশের পক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সাথে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগম, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর একান্ত সচিব কামরুল হাসান, উপসচিব মোঃ সাদেকুল ইসলাম ও ঢাকার তেজগাঁও হেলথ কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ মফিজুল ইসলাম বুলবুল উপস্থিত ছিলেন।

 

          উল্লেখ্য, গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ব্যুরো মিটিংয়ে অংশ নিতে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় যান স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।

 

#

 

মাইদুল/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/১৯.৩০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                      নম্বর : ৪৬৬৯

বিদেশি চ্যানেলে ক্লিনফিড বাস্তবায়নে ১ অক্টোবর থেকে মোবাইল কোর্ট

ঢাকা, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :  

            আইন অনুযায়ী দেশে বিদেশি চ্যানেলগুলোর বিজ্ঞাপনমুক্ত (ক্লিনফিড) সম্প্রচার বাস্তবায়নে ১ অক্টোবর থেকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

            আজ সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের এ সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের পূর্বঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আইন প্রয়োগে এ ব্যবস্থার কথা জানান মন্ত্রী।

            ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, ‘ ১ অক্টোবর থেকে সারাদেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে। কোনো বিদেশি চ্যানেলে ক্লিনফিড দেখানো না হলে এবং মন্ত্রণালয়, টেলিভিশন ওনার্স এসোসিয়েশন ও ক্যাবল অপারেটর ত্রিপক্ষীয় বৈঠকের মাধ্যমে ক্যাবল লাইনে সম্প্রচারের জন্য টেলিভিশনগুলোর নির্ধারিত ক্রমের ব্যত্যয় হলে বা কোনো ক্যাবল অপারেটর আইন ভঙ্গ করে নিজেরা বিজ্ঞাপন, অনুষ্ঠান প্রদর্শন করলে বা আইনের অন্য কোনো ব্যত্যয় ঘটালে সংশ্লিষ্ট চ্যানেল ডাউনলিংকের অনুমতিপ্রাপ্ত ডিস্ট্রিবিউটরদের এবং ক্যাবল অপারেটরদের ওপরই আইন ভঙ্গের দায় বর্তাবে এবং আগামীকাল থেকে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

            মন্ত্রী জানান, ‘যারা বিদেশি চ্যানেল ডাউনলিংকের অনুমতি পেয়েছে ক্লিনফিডের ব্যাপারে তাদের সাথে গত আগস্ট মাসে বৈঠক করে আমরা জানিয়ে দিয়েছিলাম যে ১ অক্টোবর থেকে সরকার আইন প্রয়োগ করবে। দিনের পর দিন তারা সময় নেবে, কালক্ষেপণ করবে, এটি হয় না। ভারত, শ্রীলংকা, পাকিস্তান, নেপালসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশে ক্লিনফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেল কেউ দেখাতে পারে না। আর আমাদের দেশে বিদেশি চ্যানেলগুলো ক্লিনফিড পাঠাচ্ছে না, এই অজুহাতে এখানে ক্লিনফিড চালাবে না এটা হয় না।’ পয়লা অক্টোবর থেকে বাংলাদেশে ক্লিনফিড সম্প্রচার কার্যকর করার বিষয়টি সম্প্রতি দিল্লি সফরকালে ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীকেও জানিয়েছেন উল্লেখ করেন ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

            সম্প্রতি সরকারি এবং নিবন্ধিত অনেকগুলো অনলাইন নিউজপোর্টাল বিটিআরসি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিয়েছিল, এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে মন্ত্রী বলেন, ‘একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল এবং সেটি খুব দ্রুততার সাথে নিরসন হয়েছে। অনলাইন পোর্টাল বন্ধ করা এবং অনুমোদন দেয়া দু’টিই চলমান প্রক্রিয়া। যে অনলাইন পোর্টালগুলো গর্হিত কাজ করে কিংবা সৎ উদ্দেশ্যে পরিচালিত নয় কিংবা গুজব রটায়, সেগুলো বন্ধ করা চলমান প্রক্রিয়া। এর অংশ হিসেবে আমরা  খুব সহসা বিটিআরসিকে তালিকা দেবো। সেই সাথে আদালতকেও আমরা জানাবো যে এটা একটা চলমান প্রক্রিয়া এবং সবগুলো একসাথে বন্ধ করে দেয়া কতটা যুক্তিযুক্ত হবে, তা ভাবার প্রয়োজন রয়েছে।’

