তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ অক্টোবর ২০১৮

তথ্যবিবরণী 20/10/2018

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর :  ২৮৯৩
 
পিফোরজি সম্মেলন বাংলাদেশের টেকসই ও সবুজ উন্নয়নে নতুন দিগন্তের সূচনা করেছে
                                                                                 -- পররাষ্ট্র মন্ত্রী 
 
কোপেনহেগেন (ডেনমার্ক), ২০ অক্টোবর :
 
বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবের বিবেচনায় অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ একটি দেশ হওয়ায় সবুজ-উন্নয়ন বিষয়ক নতুন বৈশ্বিক জোট পিফোরজি (পার্টনারিং ফর গ্রিন গ্রোথ এন্ড দি গ্লোবাল গোলস্- ২০৩০)-এর মূল মন্ত্রের সাথে বাংলাদেশের টেকসই উন্নয়ন ওতপ্রোতভাবে জড়িত-বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ১ম পিফোরজি সম্মেলনের উদ্ভোধনী দিনে একটি উচ্চ পর্যায়ের সংলাপে এ মন্তব্য করেন। 
 
উল্লেখ্য, ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী লার্স লোক্কে রাসমুসেন, ১৯-২০ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত দু’দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক পিফোরজি সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। ভিয়েতনাম, দক্ষিণ কোরিয়া, ইথিওপিয়া, নেদারল্যান্ডস্-এর সরকার/রাষ্ট্রপ্রধান, চীন, জাপানসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী পরিষদের সদস্য, আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান, বহুজাতিক সংস্থার প্রধান নির্বাহী, গবেষণাবিদ, ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের অংশগ্রহণে সম্মেলনটি ইতিমধ্যেই টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ও প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে উল্লেখিত লক্ষ্যসমূহ পূরণে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করা হচ্ছে। 
 
সম্মেলনে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর নেতৃত্বে ১৩-সদস্য বিশিষ্ট একটি সরকারি বেসরকারি প্রতিনিধিদল অংশ নিচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রী আরো উল্লেখ করেন, পিফোরজি নতুন নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনে এবং অংশীদারি দেশেগুলোর মধ্যে জ্ঞান ও প্রযুক্তি হস্তান্তরে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। সম্মেলনের সাইডলাইনে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ডেনিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রীর মধ্যে একটি দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো প্রাধান্য পায়। পরে বাংলাদেশের ডেইরি সেক্টরের আধুনিকায়নে সরকারি বেসরকারি পর্যায়ে ডেনিশ প্রযুক্তি হস্তান্তরের বিষয়ে দু’দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এছাড়া বাংলাদেশের মিল্ক ভিটা এবং স্বনামধন্য ডেনিশ ডেইরি কোম্পানি আরলা ফুড এর সাথে টেকসই ডেইরি খাত উন্নয়নে একটি ব্যবসায়িক সমঝোতা স্মারকও স্বাক্ষরিত হয়।  
 
স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এস এম গোলাম ফারুক, ডেনমার্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আবদুল মুহিত, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক, খোরশেদ আলম খাস্তগিরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তাগণ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 
#
 
শাকিল/নাইচ/মোশারফ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২২৪০ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর :  ২৮৯২
 
উন্নয়ন ও সম্প্রীতির ধারা নস্যাৎকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে
-- সংস্কৃতি মন্ত্রী
 
ঢাকা, ৫ কার্তিক (২০ অক্টোবর) :
 
সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, বর্তমান সরকার উন্নয়ন, শান্তি, মানবিকতা ও সম্প্রীতিতে বিশ্বাসী। আজকের বাংলাদেশ নামক এ ভূখ-ে হাজার বছর ধরে বাঙালি জাতি ধর্ম-বর্ণ-গোত্র নির্বিশেষে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যরে সহিত বসবাস করে আসছে। কিন্তু সাম্প্রতিককালে কিছু মানুষ ধর্মের নামে উস্কানি ও বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে এবং নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করছে। উন্নয়ন ও সম্প্রীতির ধারা নস্যাৎকারী এসব ধর্মান্ধদের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
 
মন্ত্রী আজ রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা ভবনের এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে নাট্যসংগঠন স্বপ্নদলের দেশে বিদেশে দর্শকনন্দিত যুদ্ধবিরোধী গবেষণার প্রযোজনা ‘ত্রিংশ শতাব্দী’র শততম মঞ্চায়ন অনুষ্ঠান উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
 
