তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১st নভেম্বর ২০১৮

তথ্যবিবরণী - 01/11/2018

তথ্যবিবরণী                                                           নম্বর : ৩০২৭
 
দক্ষিণ কোরিয়া আমাদের পরীক্ষিত বন্ধু 
                 -- সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
 
সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, দক্ষিণ কোরিয়া আমাদের দীর্ঘ দিনের পরীক্ষিত বন্ধু। দেশটি শুধু আমাদের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখেনি বরং সাংস্কৃতিক উন্নয়নেও অবদান রেখে যাচ্ছে। বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর ও সোনারগাঁওয়ের ঐতিহ্যবাহী সরদার বাড়ির সংস্কার ও  উন্নয়নে দেশটির ভূমিকা রয়েছে। আমাদের উন্নয়ন সহযোগী দেশ হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়া ভবিষ্যতে আরো সক্রিয়ভাবে তাদের সহযোগিতার ধারা অব্যাহত রাখবে বলে বিশ্বাস করি। 
 
মন্ত্রী আজ রাতে রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে  কঙওঈঅ (কড়ৎবধহ ওহঃবৎহধঃরড়হধষ ঈড়ড়ঢ়বৎধঃরড়হ অমবহপু) এবং কইঅঅ (কঙওঈঅ ইধহমষধফবংয অষঁসহর অংংড়পরধঃরড়হ) আয়োজিত “কইঅঅ অএগ ২০১৮” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
 
প্রধান অতিথি বলেন, দক্ষিণ কোরিয়া আমাদের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখার পাশাপাশি বুদ্ধিবৃত্তিক উন্নয়নেও ভূমিকা রাখছে। প্রতি বছর প্রকৌশলী ও ডাক্তারসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যক্তিরা তাঁদের উচ্চতর শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের প্রয়োজনে দক্ষিণ কোরিয়া সফর করছেন। মন্ত্রী এ সময় কইঅঅ এর প্রতিটি সদস্যকে কোরিয়ায় বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর বলে অভিহিত করেন।
 
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (এশিয়া উইং প্রধান) জাহিদুল হক।
 
আরো বক্তব্য রাখেন কইঅঅ (কঙওঈঅ ইধহমষধফবংয অষঁসহর অংংড়পরধঃরড়হ) এর প্রেসিডেন্ট এবং রূপালী ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন এবং কঙওঈঅ ইধহমষধফবংয ঙভভরপব এর কান্ট্রি ডিরক্টর জো হিউন গু (ঔড়ব ঐুঁহ-এঁব)।
 
#
 
ফয়সল/সেলিম/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২২০০ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                           নম্বর : ৩০২৬
 
বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে সিনিয়র সচিব এবং সচিব পদে নিয়োগ ও বদলি
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
 
সরকার বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও দপ্তরে সিনিয়র সচিব, সচিব ও ভারপ্রাপ্ত সচিব পদে নিয়োগ ও বদলি প্রদান করেছে। 
 
পল্লী উন্নয়ন  ও  সমবায়  বিভাগের  সিনিয়র সচিব এস এম গোলাম ফারুককে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব, বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক (সচিব)  মোঃ আসাদুল  ইসলামকে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব, জাতীয়  পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমির মহাপরিচালক (সচিব) মোঃ কামাল উদ্দিন তালুকদারকে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব এবং পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত  সচিব) আবুল মনসুর মোঃ ফয়জুল্লাহ এনডিসিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব করা হয়েছে।     
 
অপর এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, স্থানীয় সরকার বিভাগের  সিনিয়র সচিব ড.  জাফর আহমেদ খানকে  বাংলাদেশ  জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব, গৃহায়ন ও গণপূর্ত  মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত  সচিব মোহাম্মদ আবুল কাশেমকে জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমির মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত সচিব পদমর্যাদায়) এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা  ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সত্যব্রত সাহাকে বাংলাদেশ কর্মচারী  কল্যাণ বোর্ডের  মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত সচিব পদমর্যাদায়)  নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।  
 
#
 
মাসুম/সেলিম/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২০৫০ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০২৫
 