            তত্ত্বাধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের জন্য বিএনপি’র দাবির বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান বলেন, ‘বাংলাদেশে আর কখনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না। সংবিধান অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কোনো সুযোগ নেই। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে, নির্বাচনকালীন সময়ে বর্তমান সরকারই নির্বাচনকালীন সরকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে।’

            মন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। যখন নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করা হয় তখন প্রশাসনের ওপর সরকারের আসলে কোনো কার্যকারিতা থাকে না। বিএনপি এ ধরনের কথা গত সাড়ে ১২ বছর ধরে বলে আসছে, গত নির্বাচনের আগেও বলেছিল, পরে তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিল। নির্বাচনের ব্যাপারে তাদের এটা নতুন কিছু নয়। তবে একটি রাজনৈতিক দলের জন্য নির্বাচন হচ্ছে দলের মধ্যে প্রাণসঞ্চালনের একটি বড় সুযোগ। নিজের শিরা-উপশিরাকে শুকিয়ে বিএনপি ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে চলে যাবে কি না, সে সিদ্ধান্ত বিএনপিই নেবে।’

            তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এর আগে কবি ও সাংবাদিক সৌমিত্র দেব সম্পাদিত ‘উন্নয়নে উজ্জীবনে শেখ হাসিনা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন। এসময় মন্ত্রী গ্রন্থটি সংকলন ও সম্পাদনার জন্য সৌমিত্র দেবকে অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বিশ্বসম্প্রদায়ের কাছে এক বিস্ময়কর নেতৃত্বের উদাহরণ। সেকারণেই বিশ্ব নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে উন্নয়নশীল দেশগুলোর সামনে ‘কেইস স্টাডি’ হিসেবে উপস্থাপন করছেন এবং জাতিসংঘসহ বিশ্বসম্প্রদায় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক পুরস্কারে ভূষিত করেছেন। শ্রেষ্ঠপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত ৯৬ পৃষ্ঠার ২১টি প্রবন্ধের এই সংকলনটি শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যেভাবে উজ্জীবিত করেছেন, সেবিষয়ে মানুষ সহজে জানতে পারবে, বলেন মন্ত্রী।

#

আকরাম/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/সেলিম/২০২১/২০:০৩ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                           নম্বর : ৪৬৬৮

শ্রম অধিদপ্তরে ট্রেড ইউনিয়ন সম্পর্কিত ডাটাবেইজ উদ্বোধন করেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

            শ্রম অধিদপ্তরের সেবাদি সহজীকরণ, সেবা প্রদানে স্বচ্ছতা আনয়ন এবং ট্রেড ইউনিয়ন সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য সাধারণ মানুষের কাছে সহজে অ্যাক্সেসযোগ্য করতে অনলাইনভিত্তিক ডাটাবেইজ উদ্বোধন করা হয়েছে।

            আজ রাজধানীর বিজয় সরণিতে শ্রম ভবনের সম্মেলন কক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান প্রধান অতিথি হিসেবে এ ডাটাবেইজের উদ্বোধন করেন।

            প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ট্রেড ইউনিয়ন সম্পর্কিত পাবলিকলি এক্সেসেবল ডাটাবেইজ উদ্বোধনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সফলতার আরো একটি পালক যুক্ত হলো। প্রতিমন্ত্রী এই ডাটাবেইজকে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিনের উপহার হিসেবে উল্লেখ করেন।

            শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রম অধিদপ্তরের এটি একটি উদ্ভাবনী উদ্যোগ। এই ডাটাবেইজে দেশব্যাপী শ্রম অধিদপ্তর কর্তৃক  নিবন্ধিত সকল ট্রেড ইউনিয়ন, প্রত্যাখ্যাত ও নথিজাতকৃত ট্রেড ইউনিয়নের তথ্যসমূহ, ট্রেড ইউনিয়ন সংক্রান্ত মামলার তথ্য, অসৎ শ্রম আচরণ ও সালিশী সংক্রান্ত তথ্য, ফেডারেশন, সিবিএ নির্বাচন ও অংশগ্রহণকারী কমিটির হালনাগাদ তথ্যাদি সংরক্ষিত থাকবে।

            উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. এহছানে এলাহী বলেন, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশ শ্রম বিধিমালা, ২০১৫ এর সংশোধনী শেষ করা হবে।

            অনুষ্ঠানে জানানো হয় একজন ব্যবহারকারী শ্রম অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট ব্যবহার করে ডাটাবেইজ থেকে হালনাগাদকৃত সকল ধরনের তথ্য দেখতে ও রিপোর্ট প্রিন্ট করতে পারবেন। পাবলিকলি এক্সেসিবল ডাটাবেইজটি সর্বসাধারণের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত থাকবে এবং যে কেউ এখানকার তথ্য বিভিন্ন প্রয়োজনে  যেমন  ব্যক্তিগত ও প্রাতিষ্ঠানিক কাজে,  গবেষণামূলক কাজে, দেশের শ্রম পরিবেশ সম্পর্কে ধারণা নিতে ইত্যাদি  কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।  উল্লেখ্য, সফটওয়্যারটি বাংলা এবং ইংরেজি দুইটি সংস্করণেই করা হয়েছে।

            অধিদপ্তরের বার্ষিক কার্যাবলীর প্রতিবেদন লেবার জার্নাল (ভলিউম-৩৬) এর মোড়ক উন্মোচন, প্রণীত শ্রম আইন ও বিধির সংশোধনীর খসড়া প্রস্তাব হস্তান্তর এবং শ্রম অধিদপ্তরের ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ড চালু সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

             দেশের শ্রম ক্ষেত্রে সরকারের গৃহীত ও বাস্তবায়িত এ সকল উন্নয়নমূলক কার্যক্রম জনসাধারণকে অবহিত করতে শ্রম ভবনের পূর্বপাশে স্থাপন করা হয়েছে সুবিশাল ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ড। এর মাধ্যমে দিন রাত বঙ্গবন্ধুর শ্রম দর্শন, শ্রমিকদের সমাবেশে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, শ্রমিক কল্যাণে সরকারের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম, শ্রম অধিদপ্তরসহ শ্রম মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন সংস্থার প্রদেয় সেবাগুলোর তথ্যাদি সম্পর্কে প্রতিদিন জনসাধারণ অবগত হবেন।

            অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য বেগম শামসুন্নাহার, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক মো. নাসির উদ্দীন, শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক গৌতম কুমার, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি নুর কুতুব আলম মান্নান, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি শহিদুল্লাহ চৌধুরী, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি আলাউদ্দিন মিয়াসহ আইএলও এর প্রতিনিধি, বিজিএমইএ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন -স্কপ নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা করেন।

#

আকতারুল/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/জয়নুল/২০২১/২০০০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                           নম্বর : ৪৬৬৭

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

                                                                                                         -- মহিলা ও শিশু বিষয়ক সচিব

ঢাকা, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

            ‘কন্যা শিশুর উন্নয়ন ও বিকাশের জন্য পরিবার থেকেই সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। কন্যা শিশুরা পরিবারে মা-বাবার সমর্থন পেলে তাদের শিক্ষা ও বিকাশের ক্ষেত্রে কোনো বাধা থাকতে পারে না’ বলে জানিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম।

            সচিব বলেন, পরিবার শিশুর জন্য সবচেয়ে সুরক্ষিত ও অধিকার নিশ্চিত হওয়ার জায়গা। অথচ কন্যা শিশুর প্রতি বৈষম্য শুরু হয় পরিবার থেকে। পুরুষতান্ত্রিক মনমানসিকতা ত্যাগ করার মাধ্যমে কন্যা শিশুর প্রতি সকল বৈষম্য দূর করা সম্ভব।

            তিনি আরো বলেন, প্রতিটি কন্যা শিশুরই রয়েছে অমিত সম্ভাবনা। তারা সমান সুযোগ পেলে অধিকতর দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে পারে। আজ বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকার নারী। এছাড়া রাষ্ট্রের উচ্চ পদে নারীরা দায়িত্ব পালন করছেন।

            আজ ঢাকায় ইস্কাটনে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর আয়োজিত জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সচিব এসব কথা বলেন।

            আলোচনা পর্ব শেষে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উদযাপন উপলক্ষে রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিশুদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

