তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৫ অক্টোবর ২০১৫

তথ্যবিবরণী 25/10/2015

তথ্যবিবরণী                                                                                          নম্বর : ৩১০৭

              আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত হাফেজগণের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী
সরকার কোরান চর্চার অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করেছে

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :
ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন, সরকার কোরান চর্চার অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারায় আজ বাংলাদেশ কোরান প্রতিযোগিতায় বিশ্বে শীর্ষস্থান অধিকার করতে পেরেছে। বাংলাদেশি হাফেজ ও কারিগণ আন্তর্জাতিক হিফজ ও কিরাত প্রতিযোগিতায় প্রায় প্রতি বছরই পুরস্কৃত হচ্ছেন। গত কয়েক বছর ধরে আমাদের হাফেজ ও কারিগণ আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় মুসলিম বিশ্বে শ্রেষ্ঠ স্থান অধিকার করেছেন। একটি অনারব দেশ হিসেবে বাংলাদেশের এ অর্জন বিশ্বসভায় প্রশংসার দাবি রাখে। 
মন্ত্রী আজ বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে ইসলামিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত হাফেজগণের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
ধর্মমন্ত্রী আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কোরান ও সুন্নাহর খেদমতে যুগান্তকারী অবদান রেখে গেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামের খেদমতে নানামুখী কাজ করে যাচ্ছেন।
ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজালের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব প্রফেসর মওলানা মোহাম্মদ সালাহ উদ্দীন, মিসরের রাষ্ট্রদূত মাহমুদ মোস্তফা আইজ্জাত, ইরান কালচারাল সেন্টারের পরিচালক আসগর খসরুয়াবাদী, বাহরাইনের ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স ও ওয়াক্ফ মন্ত্রণালয়ের আল কোরান ডাইরেক্টরেটের পরিচালক আবদুল্লাহ আবদুল আজিজ কাহতান আল ওমারি এবং জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদের খতিব আল্লামা মুহাম্মদ জালাল উদ্দিন আল কাদেরী।
উল্লেখ্য, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক হিফজ প্রতিযোগিতায় পুরস্কারপ্রাপ্ত অর্ধশতাধিক বাংলাদেশি হাফেজকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে প্রথমবারের মতো পুরস্কার ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। হিফজ প্রতিযোগিতার বিচারকসহ খ্যাতনামা হিফজ প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণকেও সম্মাননা প্রদান করা হয়। এছাড়া পনেরো আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত হিফজ প্রতিযোগিতার ২০১২, ২০১৩ ও ২০১৪ সালের বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও ক্রেস্ট বিতরণ করা হয়।
#

নিজাম/আফরাজ/নবী/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/২২০০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                           নম্বর : ৩১০৬

সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে
                                ---স্পিকার

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ নি¤œমধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। এ অর্জনকে ধরে রেখে ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ  গড়তে এবং বাংলাদেশকে উন্নত বিশ্বের কাতারে প্রতিষ্ঠা করতে সকলকে একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

স্পিকার আজ ঢাকায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে বাংলাদেশ আওয়ামী  যুবলীগ আয়োজিত বিশ্বসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনন্য সাফল্যগাঁথার স্থিরচিত্র নিয়ে ‘তোমার কীর্তি মোদের গর্ব’ শীর্ষক সংবাদচিত্র প্রদর্শনীর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে একথা বলেন।

স্পিকার বলেন, সহ¯্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে ‘রোল মডেল’। মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান অত্যন্ত সুদৃঢ়। মাতৃমৃত্যু হার হ্রাস, শিশুমৃত্যু হার হ্রাস, নারীর ক্ষমতায়ন ও জেন্ডার সমতা নিশ্চিতকরণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেকদূর অগ্রসর হয়েছে। এমডিজি পরবর্তী এসডিজি (সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল) অর্জনেও সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার  আহবান জানান। 

তিনি আরও বলেন, জনগণের চাহিদা পূরণ ও দেশের উন্নয়ন ঘটিয়ে রূপকল্প- ২০২১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে দলমত নির্বিশেষে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

স্পিকার বলেন, সারাবিশ্ব থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্জনের স্বীকৃতি এসেছে। তাঁর অর্জনকে এই ধরনের প্রদর্শনীর মাধ্যমে সকলের কাছে তুলে ধরতে যুবলীগসহ আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গসংগঠনের প্রতি তিনি আহবান জানান। 

যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য মোর্শেদ আলমসহ কেন্দ্রীয় ও মহানগর যুবলীগের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।  

স্পিকার ‘তোমার কীর্তি মোদের গর্ব’ শীর্ষক সংবাদচিত্র প্রদর্শনীর বিভিন্ন বিভাগ ঘুরে দেখেন। 

#

শিবলী/আফরাজ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৫/২১২২ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                          নম্বর : ৩১০৫

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :
         জাতীয় সংসদের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক আজ কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন (রিমি) এর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, কাজী কেরামত আলী, পংকজ নাথ, পিনু খান এবং জেবুন্নেছা আফরোজ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। 
        বৈঠকে আরকাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের জন্য খসড়া আইন প্রণয়নের অগ্রগতি, উপজেলা পর্যায়ে সরকারি গণগ্রন্থাগার স্থাপনের অগ্রগতি এবং বিদেশে সাংস্কৃতিক টিম পাঠানোর ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক টিমকে অগ্রাধিকার প্রদান সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
         বৈঠকে জানানো হয়, আরকাইভস ও জাতীয় গ্রন্থাগার আইন-২০১৫ এর খসড়া আইন প্রণয়নের জন্য সংশোধন, পরিবর্তন ও পরিবর্ধনপূর্বক প্রফেশনাল বডি/স্টেকহোল্ডারদের সমন্বয়ে কমিটি কর্তৃক চূড়ান্ত করা হয়েছে, যত দ্রুত সম্ভব মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হবে। 
          সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন খাতে অর্থ বরাদ্দের বিষয়ে স্থায়ী কমিটির সভাপতিসহ কমিটির সদস্যবৃন্দ অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করবেন মর্মে সুপারিশ গৃহীত হয় ।
          শিল্পকলা একাডেমির আওতাধীন যে সকল জেলায় এবং উপজেলায় শিল্পকলা একাডেমির অডিটরিয়াম ব্যবহারের অনুপযোগী এবং যে সকল জেলা ও উপজেলায় শিল্পকলা একাডেমির অডিটরিয়াম নাই সে বিষয়ে উল্লেখপূর্বক একটি প্রতিবেদন কমিটির পরবর্তী বৈঠকে উপস্থাপনের জন্য মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।
          সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পরিধি কিভাবে আরো বৃদ্ধি করা যায় এবং এ সাংস্কৃতিক কর্মকা-কে আরো বেগবান করা যায় সে বিষয়ে মন্ত্রণালয় কর্তৃক একটি প্রস্তাব পেশ করা এবং বিদেশে সাংস্কৃতিক টিম পাঠানোর ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক টিমকে আরো অগ্রাধিকার প্রদানের ধারা ভবিষ্যতেও অব্যাহত রাখার সুপারিশ করা হয় 
          সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
#


এমাদুল/আফরাজ/রফিকুল/জয়নুল/২০১৫/১৯১০ঘণ্টা 
তথ্যবিবরণী                                                                                                                                  নম্বর : ৩১০৪
পর্যায়ক্রমে দেশের সকল উপজেলায় আইসিটি ভবন নির্মাণ করা হবে
                                              ---শিক্ষামন্ত্রী
ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) : 

    শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, সরকার শিক্ষার মানোন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। তিনি বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নের অবিচ্ছেদ্য অংশ তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষার প্রসারে দেশের ১২৫ উপজেলায় আইসিটি ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল উপজেলায় এ ধরণের আইসিটি ভবন নির্মাণ করা হবে।
    শিক্ষামন্ত্রী আজ ঢাকায় পলাশীতে ব্যানেবেইস মিলনায়তনে বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) কর্তৃক সারাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জরিপ ২০১৫ উপলক্ষে আয়োজিত প্রেসব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন। 
    নাহিদ বলেন, আইসিটি ভবনে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের আইসিটি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ প্রদানের পাশাপাশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানভিত্তিক আইসিটি সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে তৃণমূল জনগণের হাতের নাগালে প্রযুক্তি পৌঁছে দেয়া সম্ভব হবে।
    প্রেসব্রিফিংয়ে আরো বক্তব্য রাখেন শিক্ষাসচিব মো. নজরুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ফাহিমা খাতুন এবং ব্যানবেইসের পরিচালক মো. ফসিউল্লাহ।
    গত ১০ অক্টোবর থেকে সারাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের মাসব্যাপী জরিপ পদ্ধতির বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরতে এ প্রেসব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়।
    প্রেসব্রিফিংয়ে জানানো হয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিস্তারিত তথ্য সংবলিত নির্ধারিত প্রশ্নমালা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান কর্তৃক অনলাইনে পূরণের মাধ্যমে প্রতিবছর এ জরিপ পরিচালনা করা হয়।
    এসময় শিক্ষা সচিব জানান, দেশে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ডাইনামিক ওয়েবসাইট খোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রতিদিনের ছাত্র শিক্ষক উপস্থিতিসহ বিস্তারিত শিক্ষা কার্যক্রম ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানা যাবে। সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট নিয়ে একটি ওয়েবপোর্টাল করা হচ্ছে, ফলে দেশের যেকোন স্থান থেকে পুরো দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠাসমূহের শিক্ষা কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত হওয়া যাবে। এতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত হবে বলে শিক্ষা সচিব উল্লেখ করেন।
ইএফএ রিপোর্ট প্রকাশ অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী
    আজ ব্যানবেইস ভবনে বিএনসিইউ মিলনায়তনে সবার জন্য শিক্ষা গ্লোবাল মনিটরিং রিপোর্ট ২০১৫ প্রকাশ অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০০৯ সালে দায়িত্ব গ্রহণের পর চালু ৫ম শ্রেণিতে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা ও ৮ম শ্রেণিতে জেএসসি ও সমমান পরীক্ষা শিক্ষার্থী ঝরে পড়ারোধসহ শিক্ষার মানোন্নয়নে ভূমিকা রেখেছে। 
    শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পূর্বে ৫ম ও ৮ম শ্রেণিতে বৃত্তিপরীক্ষার নামে কিছু শিক্ষার্থীকে আলাদা করে অন্যদের অবহেলা করা হতো। পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষার মাধ্যমে এখন স্কুলের সকল শিক্ষার্থী সমান যতœ পাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, এসএসসি’র আগেই দু’টো সনদ অর্জন একজন দরিদ্র শিক্ষার্থীকে শিক্ষার্জনে অনেক বেশি উৎসাহিত করছে। শিক্ষামন্ত্রী পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষার মহৎ উদ্দেশ্য পূরণে আরো নিবেদিতপ্রাণে দায়িত্ব পালনের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি অহ্বান জানান।
    শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে বিএনসিইউ আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মেছবাহউল আলম এবং ইউনেস্কো, ইউনিসেফ, সেভ দ্য চিলড্রেন ও ইইউ’র প্রতিনিধিগণ বক্তব্য রাখেন । 
#
সাইফুল্লাহ/আফরাজ/রফিকুল/আব্বাস/২০১৫/১৭৫৫ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৩১০৩

প্রাক প্রাথমিকের ১৭ জেলায় নিয়োগ পরীক্ষা ৩০ অক্টোবর

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) : 

    সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার জন্য সৃষ্ট সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের চতুর্থ ধাপে ১৭ জেলায় লিখিত পরীক্ষা আগামী ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে।   

    জেলাগুলো হলো- বগুড়া, নওগাঁ, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, পাবনা, যশোর, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, ঢাকা, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, দিনাজপুর, রংপুর, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধা।

    সকাল ১০টা থেকে ১১টা ২০ মিনিট পর্যন্ত লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ১৭ জেলায় মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৪ লাখ ৩৬ হাজার ৭৮ জন। ২২ অক্টোবর থেকে প্রার্থীদের মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠানো শুরু হয়েছে। প্রার্থীরা  ওয়েবসাইট থেকে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন। 

    পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র ছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রে কোনো বই, উত্তরপত্র, নোট বা অন্য কোনো কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মোবাইল ফোন ও ভ্যানিটি ব্যাগ, পার্স, ইলেকট্রনিক্স ঘড়ি বা যে কোনো ইলেকট্রনিক ডিভাইস সঙ্গে রাখতে দেয়া যাবে না।

    যদি কোনো পরীক্ষার্থী এসব দ্রব্যাদি সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে তাকে তাৎক্ষণিক বহিষ্কার করা হবে।

    প্রার্থীদের ওএমআর শিট পূরণের নির্দেশনাবলী এবং পরীক্ষা সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য  ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

#
রবীন্দ্র/আফরাজ/রফিকুল/আব্বাস/২০১৫/১৭২২ ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৩১০২


জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়
প্রথমবর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তির আবেদনের সময় বৃদ্ধি 