বিসিটিআই'র পাঁচ বছর
ধর্মতন্ত্র-সামরিকতন্ত্র-গণতন্ত্রের খিচুড়িবাদ থেকে জাতিকে মুক্ত রাখবে চলচ্চিত্র
                                                                   --- তথ্যমন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘একটু ধর্মতন্ত্র, খানিক সামরিকতন্ত্র আর কিছুটা গণতন্ত্র মিলে সুবিধাবাদীদের তৈরি খিচুড়িবাদের কবল থেকে জাতিকে মুক্ত রাখতে কাজ করবে চলচ্চিত্র।’
আজ রাজধানীর দারুস সালামে জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউটের শেখ রাসেল মিলনায়তনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট (বিসিটিআই) এর পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। তথ্যসচিব আবদুল মালেক সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন। বিসিটিআই'র প্রধান নির্বাহী মোঃ রফিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সৈয়দ হাসান ইমাম, ম. হামিদ, মানজারেহাসীন মুরাদ প্রমুখ।
মন্ত্রী বলেন, ‘চলচ্চিত্র ভাবতে শেখায়, জীবন বদলে দেয়, ইতিহাস-ঐতিহ্যকে সামনে নিয়ে আসে। আর সঠিক ইতিহাস চর্চা আর মুক্তিযুদ্ধের পথে চলতে শেখ হাসিনার সরকারের বিকল্প নেই।'
‘গণতন্ত্রের বিকল্প সামরিক শাসন নয়, মুক্তিযোদ্ধার বিকল্প রাজাকার নয় আর শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই’, স্মরণ করিয়ে দেন ইনু।
চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অনুষ্ঠান পাঠ্যধারার শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘বাঙালি হয়ে থাকুন, বাঙালিয়ানা চর্চা করুন, নিজের সংস্কৃতি ধরে রাখুন।’
সভা শেষে চলচ্চিত্র নির্মাণ কোর্স এবং টেলিভিশন অনুষ্ঠান ও প্রযোজনা কোর্সের শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন তথ্যমন্ত্রী।
#
 
আকরাম/মাহমুদ/পারভেজ/জয়নুল/২০১৮/২০৩০ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                           নম্বর : ৩০২৪
 
মোবাইল প্রযুক্তির বিকাশে নতুন মাইলফলক স্থাপিত হয়েছে
                                        -- টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
 
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, মোবাইল টাওয়ার শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে দেশে মোবাইল প্রযুক্তির বিকাশে আরো একটি নতুন মাইলফলক স্থাপিত হয়েছে। টাওয়ার শেয়ারিং কার্যকর হলে টাওয়ারের জন্য মোবাইল অপারেটরসমূহকে বিনিয়োগের প্রয়োজন হবে না বরং এর মাধ্যমে মোবাইলের মানসম্পন্ন ও উন্নত সেবা খাতে অপারেটরদের জন্য বিনিয়োগের নতুন সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। তিনি এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে গুণগতমানের মোবাইল সেবা প্রদানে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।
 
মন্ত্রী আজ ঢাকায় বিটিআরসি মিলনায়তনে চারটি প্রতিষ্ঠানকে মোবাইল নেটওয়ার্ক টাওয়ার অবকাঠামো ভাগাভাগি সংক্রান্ত টাওয়ার শেয়ারিং লাইসেন্স প্রদান  উপলক্ষে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এই আহ্বান জানান।
 
অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের  সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার এবং বিটিআরসি চেয়ারম্যান মোঃ জহুরুল হক বক্তৃতা করেন।
 
মন্ত্রী বলেন, দূরদৃষ্টি সম্পন্ন নেতৃত্ব ছাড়া কোনো জাতি এগিয়ে যেতে পারে না। ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত গত প্রায় দশ বছরে বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তি বিকাশে বৈপ্লবিক পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে বৈশ্বিক নেতৃত্বের যোগ্যতায় উপনীত হয়েছে। ইতোমধ্যে ৪-জি এবং এমএনপি চালু করা হয়েছে। মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। প্রযুক্তির নতুন ভার্সন ৫-জি ইতোমধ্যে পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। যার গতি হবে সেকেন্ডে ২০ জিবিপিএস। এর ফলে যন্ত্রের সাথে যন্ত্রের কথা হবে। এজন্য এখন থেকেই প্রস্তুুতি নিতে হবে। 
 
মন্ত্রী অনুমোদিত চার প্রতিষ্ঠান, ইডটকো বাংলাদেশ কো. লিমিটেড, সামিট পাওয়ার লিমিটেড, কীর্তনখোলা টাওয়ার বাংলাদেশ  লিমিটেড এবং এবিহ হাইটেক কনসোর্টিয়াম লিমিটেড কর্তৃপক্ষের হাতে এ লাইসেন্স হস্তান্তর করেন। 
 