#

আলমগীর/পাশা/সাহেলা/রেজুয়ান/এনায়েত/মোশারফ/জয়নুল/২০২১/২০১৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                                         নম্বর : ৪৬৬৬

আগামী ১৫ বছরে বাংলাদেশের এভিয়েশন সেক্টরের প্রবৃদ্ধি হবে তিনগুণ

                                                                                          -- বিমান প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ আশ্বিন (৩০ সেপ্টেম্বর) :

             বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে দেশের এভিয়েশন শিল্প দ্রুত প্রবৃদ্ধি অর্জন করছে। আগামী ১৫ বছরে বাংলাদেশের এভিয়েশন সেক্টরের প্রবৃদ্ধি হবে প্রায় তিনগুণ। ২০১৭ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের এভিয়েশন মার্কেট প্রায় দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং বিগত ১০ বছরে যাত্রী এবং কার্গো পরিবহন ১০ শতাংশ হারে বেড়েছে। এভিয়েশন সেক্টরের বিপুল প্রবৃদ্ধির এই সম্ভাবনাকে কাজে লাগানো সম্ভব হলে বিপুল কর্মসংস্থানের সুযোগের পাশাপাশি দেশের আর্থ-সামজিক অবস্থার উন্নয়ন হবে।

            মন্ত্রী আজ ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের যশোর-চট্টগ্রাম এবং যশোর-কক্সবাজার রুটে সরাসরি ফ্লাইট উদ্বোধন উপলক্ষে যশোর বিমানবন্দরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন। এরপর প্রতিমন্ত্রী সৈয়দপুর বিমানবন্দরে পৃথক আরেকটি অনুষ্ঠানে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের সৈয়দপুর- চট্টগ্রাম রুটে সরাসরি ফ্লাইট উদ্বোধন করেন।

            তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের এভিয়েশন খাতকে গুরুত্ব দিয়ে এর উন্নয়নে কাজ করছে বর্তমান সরকার। প্রধানমন্ত্রীর সুদৃঢ় নেতৃত্ব ও নির্দেশনায় দেশের এভিয়েশন খাত ধারাবাহিকভাবে বিকশিত হয়ে উন্নীত হচ্ছে আন্তর্জাতিকমানে। উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির মধ্য দিয়ে বাড়ছে দেশের আকাশ পথে সংযোগের পরিধি। সারাদেশে বিমান পরিবহন অবকাঠামোর যুগোপযোগী উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ, যাত্রীসেবা বৃদ্ধি, কারিগরি ও জন দক্ষতা উন্নয়ন এবং নিরাপদ ও সুষ্ঠু বিমান চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে। দেশের সকল অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চলমান রয়েছে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ। এই ধারাবাহিকতায় ভবিষ্যতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাক্রমে যশোর বিমানবন্দরকেও আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করা হবে। দেশের কৃষি পণ্য আন্তর্জাতিক বাজারে রপ্তানি করতে কার্গো উড়োজাহাজ কেনার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। এর ফলে যশোরের ফুল ও কৃষি পণ্য রপ্তানি হবে বিভিন্ন দেশে।

            প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে সরকারের আন্তরিকতায় দেশে ব্যবসা ও বিনিয়োগের সবচেয়ে ভালো পরিবেশ বিরাজ করায় বেসরকারি উদ্যোক্তাগণ বিনিয়োগে ভরসা পাচ্ছেন, স্বস্তি বোধ করছেন। অন্যান্য ব্যবসার পাশাপাশি এভিয়েশন খাতেও বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত্ব এয়ারলাইন্সের পাশাপাশি আমাদের দুটি বেসরকারি এয়ারলাইন্সও ব্যবসায় ভালো করছে। তাদের সেবার মাধ্যমে অর্জন করেছে গ্রাহকদের আস্থা। দিনে দিনে তারা আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ রুটে তাদের গন্তব্যের সংখ্যা বৃদ্ধি করছে। বাড়ছে তাদের ব্যবসার পরিধি।

            ইউ এস বাংলা এয়া

2021-09-30-15-45-da3a11766a3bb0ffed5901e03b53f1f8.doc 2021-09-30-15-45-da3a11766a3bb0ffed5901e03b53f1f8.doc

Share with :

Facebook Facebook