তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৯ অক্টোবর ২০১৭

তথ্যবিবরণী ৩১ আগস্ট ২০১৭

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২২৮৪

আব্দুল জব্বারের প্রতি প্রথম শ্রদ্ধা জাতীয় বেতার ভবনে 

ঢাকা, ১৬ ভাদ্র (৩১ আগস্ট) :   
জাতীয় বেতার ভবনেই স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের অজেয় কণ্ঠশিল্পী আব্দুল জব্বারের প্রথম জানাজা এবং তার প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো হলো। 
মন্ত্রী আজ রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বেতারের সদর দপ্তর প্রাঙ্গণে এ জানাজায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী, তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল জব্বারের স্ত্রী, দুইপুত্র ও কন্যাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। জানাজা শেষে আব্দুল জব্বারের মৃতদেহে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো হয়। 
গতকাল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আব্দুল জব্বার।
#
আকরাম/সেলিম/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৮২০ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২২৮৩


টঘওউঙ’র মহাপরিচালক লি ইয়ং এর বাংলাদেশ সফর

ঢাকা, ১৬ ভাদ্র (৩১ আগস্ট) :   
জাতিসংঘের শিল্প উন্নয়ন সংস্থা (টঘওউঙ) এর মহাপরিচালক লি ইয়ং ৬ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক সফর করবেন। তিনি শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর আমন্ত্রণে বাংলাদেশ সফরে আসছেন। টঘওউঙ’র মহাপরিচালক বাংলাদেশে একটি চার সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন এবং এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে তাঁর মিশন শেষে ব্যাংকক হয়ে ঢাকায় এসে পৌঁছবেন।
সফরের সময় মহাপরিচালক লি ইয়ং প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করবেন এবং শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হবেন। এ ছাড়াও তিনি বাণিজ্যমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করবেন। তিনি বাংলাদেশে এসডিজি-৯ অর্জনের লক্ষ্যে সমন্বিত ও স্থায়ী শিল্প উন্নয়ন (আইএসআইডি) বিষয়ক একটি সেমিনারে যোগ দেবেন।
তিনি ঢাকা রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল এবং সাভার চামড়া শিল্পনগরী পরিদর্শন করবেন। শিল্প বিপ্লব আনয়নে বাংলাদেশের শিল্পপার্ক (ইপিজেড ও শিল্পকেন্দ্রিক স্থাপনা) উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে। শিল্প উনয়ন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আরো ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য দেশ জুড়ে কাজ করছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ণিল জীবন সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জন ও সম্যক ধারণা লাভের জন্য  লি ইয়ং ধানমন্ডি ৩২ নং বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরও পরিদর্শন করবেন।  
#
শামসুল/সেলিম/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৮১০ঘণ্টা


তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২২৮২

বিজিবি পরিচালিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী
সীমিত সম্পদ নিয়ে শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করতে হবে

ঢাকা, ১৬ ভাদ্র (৩১ আগস্ট) :   
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, আমাদের অর্থ ও সম্পদ সীমিত। এ সীমিত সম্পদ নিয়েই শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করে যেতে হবে। দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে হবে। নতুন প্রজন্মকে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার অগ্রবাহিনী হিসেবে প্রস্তুত করতে হবে। এজন্য তাদেরকে এমনভাবে গড়তে হবে যাতে তারা প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিশ্বে জায়গা করে নিতে পারে। 
শিক্ষামন্ত্রী আজ রাজধানীর পিলখানায় শহীদ ক্যাপ্টেন আশরাফ হলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ৪ দিনব্যাপী সম্মেলন-২০১৭ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। 
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গতানুগতিক শিক্ষার বিকল্প হিসেবে আধুনিক বিশ্বমানের শিক্ষা পদ্ধতি চালু করতে হবে। শিক্ষানীতি অনুযায়ী সরকার নিরন্তর এ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত সকলের জন্য মৌলিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। পরবর্তী পর্যায়ে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার ওপর আমরা অগ্রাধিকার দিচ্ছি। উচ্চ শিক্ষার জন্য দেশে ১২টি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয়েছে। তিনি বলেন, গণিত ও বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়নেও কাজ করছে সরকার। বিজ্ঞান শিক্ষাকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। গত চার বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে বিজ্ঞানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ছে।
সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী বিজিবি’র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের উদ্দেশে তিনি বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নে শিক্ষকরাই প্রধান শক্তি। ভাল ফলাফল অর্জনের পাশাপাশি ভাল মানুষ তৈরি করা আমাদের অন্যতম লক্ষ্য। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে শিক্ষকদের নীতি-নৈতিকতা, মূল্যবোধ, আন্তরিকতা ও নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কাজ করতে হবে। 
শিক্ষামন্ত্রী বিজিবি আয়োজিত শিক্ষা সম্মেলনের প্রশংসা করে বলেন, বিজিবি পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার ফলে শিক্ষার সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের জন্য মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা হচ্ছে। এ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের সুপারিশমালা দেশের অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও কাজে লাগানো সম্ভব হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। 
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী, বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন, বিজিবির গুইমারা সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং দুইজন শিক্ষক প্রতিনিধি বক্তব্য রাখেন। পরে শিক্ষামন্ত্রী বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজের নবনির্মিত টিচার্স লাউঞ্জ পরিদর্শন করেন ও রসায়ন বিজ্ঞানাগার উদ্বোধন করেন।
#
আফরাজুর/সেলিম/সঞ্জীব/জয়নুল/২০১৭/১৭৪৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ২২৮১   