#
 
শেফায়েত/সেলিম/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৯৩০ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৩০২৩
 
শ্রমিকদের উন্নত ও নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ
                                                              -- শ্রম  প্রতিমন্ত্রী
 
রাজশাহী, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মোঃ মুবিজুল হক বলেছেন, শ্রমিকদের উন্নত ও নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। শ্রমিকদের পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার বিষয়ে আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে সরকার এই মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।
প্রতিমন্ত্রী আজ রাজশাহীর তেরখাদা এলাকায় মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব ১৯ বিঘা জমির ওপর আন্তর্জাতিকমানের জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা বিষয়ক গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব বলেন। 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রমিকদের পেশাগত অনেক জটিল রোগ হয় । এসব রোগের চিকিৎসা সাধারণ হাসপাতালে দেয়া সম্ভব হয় না। অনেক সময় রোগ সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণাও পাওয়া যায় না।  এ সকল পেশাগত রোগ সম্পর্কে গবেষণা এবং রোগ নিয়ন্ত্রণে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং শ্রমিকদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে এ ইনস্টিটিউট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তিনি পেশাগত রোগের চিকিৎসায় পিপিপি’র  মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জে ৩শ’ শয্যার একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন, এ ইনস্টিটিউটে শ্রমিক-মালিক এবং মিড লেভেল ম্যানেজমেন্টের বিভিন্ন বিষয়ে আন্তর্জাতিকমানের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। প্রশিক্ষণ প্রদানের বিষয়ে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা-আইএলও, সুইডেন, ডেনমার্ক এবং নেদারল্যান্ডস সরকার কারিগরি সহায়তা এবং ট্রেইনারসহ সার্বিক সহযোগিতার বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। শ্রমিকদের দুর্ঘটনা, পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার বিষয়ে গবেষণা ও প্রশিক্ষণের জন্য বাংলাদেশে এটিই প্রথম ইনস্টিটিউট। আশপাশের দেশগুলোর মধ্যে ভারতে শুধু এ ধরনের একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। নেপাল, ভুটান, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায় এ ধরনের কোনো প্রতিষ্ঠান নেই। ফলে এসব দেশের পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার বিষয়ে গবেষণা ও প্রশিক্ষণের জন্য শ্রম সংশ্লিষ্ট লোকজন এখানে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করবে বলে আশা করা যায়। 
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে এ ধরনের একটি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় আরো একটি মাইলফলক উন্মোচিত হলো। তিনি বলেন, শিক্ষা নগরী রাজশাহীতে মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ চলছে, ভবিষ্যতে এখানে একটি কৃষি বিশ^বিদ্যালয়ও প্রতিষ্ঠা করা হবে। দেশের অগ্রযাত্রায় রাজশাহীর এ সকল প্রতিষ্ঠান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।
অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব আশরাফ শামীম, বিআইআরসি’র কমানডেন্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক শামসুজ্জামান ভূঁইয়া, শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শিবনাথ রায় এবং সেনা কল্যাণ সংস্থার প্রধান প্রকৌশলী কর্নেল এবিএম মিজানুর রহমান বক্তৃতা করেন। 
এ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৬৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা। ২০২১ সালের জুন মাসের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। 
#
আকতারুল/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৮/১৯৩০ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৩০২২
 
উচ্চতর গবেষণা সহায়তা কর্মসূচির চেক বিতরণ
গবেষণায় বরাদ্দ বাড়ানো হবে
                                        ---শিক্ষামন্ত্রী
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
 