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :
    জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবর্ষ ¯œাতক (সম্মান) শ্রেণিতে অনলাইনে ভর্তির প্রাথমিক আবেদনের সময় আগামী ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। 
    আগ্রহী প্রার্থীগণ আবেদন ফরম ও ভর্তি বিষয়ক তথ্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট থেকে পূরণ করে আবেদন ফি বাবদ ২৫০ টাকা সংশ্লিষ্ট কলেজে ১ নভেম্বর, ২০১৫ তারিখের মধ্যে জমা দিতে পারবে । 
    ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট িি.িহঁ.বফঁ.নফ/ধফসরংংরড়হং অথবা ধফসরংংরড়হং.হঁ.বফঁ.নফ থেকে জানা যাবে।
#

ফয়জুল/আফরাজ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৫/১৮১৫ঘণ্টা
 

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৩১০১
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) : 

জাতীয় সংসদের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক আজ জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি মো. মোতাহার হোসেনের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসেন এবং মো. আবুল কালাম বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। 

বৈঠকে প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থার সার্বিক উন্নয়ন, শিক্ষক নিয়োগ, দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগ এবং সমাপনী পরীক্ষার অগ্রগতি বিষয়ে আলোচনা করা হয়। 
 
কমিটি ২০১৬ শিক্ষাবর্ষের প্রাক্-প্রাথমিক শ্রেণির পাঠ্যপুস্তক ছাপানোর ক্ষেত্রে ছাপানোর কাজ তদারকি, মানসম্মত কাগজ ও ছাপানো নিশ্চিত করা সংক্রান্ত তথ্যাদি সংসদীয় কমিটি কর্তৃক গঠিত কমিটিকে অবহিত করার জন্য এনসিটিবিকে নির্দেশনা প্রদান করে। 

কমিটি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অবস্থিত ছিটমহলসমূহে সংসদ সদস্যদের পরামর্শক্রমে স্থান চিহ্নিত করে নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের সুপারিশ করে। 
 
বৈঠকে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে চলমান মামলাগুলোর রায়ের পর আর কোনো আপিল না করার এবং চলমান আপিলের কার্যক্রম না চালানোর সুপারিশ করা হয়। 

বৈঠকে স্থানীয় সংসদ সদস্যদের সাথে আলোচনা করে সংশ্লিষ্ট উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর সকল বিষয়ে সঠিক তথ্যাদি প্রেরণের জন্য সুপারিশ করা হয়। 

বৈঠকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, যুগ্মসচিব, মহাপরিচালক, প্রকল্প পরিচালকসহ মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তা এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

#
আফরাজ/মোশাররফ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৫/১৮৫১ ঘণ্টা

 
তথ্যবিবরণী                                                                                              নম্বর : ৩১০০

বিসিকের বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধনকালে শিল্পমন্ত্রী
বিসিক শিল্পনগরীতে রপ্তানিমুখী শিল্প স্থাপনের উপযোগী অবকাঠামো গড়ে তুলতে হবে 

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :
দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্থাপিত বিসিক শিল্পনগরীতে রপ্তানিমুখী শিল্প স্থাপনের উপযোগী অবকাঠামো ও সেবা সহায়তা জোরদারের নির্দেশ দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় বর্তমান সরকার জাপান, চীন, কোরিয়া, থাইল্যান্ড, ভারতসহ বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে। তিনি এসব অর্থনৈতিক অঞ্চল চালু হওয়ার আগ পর্যন্ত রপ্তানিমুখী শিল্পের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে বিসিকের মাধ্যমে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের তাগিদ দেন।
বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশনের (বিসিক) দু’দিনব্যাপী বার্ষিক সম্মেলন-২০১৫ এর উদ্বোধনকালে শিল্পমন্ত্রী আজ এ নির্দেশনা দেন। রাজধানীর উত্তরায় অবস্থিত ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (স্কিটি) মিলনায়তনে এ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।  
বিসিক চেয়ারম্যান আহম্মদ হোসেন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্পসচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। এতে অন্যদের মধ্যে বিসিকের পরিচালক (উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ) নুরুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। 
অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিসিকের ভূমিকার ফলে জিডিপিতে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পখাতের অবদান ক্রমেই শক্তিশালী হচ্ছে। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পখাতে ডাবল ডিজিট প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে বিসিকের প্রাতিষ্ঠানিক কর্মকা- ঢেলে সাজানোর পাশাপাশি মাঠ পর্যায়ের অভিজ্ঞতার আলোকে সৃজনশীল প্রকল্প  প্রস্তাব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। বিসিকের যে কোনো সৃজনশীল প্রকল্পের প্রতি শিল্প মন্ত্রণালয়ের সমর্থন থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। 
সম্মেলনে জানানো হয়, বিসিকের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহায়তায় সারাদেশে ১ লাখ ১৭ হাজার ক্ষুদ্র শিল্প এবং ৮ লাখ ৩৭ হাজার কুটির শিল্প কারখানা গড়ে উঠেছে। এসব শিল্পকারখানায় প্রত্যক্ষভাবে ৩৬ লাখ ৬২ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থিত বিসিক শিল্পনগরীর কারখানাগুলোতে ৪৩ হাজার ৮শ’ ৫৮ কোটি টাকার পণ্যসামগ্রী উৎপাদিত হয়েছে, যা বিগত অর্থবছরের তুলনায় ১ হাজার ৪শ’ কোটি টাকা বেশি। উৎপাদিত এসব পণ্যসামগ্রীর মধ্যে ২৪ হাজার ৫শ’ ৯১ কোটি টাকার পণ্যই ছিল রপ্তানিযোগ্য। একই সময়ে শিল্পনগরীর বিভিন্ন কারখানা থেকে সরকার সাড়ে ২৬শ’ কোটি টাকার রাজস্ব আয় করেছে। 
#