বর্তমান সরকারের আমলেই শ্রীলংকার সাথে এফটিএ 
ঢাকা, ১৬ ভাদ্র (৩১ আগস্ট) :  
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, এ সরকারের আমলেই শ্রীলংকার সাথে এফটিএ স্বাক্ষর করা সম্ভব হবে। এ বিষয়ে জয়েন্ট স্টাডির টার্মস অভ্ রেফারেন্স ঠিক করা হয়েছে। সে মোতাবেক প্রস্তুতি চলছে। বৈদেশিক বাণিজ্যে বাংলাদেশের সক্ষমতা আগের চেয়ে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশ এখন বিশ^মানের পণ্য উৎপাদন করতে সক্ষম। 
শ্রীলংকায় সফররত বাণিজ্যমন্ত্রী আজ কল¤ো^াতে শ্রীলংকার ডেভেলপমেন্ট স্ট্রাটেজিস এন্ড ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড মিনিস্টার গধষরশ ঝধসধৎধরিপশৎধসধ এর সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে একথা বলেন।
তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ রপ্তানি বৃদ্ধি করতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ জন্য রপ্তানি পণ্য ও বাজার সম্প্রসারণের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ। দেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে আগামী ২০২১ সালে বাংলাদেশের রপ্তানি ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত বাংলাদেশে ১০০টি স্পেশাল ইকনমিক জোনে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ হচ্ছে। শ্রীলংকার বিনিয়োগকারীগণ সেখানে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন। বাংলাদেশ বিনিয়োগকারীদের বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে।
মন্ত্রী বলেন, বিশ^বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। বাংলাদেশ মনে করে, শ্রীলংকায় বাংলাদেশের তৈরি ঔষধ, কাগজ, সিমেন্ট, টিন, এমএস রড ও কৃষি পণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। শ্রীলংকার আরোপিত টেরিফ ও প্যারা-টেরিফের হার অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি হবার কারণে বাংলাদেশ থেকে এ সকল পণ্য রপ্তানি করা যাচ্ছে না। মন্ত্রী বলেন, বিপুল সম্ভাবনা থাকার পরও দু’দেশের বাণিজ্য খুবই কম। এ মুহুর্তে উভয় দেশের বাণিজ্য ৮০ থেকে ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে। এ বাণিজ্য অনেক বেশি হতে পারতো। বাংলাদেশ আশা করছে, এফটিএ স্বাক্ষর হলে উভয় দেশের বাণিজ্য উল্লেখযোগ্য হারে বাড়বে। 
উল্লেখ্য, গধষরশ ঝধসধৎধরিপশৎধসধ শ্রীলংকার ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টির প্রেসিডেন্ট। বাণিজ্যমন্ত্রী তাকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালে তিনি আগামী শীতে বাংলাদেশ সফরের আগ্রহ প্রকাশ করেন। 
এ সময় শ্রীলংকায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রিয়াজ হামিদুল্লাহ এবং শ্রীলংকার ডেভলপমেন্ট স্ট্রাটেজিস এন্ড ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড মন্ত্রণালয়ের সচিব উপস্থিত ছিলেন।
#
লতিফ/অনসূয়া/গিয়াস/রফিকুল/আসমা/২০১৭/১৫৩০ ঘণ্টা  
 