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, সার্বিক শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নের সাথে সাথে সরকার উচ্চ শিক্ষায় গুরুত্ব দিচ্ছে। গবেষণা ও ইনোভেশনে অধিক বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে। গবেষণায় বরাদ্দ আরো বাড়ানো হবে। 
শিক্ষামন্ত্রী আজ রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ’শিক্ষাখাতে উচ্চতর গবেষণা সহায়তা কর্মসূচি বিষয়ক কর্মশালা, চেক হস্তান্তর ও সমাপ্ত গবেষণার প্রতিবেদনের মোড়ক উন্মোচন’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এবং বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষাখাতে উচ্চতর গবেষণা সহায়তা কর্মসূচির আওতায় ২০০৯-১০ অর্থবছর থেকে ২০১৮-১৯ অর্থবছর পর্যন্ত মোট ৪৬৬ জনকে গবেষণার জন্য অর্থ প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে ২২৯টি গবেষণা প্রকল্প সমাপ্ত হয়েছে। এতে ব্যয় হয়েছে মোট ৪৮ কোটি টাকা। আরো ২৩৭টি গবেষণা প্রকল্প চলমান রয়েছে যার ব্যয় আরো ১৫ কোটি ৬২ লাখ টাকা। গবেষণায় সাফল্যের উল্লেখ করে তিনি বলেন, জ্ঞান সৃষ্টি ও গবেষণায় সরকার জোর দিচ্ছে। জ্ঞান ও প্রযুক্তি রপ্তানিকারকদের মধ্যে বাংলাদেশ অর্ন্তভুক্ত হতে চায়। 
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোঃ আব্দুল্লাহ আল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ সোহরাব হোসাইন, বাংলাদেশ এক্রিডিটেশন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ও শিক্ষাখাতে উচ্চতর গবেষণা সহায়তা কর্মসূচির সভাপতি অধ্যাপক ড. মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ এবং ব্যানবেইসের মহাপরিচালক ও কর্মসূচির সদস্য সচিব মোঃ ফসিউল্লাহ। 
অনুষ্ঠানে ২০১৩ থেকে ২০১৫ সালের সমাপ্ত গবেষণার প্রতিবেদনের মোড়ক উন্মোচন করেন শিক্ষামন্ত্রী।
পরে শিক্ষামন্ত্রী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের ৫২টি গবেষণা প্রকল্পের তৃতীয় কিস্তি, ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ৮৫টি গবেষণা প্রকল্পের ২য় কিস্তি এবং ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ১০০টি গবেষণা প্রকল্পের প্রথম কিস্তির ১৫ কোটি ৬২ লাখ টাকার চেক গবেষকদের মাঝে হস্তান্তর করেন।
#
আফরাজুর/মাহমুদ/পারভেজ/জয়নুল/২০১৮/১৯২৫ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                           নম্বর : ৩০২১
 
জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিবের শ্রদ্ধা নিবেদন
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
  
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নবনিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত সচিব এস এম আরিফ-উর-রহমান। আজ রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে তিনি এ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর তিনি জাতির পিতা এবং ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদাতবরণকারী তাঁর পরিবারের সদস্যসহ অন্যদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন ও তাঁদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। 
 
    উল্লেখ্য, এস এম আরিফ-উর-রহমান গত ৩০ অক্টোবর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে ভারপ্রাপ্ত সচিব পদে যোগদান করেন।
 
#
 
আলমগীর/মাহমুদ/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮৩০ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০২০
 
৬ অক্টোবরকে জাতীয় জন্ম নিবন্ধন দিবস উদ্যাপনের ঘোষণা
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) : 
 
সরকার ৬ অক্টোবরকে ‘জাতীয় জন্ম নিবন্ধন দিবস’ ঘোষণা করেছে এবং এ তারিখকে ‘জাতীয় জন্ম নিবন্ধন দিবস’ হিসেবে উদ্যাপনের জন্য জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবস পালন সংক্রান্ত পরিপত্রের ‘গ’ শ্রেণিভুক্ত দিবস হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।
 
এ সিদ্ধান্ত যথাথযভাবে পালনের জন্য সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও সংস্থাকে অনুরোধ করা হয়েছে।
 
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক পরিপত্রে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
#
সাজ্জাদুল/মাহমুদ/পারভেজ/আব্বাস/২০১৮/১৮৪৪ ঘণ্টা 
 
তথ্যবিবরণী                                                               নম্বর : ৩০১৯
 
বাণিজ্যমন্ত্রী - ভারতের খাদ্য সচিব বৈঠক
টিসিবি ভারতের এসটিসি’র সাথে এমওইউ স্বাক্ষর করতে যাচ্ছে
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
 
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন,  ভারত বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র। ভারতের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্য ব্যবধান বেশি। তবে বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের কাঁচামাল ও চালসহ রপ্তানির আনুষঙ্গিক জিনিস ভারত থেকে আমদানি করে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে রপ্তানি করা হয়। সাপটার আওতায় বাংলাদেশে ভারত থেকে চিনি আমদানির ক্ষেত্রে কিছু জটিলতা রয়েছে। সে কারণে প্রায় ৪০ শতাংশ শুল্ক দিয়ে ভারত থেকে চিনি আমদানি করতে হয়। এ জটিলতা দূর করতে ভারত বাংলাদেশের সাথে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করতে আগ্রহী। বাংলাদেশের টিসিবি এবং ভারতের স্টেট ট্রেডিং কর্পোরেশন (এসটিসি)-এর মধ্যে ২ নভেম্বর এমওইউ স্বাক্ষরিত হবে। 
 