জলিল/আফরাজ/মোশারফ/জয়নুল/২০১৫/১৭২৫ঘণ্টা
 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৩০৯৯

জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) : 

    দশম জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটির ১৯তম বৈঠক আজ কমিটির সভাপতি শওকত আলী এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, মো. নূরুল ইসলাম সুজন, মো. আব্দুল ওদুদ, আব্দুর রউফ এবং এডভোকেট নাভানা আক্তার বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। 

 বৈঠকে জ¦ালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন বাপেক্স এর সার্বিক কার্যক্রম এবং পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিঃ এর সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

বৈঠকে কমিটি বাংলাদেশে গ্যাসের ক্ষেত্র বৃদ্ধি করতে এবং তেলের মজুত বাড়াতে সুপারিশ করে।

বৈঠকে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন এন্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেড (বাপেক্স) এবং পদ্মা অয়েল কোম্পানির অডিট আপত্তি নিষ্পত্তি করতে এবং ভবিষ্যতে যাতে অডিট আপত্তির জন্ম না হয় সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সুপারিশ করে কমিটি।

বাপেক্সের কর্মকর্তা-কর্মচারী সকলেই যাতে চাকুরির মেয়াদ শেষে পেনশন সুবিধা পায় সেজন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

          বৈঠকে জ¦ালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব, পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান এবং বাপেক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

#
আফরাজ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৫/১৬৫৭ ঘণ্টা

 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৩০৯৮

মেডিকেল শিক্ষার মান বজায় রাখতে সরকার বদ্ধপরিকর
                     -- স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :

    স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, মেডিকেল কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে মান নিয়ে কোনো আপোশ হবে না। ভর্তির সময় ন্যূনতম নম্বর অর্জনে যে ব্যর্থ হবে সে কোনোভাবেই ভালো চিকিৎসক হওয়ার দাবি করতে পারে না। মেডিকেল শিক্ষার মান যে কোনো মূল্যে বজায় রাখতে সরকার বদ্ধপরিকর।

    মন্ত্রী আজ সচিবালয়ে চিকিৎসা শিক্ষা প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ বেসরকারি মেডিকেল কলেজ অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমসিএ) ও ডেন্টাল কলেজ অ্যাসোসিয়েশনের সাথে এক মতবিনিময়সভায় সভাপতিত্বকালে একথা বলেন। 

    সভায় বিদেশি ছাত্রছাত্রীদের বাংলাদেশে ভর্তি, ডেন্টাল কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে পাশ নম্বর ধার্যসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

    মেডিকেল শিক্ষায় বেসরকারি বিনিয়োগকে উৎসাহ যোগাতে সরকারের আন্তরিক সদিচ্ছার কথা তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ১৬ কোটি মানুষের দেশে চিকিৎসক সংখ্যা খুবই নগণ্য। সরকার সবসময় চায় দেশে চিকিৎসক চাহিদা মেটাতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি বিনিয়োগ অব্যাহত থাকুক। একই সাথে মেডিকেল শিক্ষার মান সমুন্নত রাখার দিকেও সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।  