মন্ত্রী বলেন, নাট্যসংগঠন স্বপ্নদলের যুদ্ধবিরোধী গবেষণার প্রযোজনা ‘ত্রিংশ শতাব্দী’র মূল উপজীব্য  হলো যুদ্ধ নয়, শান্তি চাই অর্থাৎ মানবিকতা। বর্তমান বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে এটি অত্যন্ত সময়োপযোগী। কারণ, মধ্যপ্রাচ্যসহ সারাবিশ্বে আজ মানবিকতার সংকট চলছে৷ এমনকি আমাদের প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারে মানবিকতার চরম সংকট বিরাজমান। অন্যদিকে বাংলাদেশ দশ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে এদেশে আশ্রয় দিয়ে সারাবিশ্বে মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
 
নাট্যজন রামেন্দু মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোয়াসু ইজুমি, নাট্যজন এস এম মহসীন, নাট্যজন গোলাম কুদ্দুছ, নাট্যজন অধ্যাপক আব্দুস সেলিম, নাট্যজন লাকী ইনাম ও নাট্যজন আকতারুজ্জামান।
 
বাদল সরকার এর মূল রচনা অবলম্বনে ‘ত্রিংশ শতাব্দী’র রূপান্তরসহ নির্দেশনা দিয়েছেন জাহিদ রিপন।
 
#
 
ফয়সল/নাইচ/মোশারফ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২১১০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর : ২৮৯১

ডিজিটালাইজেশনের ফলে আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহে অভাবনীয় রূপান্তর হয়েছে                                           
                   ---মোস্তাফা জব্বার

ঢাকা, ৫ কার্তিক (২০ অক্টোবর):

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটালাইজেশনের ফলে বাংলাদেশ একটি ক্যাশল্যাস সোসাইটির দিকে ধাবিত হচ্ছে। ডিজিটালাইজেশনের ফলে ২০০৯ সালের পর থেকে আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহে অভাবনীয় রূপান্তর হয়েছে। ডিজিটাল ব্যাংকিং দেশের সাধারণ মানুষের অতি পরিচিত ও জনপ্রিয় একটি সেবায় পরিণত হয়েছে। মন্ত্রী আজ ঢাকায় ডুমনিতে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ফোর টায়ার ডাটা সেন্টারের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, দেশে ডিজিটাল  সেবা সম্প্রসারণের ফলে ডিজিটাল অপরাধও বাড়ছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল নিরাপত্তা  অধিকতর নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, বাইরের প্রযুক্তি বা সফটওয়ার ব্যবহারের এক সময় প্রয়োজন ছিল কিন্তু প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য নিজেদের মানুষকে গড়ে তুলছি কিনা সে জায়গাটায় সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। ব্যাংকিং খাতের নিরাপত্তার সাথে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা সম্পৃক্ত। কাজেই নিরাপত্তা বিধানে নিজেদের সচেষ্ট হতে হবে। আইসিটি খাতে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ব্যাংক বা যে কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দক্ষ জনবল তৈরিতে সরকার সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানে প্রস্তুত। তিনি বলেন, ডিজিটাল রূপান্তর বেগবান করতে এবং সাইবার নিরাপত্তা বিধানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত আন্তরিক। তিনি বলেন, তাঁরই নেতৃত্বে ডিজিটাল দুনিয়ায় বাংলাদেশ নেতৃত্বকারি দেশ হিসেবে পরিচিত পেয়েছে। 

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এম সাহাবুদ্দিন আহমদসহ ব্যাংকের পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গ্রাহকদের নিরবচ্ছিন্ন নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ডাচ-বাংলা ব্যাংক প্রায় তিনশ’ কোটি টাকা ব্যয়ে ফোর টায়ার এ ডাটা সেন্টার তৈরি করে। পরে মন্ত্রী ডাটা সেন্টারের বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেন।
#

শেফায়েত/সেলিম/পারভেজ/আব্বাস/২০১৮/১৭৫০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ২৮৯০

নির্বাচন বানচালকারীদের প্রতিরোধ করতে হবে
        ---ভূমিমন্ত্রী

পাবনা, ৫ কার্তিক (২০ অক্টোবর):
ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেছেন, জাতীয় নির্বাচন বানচালকারীদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করতে হবে। তিনি বলেন, যারা অশান্তি সৃষ্টি করতে চায় তাদেরকে প্রতিহত করতে দেশের জনগণ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একযোগে কাজ করবে। 
আজ পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ইউএস এইড ও ইউ কে এইড এবং ডেমোক্রাসি ইন্টারন্যাশনালের সহযোগিতায় পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী আরো বলেন, নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী হবে। বিগত সময়ের মতো বাস জ¦ালিয়ে দেওয়া, পেট্রোল বোমা মেরে যানবাহন ও মানুষ পুড়িয়ে মারা, পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়া নেওয়া - এ ধরনের জঘন্য অপরাজনীতিকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। বাংলাদেশের মানুষ দৃঢ়তার সাথে এগুলো প্রতিহত করবে। 
এসময় অন্যান্যের মধ্যে পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউর রহিম লাল, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ বাবু, বেড়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেন, ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক আফসানা বেবী এবং নয়টি পৌরসভার মেয়র, নয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কাউন্সিলরগণ উপস্থিত ছিলেন।