মন্ত্রী আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে ঢাকায় সফররত ভারতের ঋড়ড়ফ ধহফ চঁনষরপ উরংঃৎরনঁঃরড়হ বিষয়ক সচিব জধারশধহঃ এর সাথে মতবিনিময় করে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এ সময় ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা উপস্থিত ছিলেন।
 
মন্ত্রী বলেন, ভারতে পাটপণ্য রপ্তানিতে আরোপিত এন্টি ডাম্পিং প্রত্যাহার এবং ভোজ্য তেল রপ্তানিতে জটিলতা দূর করার আহ্বান জানানো হয়েছে। ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে আরো ৪টি বর্ডারহাট চালুর করতে ভারত একমত হয়েছে। 
 
তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য তৈরিপোশাক তৈরির কাজে ব্যবহৃত তুলা ও চালসহ রপ্তানি কাজে ব্যবহৃত অন্যান্য পণ্য আমদানি করে থাকে। গত অর্থবছর বাংলাদেশ ৮৭৩ দশমিক ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য ভারতে রপ্তানি করেছে, একই সময়ে আমদানি করেছে ৮৬১৯ দশমিক ৪০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। উভয় দেশ চলমান বাণিজ্য আরো বৃদ্ধি করতে আগ্রহী। এ জন্য বাণিজ্য সুবিধা বৃদ্ধি করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। 
 
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শুভাশীষ বসু, ভারতের প্রতিনিধিদলে ফুড এন্ড পাবলিক ডিস্ট্রিবিউশনের পরিচালক এবং বাণিজ্য বিভাগের কৃষিপণ্য রপ্তানির পরিচালক এসময় উপস্থিত ছিলেন।
 
#
 
বকসী/মাহমুদ/রফিকুল/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮০০ ঘণ্টা  
 
তথ্যবিবরণী                                                                                                   নম্বর : ৩০১৮
 
আগামীকাল ঢাকায় ‘শেকড়ের সন্ধানে’ মেগা কনসার্ট 
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
আগামীকাল ঢাকায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ‘শেকড়ের সন্ধানে’ শীর্ষক মেগা কনসার্ট অনুষ্ঠিত হবে। 
বিভাগীয় শহরসমূহের ধারাবাহিকতায় ঢাকায় এ কনসার্ট অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সকলের জন্য উন্মুক্ত এ কনসার্টে দেশের প্রথিতযশা ও স্বনামধন্য শিল্পীবৃন্দ সংগীত পরিবেশন করবেন। 
বিকাল ৪টা হতে ৬টা পর্যন্ত এ কনসার্টে স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ সংগীত পরিবেশন করবেন। সন্ধ্যা ৬টা হতে রাত ১১ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলবে কনসার্টের মূল পর্ব। এ পর্বে দেশের স্বনামধন্য শিল্পীবৃন্দ বিদেশি প্রতিথযশা মিউজিশিয়ানদের সমন্বয়ে সংগীত পরিবেশন করবেন। ভারত, লাটভিয়া, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, পাকিস্তান, মিশরসহ অন্যান্য দেশের ২২ জন মিউজিশিয়ান এ কনসার্টে পারফর্ম করবেন। প্রখ্যাত বিদেশি মিউজিশিয়ানদের মধ্যে রয়েছে ভারতের সেবামণি, লাটভিয়ার অ্যান্থনি প্রমুখ। কনসার্টের আরেকটি আকর্ষণীয় দিক হলো বর্ণিল ও মনোমুগ্ধকর ফায়ারওয়ার্কস। সন্ধ্যা ৬টা হতে এ অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে কনসার্টের মিডিয়া পার্টনার স্যাটেলাইট চ্যানেল গান বাংলা ও দেশ টেলিভিশন।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক ও উন্নয়ন কর্মকা-ের প্রামাণ্য ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হবে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর দশটি বিশেষ উদ্যোগের ভিডিও তথ্যচিত্র অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত হবে।
যেসব শিল্পী এ কনসার্টে সংগীত পরিবেশন করবেন তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- কৌশিক হোসেন তাপস, হৃদয় খান, ফকির শাহাবুদ্দীন, রিংকু, কনক, ঈশিতা, রেশমী, কুদ্দুস বয়াতী, শফি বয়াতী প্রমুখ।
‘শেকড়ের সন্ধানে’ মেগা কনসার্ট এর মূল উদ্দেশ্য হলো সাধারণ জনগণকে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একুশ শতকের উন্নত ও সমৃদ্ধ সম্ভাবনাময় বাংলাদেশের সাথে সম্পৃক্ত করা এবং উৎপাদনশীল কর্মকা-ে উদ্বুদ্ধ করা; বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য স্বাধীনতার স্বপক্ষের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত জাতির পিতার ‘সোনার বাংলা’ গড়তে বর্তমান সরকারের যে কোনো বিকল্প নেই তা জনগণকে অবহিত করা; সরকারের জনকল্যাণমূলক ও উন্নয়ন কর্মকা- সর্বসাধারণকে অবহিত করা, দেশের যুবসমাজকে উন্নয়নের মূলধারায় সম্পৃক্ত করা এবং বিভ্রান্তিমূলক সকল ধরনের অপপ্রচার থেকে রক্ষার জন্য প্রকৃত সত্য জনগণের সামনে তুলে ধরা। 
উল্লেখ্য, এ মেগা কনসার্ট গত ১৬ অক্টোবর রংপুরে, ২০ অক্টোবর রাজশাহীতে, ২২ অক্টোবর খুলনায়, ২৪ অক্টোবর বরিশালে, ২৮ অক্টোবর সিলেটে ও ৩১ অক্টোবর চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী ৪ নভেম্বর ময়মনসিংহে অনুষ্ঠিত হওয়ার মাধ্যমে এ মেগা কনসার্টের পরিসমাপ্তি ঘটবে।
#
ফয়সল/মাহমুদ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৮/১৮৪৫ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                               নম্বর : ৩০১৭
 