    স্বাস্থ্য সচিব সৈয়দ মন্জুরুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, বিএমএ মহাসচিব অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান, বিপিএমসিএ-এর চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেনসহ মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও বিএমডিসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

#

পরীক্ষিৎ/আফরাজ/রফিকুল/রেজাউল/২০১৫/১৬৪৮ ঘণ্টা

 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৩০৯৭


স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত 

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :


জাতীয় সংসদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১০ম বৈঠক আজ সংসদভবনে অনুষ্ঠিত হয়। 
কমিটির সভাপতি টিপু মুন্শি’র সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন, মো. শামসুল হক টুকু, ওমর ফারুক চৌধুরী, আবুল কালাম আজাদ এবং কামরুন নাহার চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। 
    বৈঠকে ইতালি ও জাপানের নাগরিক হত্যার সর্বশেষ তথ্য এবং বিদেশি নাগরিকদের নিরাপত্তা,  চাঞ্চল্যকর মামলাসমূহের (নারায়নগঞ্জের সেভেন হত্যা, রাজন এবং রাকিব হত্যামামলা) সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। 
কমিটি আটককৃত মালিকানাহীন গাড়ি যাতে পুলিশ কর্তৃক ব্যবহৃত না হতে পারে সেজন্য আইনমন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করে একটা নীতিমালা প্রণয়নের সুপারিশ করে।  
বৈঠকে বিদেশিদের নিরাপত্তায় পুলিশ কর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপ যথাযথভাবে প্রচারের সুপারিশ করা হয়। এছাড়া পুলিশবাহিনীতে কাউন্টার সেলগঠন ও আধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয়ের মাধ্যমে শক্তিশালী নিরাপত্তাবাহিনী গঠনের সুপারিশ করা হয়। 
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, আইজিপি ও ডিএমপি কমিশনারসহ মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।  
#

ইনামুল/আলম/শুকলা/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৫/১৫৩০ ঘণ্টা 

 

 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৩০৯৬ 


মহররমের তাজিয়া-সমাবেশে ডেপুটি স্পিকার

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) :

    মানিকগঞ্জে দেবেন্দ্র কলেজের মাঠে তাজিয়া মিছিলের সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, ১০ মহররমে ইমাম হোসেনের যে আত্মত্যাগ সেখান থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। তা হলে ইসলাম সুপ্রতিষ্ঠিত হবে। তিনি আরো বলেন, ইসলামকে তার নিজস্ব স্বকীয়তায় প্রস্ফুটিত হতে একযোগে সবাই এগিয়ে যাবে, এই হোক আজকের দিনের প্রত্যয়।  
          এর আগে মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসনের কমকর্তা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে মতবিনিময়সভায় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যদি ৭ মার্চে ভাষণ না দিতেন তা হলে দেশ স্বাধীন হতো না। তিনি বলেন মুজিব মানেই বাংলাদেশ, মুজিব মানেই স্বাধীনতা। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ বর্তমান প্রধানমন্ত্রী সফলভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন বলেও তিনি উল্লেখ বরেন।
    অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। 
#

এমাদুল/আলম/শুকলা/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৫/১৪৪৫ ঘণ্টা 


 
তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর : ৩০৯৫


জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর ও 
বিপিএল টি-২০ আয়োজন সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত 

ঢাকা, ১০ কার্তিক (২৫ অক্টোবর) : 

জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দল আগামী ২ নভেম্বর থেকে ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ সফর করবে। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাথে জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দলের ৩টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দল ১ জানুয়ারি থেকে ২০ জানুয়ারি ২০১৬ পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাথে ২টি টেস্ট ও ২টি টুয়েন্টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচে অংশগ্রহণ করবে।
আগামী ২০ নভেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর ২০১৫ পর্যন্ত দেশি-বিদেশি খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ টি-২০।
জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর এবং বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ টি-২০ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য আজ যুব ও ক্রীড়া সচিব নূর মোহাম্মদ-এর সভাপতিত্বে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।   
সভায় দেশি-বিদেশি খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত অতিথিদের বাংলাদেশে অবস্থানকালীন সময়ে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়।  
সভায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়, বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, তথ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, ঢাকা সিটি কর্পোরেশন ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 
#

শফিকুল/আলম/শুকলা/রেজ্জাকুল/আসমা/২০১৫/১৪৪৫ ঘণ্টা  

Todays handout (11).doc Todays handout (11).doc

Share with :

Facebook Facebook