আজ বিকাল পাঁচটার আগে প্রচার বা প্রকাশ করা যাবে না
তথ্যবিবরণী                                                                                       নম্বর : ২২৮০
পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাণী
ঢাকা, ১৬ ভাদ্র (৩১ আগস্ট) :   
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে আমি প্রিয় দেশবাসী ও বিশ্বের সকল মুসলিম জনগোষ্ঠীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ঈদ মোবারক।
মহান আল্লাহর উদ্দেশ্যে প্রিয়বস্তুকে উৎসর্গের মাধ্যমে তাঁর সন্তুষ্টি লাভে যে অনন্য দৃষ্টান্ত হযরত ইব্রাহীম (আ.) স্থাপন করে গেছেন, তা বিশ্ববাসীর কাছে চিরকাল অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় হয়ে থাকবে। প্রতিবছর এ উৎসবের মধ্য দিয়ে স্বচ্ছল মুসলমানগণ কোরবানিকৃত পশুর গোস্ত আত্মীয়স্বজন ও গরিবদুঃখীর মধ্যে বিলিয়ে দিয়ে মানুষে মানুষে সহমর্মিতা ও সাম্য’র বাণী প্রতিষ্ঠিত করেন।
ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা, ত্যাগ ও ভ্রাতৃত্ববোধের শিক্ষা দেয়। আসুন, আমরা সকলে পবিত্র ঈদুল আযহার মর্মবাণী অন্তরে ধারণ করে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জনকল্যাণমুখী কাজে অংশ নিয়ে বৈষম্যহীন সুখী, সমৃদ্ধ ও শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশ গড়ে তুলি। 
প্রতিবারের মতো এবারও ঈদ ধনী-গরিব নির্বিশেষে সকলের জীবনে আনন্দের বার্তা বয়ে আনুক, এই প্রত্যাশা করছি।
পবিত্র এই দিনে আমি মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ ও মুসলিম উম্মাহর উত্তরোত্তর উন্নতি, সমৃদ্ধি ও অব্যাহত শান্তি কামনা করছি। রাব্বুল আলামিন আমাদের সহায় হোন - আমিন। 
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু
বাংলাদেশে চিরজীবী হোক।”
#
ইমরুল/অনসূয়া/রফিকুল/সুবর্ণা/আসমা/২০১৭/১০০০ ঘণ্টা
 
আজ বিকাল পাঁচটার আগে প্রচার বা প্রকাশ করা যাবে না
 
আজ বিকাল পাঁচটার আগে প্রচার বা প্রকাশ করা যাবে না
তথ্যবিবরণী                                                                                        নম্বর : ২২৭৯
পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির বাণী
ঢাকা, ১৬ ভাদ্র (৩১ আগস্ট) :   
রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে আমি দেশবাসীসহ বিশ্বের সকল মুসলিম ভাইবোনদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ।
আল্লাহর প্রতি গভীর আনুগত্য ও সর্বোচ্চ ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আযহা। মহান আল্লাহর নির্দেশে স্বীয় পুত্র হযরত ইসমাইল (আ.) কে কোরবানি করতে উদ্যত হয়ে হযরত ইব্রাহিম (আ.) আল্লাহর প্রতি অগাধ ভালোবাসা, অবিচল আনুগত্য ও অকুণ্ঠ আত্মত্যাগের যে সুমহান দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তা অতুলনীয়। আল্লাহর প্রতি এই অকৃত্রিম ভালোবাসা ও ত্যাগের আদর্শ আমাদের ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে প্রতিফলিত হলেই প্রতিষ্ঠিত হবে শান্তি ও সৌহার্দ্য। আযহার অর্থ কোরবানি বা উৎসর্গ করা। কোরবানির মর্ম অনুবাধন করে সমাজে শান্তি ও কল্যাণের পথ রচনা করতে আমাদের সংযম ও ত্যাগের মানসিকতায় উজ্জীবিত হতে হবে। প্রসারিত করতে হবে আমাদের কর্ম ও চিন্তায়। 
বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্ত। এখানে সকল ধর্মের মানুষ স্বাধীনভাবে নিজ নিজ ধর্ম ও আচার অনুষ্ঠানাদি পালন করে আসছে। এটা আমাদের সম্প্রীতির এক অনুপম ঐতিহ্য। সকল ধর্মের মূলবাণী হচ্ছে মানবকল্যাণ। তাই ধর্মের অপব্যাখ্যা করে স্বার্থান্বেষী মহল যাতে সমাজে অশান্তি ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সে ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকতে হবে। কোরবানির শিক্ষা ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে প্রতিফলিত হোক- এ প্রত্যাশা করি।        
পবিত্র ঈদুল আযহা সবার জন্য বয়ে আনুক কল্যাণ, সবার মধ্যে জেগে উঠুক উৎসর্গ ও ত্যাগের মহিমা- মহান আল্লাহর কাছে এই প্রার্থনা করি।
খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”
#
আজাদ/অনসূয়া/রফিকুল/সুবর্ণা/আসমা/২০১৭/১০০০ ঘণ্টা
আজ বিকাল পাঁচটার আগে প্রচার বা প্রকাশ করা যাবে না 
News 31 Aug.docx News 31 Aug.docx

Share with :
Facebook Facebook