ফিরোজা আমুর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত
 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
 
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সহধর্মিণী মরহুমা ফিরোজা আমুর একাদশ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহ্ফিল আজ বাদ আছর রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে শিল্পমন্ত্রীর বাসভবনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে মরহুমার পরকালীন শান্তি ও রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। 
 
অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবর্গ, জাতীয় সংসদ সদস্যবৃন্দ, শিল্প মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ অংশ নেন।
 
উল্লেখ্য, ফিরোজা আমু ২০০৭ সালে ইন্তেকাল করেন। 
 
#
 
জলিল/মাহমুদ/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮৩০ ঘণ্টা  
তথ্যবিবরণী                                                                                         নম্বর : ৩০১৬
 
ক্রিকেটার চামেলীর চিকিৎসায় বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সহায়তা
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) : 
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ আজ ক্রিকেটার চামেলীর চিকিৎসার জন্য ব্যক্তিগত তহবিল থেকে দুই লাখ টাকা সহায়তা প্রদান করেছেন। 
আট বছর পূর্বে গুণী এই ক্রিকেটারের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যায়। বর্তমানে তিনি মেরুদ-ের হাড়ের ব্যথায় ভুগছেন। 
প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত চেকটি চামেলীর রাজশাহীর বাসভবনে হস্তান্তর করা হয়। 
#
আসলাম/মাহমুদ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৮/১৮০০ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                       নম্বর : ৩০১৫
শান্তিপূর্ণ পরীক্ষা অনুষ্ঠানে সবধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) : 
জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু উপলক্ষে পরীক্ষার সার্বিক কার্যক্রম পর্যবেক্ষণের জন্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আজ রাজধানীর মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয় ও মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় পরীক্ষাকেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠানে সকলব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নকলমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলে নিরলসভাবে কাজ করছে। প্রশ্ন ফাঁস সংক্রান্ত গুজবের ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক রয়েছে। এ ধরনের কর্মকা-রোধে সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রশ্ন ফাঁসের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে থাকবে এবং জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, মাধ্যমিক স্তরে ঝরে পড়ার হার কমে আসছে। ফলে জেএসসি ও সমমান পরীক্ষায় শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ছে। গতবছর জেএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল ২৪ লাখ ৬৮ হাজার শিক্ষার্থী। এবার এ পরীক্ষায়  অংশগ্রহণ করছে ২৬ লাখ ৭০ হাজার শিক্ষার্থী। শিক্ষাক্ষেত্রে মেয়েদের অংশগ্রহণও বেড়েছে। ২০১৮ সালে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় ছাত্রের তুলনায় ২ লাখ ২২ হাজার ৮৬৯ জন ছাত্রী বেশি।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঞা, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নাজমুল হক খান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (রুটিন দায়িত্ব) প্রফেসর মোহাম্মদ শামছুল হুদা এবং ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. জিয়াউল হক এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