#

রেজুয়ান/সেলিম/পারভেজ/আব্বাস/২০১৮/১৭৪১ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৮৮৮
 
শান্তিপূর্ণভাবে দুর্গাপূজা উদযাপনই প্রমাণ করে দেশে কোনো সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্ব নেই 
                                                               ---ত্রাণমন্ত্রী
 
মতলব উত্তর (চাঁদপুর), ৫ কার্তিক (২০ অক্টোবর):
 
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, এবছরের দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপনই প্রমাণ করে দেশে কোন সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্ব নেই, সকল ধর্মের মানুষ মিলে মিশে পূজা উদযাপন করছে। তিনি বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অসাম্প্রদায়িক সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছেন। সে পথেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আগামী নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে কেন্দ্রভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী গড়ে তুলতে নেতাকর্মীদের অনুরোধ করেন মন্ত্রী। নির্বাচনকে ঘিরে কোনো এলাকায় অচেনা মানুষের আনাগোনা লক্ষ্য করা গেলে সাথে সাথে উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অবহিত করার আহ্বান জানান তিনি। 
 
মন্ত্রী আজ মতলব উত্তর উপজেলার নিজ বাড়িতে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন। মতলব উত্তর ও দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সেক্রেটারিসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
 
মন্ত্রী বলেন, নির্বাচনকে ঘিরে বহুমুখী মেরুকরণ ও কুটচাল শুরু হয়েছে। জনবিচ্ছিন্ন তথাকথিত নেতারা বাগাড়ম্বর শুরু করেছে। এর সাথে যুক্ত হয়েছে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র। এসব মোকাবিলা করে আগামী নির্বাচনকে সাফল্যম-িত করতে হবে, গণতন্ত্রকে অব্যাহত রাখতে হবে। 
 
মায়া চৌধুরী এ সময় সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকা- তুলে ধরে বলেন, সরকার প্রত্যেকটি স্কুল কলেজের অবকাঠামোগত সম্প্রসারণ করেছে। এর ফলে ক্রমবর্ধমান শিক্ষার্থীদের ক্লাশরুমের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হয়েছে। তিনি বলেন, আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করতে প্রত্যেক স্কুল-কলেজে আইসিটি শিক্ষা চালু করা হয়েছে। প্রত্যেক উপজেলায় সরকারি কারিগরি স্কুল স্থাপনকে কর্মমুখী শিক্ষার প্রসারের উদ্যোগ বলে মন্ত্রী মন্তব্য করেন।
#
 
ওমর/সেলিম/পারভেজ/আব্বাস/২০১৮/১৭১৩ ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ২৮৮৯
 
বাংলাদেশের শিক্ষাখাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে 
                   ---এলজিআরডি মন্ত্রী
 
ফরিদপুর, ৫ কার্তিক (২০ অক্টোবর):
 
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের বিগত প্রায় ১০ বছরে বাংলাদেশের শিক্ষাখাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। এ খাতে উন্নয়নের ফলে দেশের সার্বিক উন্নয়ন বেগবান হয়েছে। 
 
মন্ত্রী আজ ফরিদপুরে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
 
সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোশার্রফ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, প্রাক্তন সচিব মোঃ হেমায়েত উদ্দিন তালুকদার, সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক মিঞা লুৎফার রহমান, ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক বেগম উম্মে সালমা তানজিয়া ও পুলিশ সুপার মোঃ জাকির হোসেন।
মন্ত্রী বলেন, রাজেন্দ্র কলেজের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানকে ঘিরে এ উৎসাহ-উদ্দীপনা ও প্রাণচাঞ্চল্য উপস্থিত সবাইকে আন্দোলিত করেছে বলে আমার বিশ্বাস। আজকের দিনটিতে আমার স্মৃতিপটে এ কলেজে আমার ছাত্র থাকাকালীন সোনালি সময়গুলো ভেসে উঠছে। 
মন্ত্রী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা অনেক সীমাবদ্ধতার মাঝে শিক্ষাজীবন পার করেছি। এখন হাত বাড়ালেই সকল সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘রূপকল্প-২০২১’ ও 
‘রূপকল্প-২০৪১’ বাস্তবায়ন এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দেশের জন্য মেধা, মনন ও সৃজনশীলতা নিয়োগ করতে মন্ত্রী শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান। 
এর আগে মন্ত্রী সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।
#
 
জাকির/সেলিম/পারভেজ/আব্বাস/২০১৮/১৭১৮ ঘণ্টা 
Todays handout (6).docx Todays handout (6).docx

Share with :

Facebook Facebook