#
আফরাজুর/রিফাত/সুবর্ণা/রেজ্জাকুল/শামীম/২০১৮/১৪৪৩ ঘণ্টা  
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০১৪ 
চিনি পরিশোধনে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে ভারত
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) : 
রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলগুলোর আধুনিকায়ন এবং ‘র’ সুগার থেকে পরিশোধিত চিনি উৎপাদনে কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত। এ লক্ষ্যে খুব শীঘ্রই ভারতের পক্ষ থেকে একটি সমন্বিত প্রস্তাব শিল্প মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হবে। এ প্রস্তাবের ভিত্তিতে সহায়তার ক্ষেত্রগুলো চিহ্নিত করে তা বাস্তবায়নের জন্য একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হবে। 
ভারতের খাদ্যসচিবের নেতৃত্বে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনারসহ এক প্রতিনিধিদল 
আজ শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সাথে বৈঠককালে এ আগ্রহের কথা জানান। শিল্প মন্ত্রণালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 
ভারতের খাদ্যসচিব রবিকান্ত, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান এ কে এম দেলোয়ার হোসেনসহ ভারতীয় প্রতিনিধিদলের সদস্যগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।  
বৈঠকে দু’দেশের শিল্পখাতে সহায়তার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়। এসময় বাংলাদেশের চিনি শিল্পের আধুনিকায়ন, ‘র’ সুগার থেকে রিফাইন্ড সুগার উৎপাদন, আখচাষিদের প্রশিক্ষণ, উচ্চ রিকভারিসম্পন্ন আখজাত হস্তান্তর এবং চিনি শিল্পের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের ওপর আলোচনা হয়। 
শিল্পমন্ত্রী ভারতকে বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ বন্ধুরাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে ভারত সরকার ও জনগণের ঐতিহাসিক অবদান রয়েছে। তিনি স্বাধীনতাপরবর্তীতে বঙ্গবন্ধুকে স্বদেশে ফিরিয়ে আনতে তৎকালীন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধীর কূটনৈতিক সহায়তার কথা গভীর কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করেন।  
আমির হোসেন আমু বলেন, ভারতের জাতীয় মাননির্ধারণী সংস্থা এনএবিএল ইতিমধ্যে ২১টি পণ্যের অনুকূলে বিএসটিআই এর পরীক্ষণসনদ গ্রহণ করেছে। ১২টি পণ্যের পরীক্ষণসনদ গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তিনি দ্রুত এসব পণ্যের পরীক্ষণসনদ গ্রহণ করতে ভারতীয় খাদ্য সচিব এবং হাইকমিশনারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের আধুনিকায়ন, উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি এবং ‘র’ সুগার পরিশোধনের সুযোগ তৈরি করতে ভারতের সহায়তা প্রদানের প্রস্তাবকে স্বাগত জানান। 
#
জলিল/রিফাত/সুবর্ণা/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৮/১৫০০ ঘণ্টা  
 
তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ৩০১৩  
জাতীয় স্বেচ্ছায় রক্তদান ও মরণোত্তর চক্ষুদান দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী 
ঢাকা, ১৭ কার্তিক (১ নভেম্বর) :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২ নভেম্বর জাতীয় স্বেচ্ছায় রক্তদান ও মরণোত্তর চক্ষুদান দিবস উপলক্ষে নি¤েœাক্ত বাণী প্রদান করেছেন :
“স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং সন্ধানী কেন্দ্রীয় পরিষদ ও সন্ধানী জাতীয় চক্ষুদান সমিতির যৌথ উদ্যোগে প্রতিবছরের মতো এবারও ২ নভেম্বর ‘জাতীয় স্বেচ্ছায় রক্তদান ও মরণোত্তর চক্ষুদান দিবস ২০১৮’ পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। 
সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিরাপদ রক্তের গুরুত্ব উপ
Todays handout (8).docx Todays handout (8).docx

Share with :

Facebook Facebook