তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৫ নভেম্বর ২০২০

তথ্যবিবরণী ২৫ নভেম্বর ২০২০

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর :  ৪৫০৬

 

সরকারকে টেনে নামাতে গিয়ে রশি ছিঁড়ে পড়ে গেছে বিএনপি

                                                           -- তথ্যমন্ত্রী

 

চট্টগ্রাম, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

 

          তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, 'বিএনপির কয়েকজন নেতা বক্তব্য দিয়েছেন এই সরকারকে টেনে নামিয়ে ফেলতে হবে। তবে, উনাদের টেনে নামানোর হুমকির মধ্যে প্রায় একযুগ ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। ২০০৯ সালে সরকার গঠন করার মাসখানেক পর থেকেই তারা আমাদের টেনে নামানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন। সরকারকে টেনে নামাতে গিয়েই রশি ছিঁড়ে নিচে পড়ে গেছে বিএনপি।'

 

          মন্ত্রী বলেন, 'দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন নানামুখী ষড়যন্ত্র হচ্ছে, বিএনপির মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব যখন বলেন স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃতির কথা, তখন হাসি পায়। যারা ইতিহাসকে বছরের পর বছর, দশকের পর দশক ধরে বিকৃত করেছেন তাদের মুখে এসব শোভা পায় না। আজকে যখন দেশের মানুষ সঠিক ইতিহাস জানতে পারছে, তখন তাদের গাত্রদাহ হচ্ছে। তারা ইতিহাসের খলনায়ককে নায়ক বানিয়েছিলেন, স্কুলের দপ্তরিকে তারা হেড মাস্টার বানানোর চেষ্টা করেছিলেন। বিএনপিকে বলবো, এ ধরণের হাস্যকর বক্তব্য ক্রমাগতভাবে না দিয়ে বরং নিজেদের দলকে গুছিয়ে, নিজেদের ঘরটাকে সংগঠিত করুন।'

 

          আজ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের আয়োজনে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি অডিটোরিয়ামে আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ এসকল কথা বলেন।

 

           ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, 'খালেদা জিয়া বলেছিলেন, এই সরকার কখনো পদ্মা সেতু করতে পারবেনা, তাদের বলবো, পদ্মা পাড়ে গিয়ে দেখে আসুন। ঢাকা শহরে মেট্টোরেল ও চট্টগ্রামে কর্ণফুলি বঙ্গবন্ধু টানেল আগামী বছর চালু হবে, ইতিমধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে চট্টগ্রামেও মেট্টোরেল প্রকল্প হাতে নেয়া হবে। এই ধারা অব্যাহত থাকলে ২০৪১ সাল নয় তার অনেক আগেই ইনশাআল্লাহ বাংলাদেশ একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হবে। সিঙ্গাপুর মালয়েশিয়ার মতো বদলে যাওয়ার অগ্রগতির গল্প যদি বিশ্ববাসীকে জানান দিতে হয়, শেখ হাসিনাকে একটু সময় দিতে হবে। তার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।'

 

          তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ভারত-পাকিস্তানের গণমাধ্যমে ঝড় উঠছে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করছে। কিন্তু একটি পক্ষ প্রশংসা করতে পারেন না। বিএনপি আর তার দোসরেরা দেখেও দেখে না, শোনেও শোনে না, চোখ থাকিতে অন্ধ, কান থাকিতে বধির।

 

          মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু মুজিব শুধু বাঙালির নেতা নয়, তিনি বিশ্ব প্রেক্ষাপটে একজন বিশ্বনেতা ও নিপীড়িত ও শোষিত মানুষের কণ্ঠস্বর। তিনি শুধু বাংলাদেশ সূচনা করেছেন তা নয়, ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যখন আমরা অর্জন করি, হানাদারেরা তখন সমগ্র দেশ পুড়িয়ে ছারখার করে দিয়েছিল, সমস্ত ব্রিজ কালভার্ট বিধ্বস্ত করেছিল, সেই দেশকে বঙ্গবন্ধু মুজিব পুনর্গঠিত করেছিলেন। '৭৫ সালে যখন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয় তখন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল ৭ দশমিক ৪ শতাংশ।

 

           'অনেকে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার অনেক কারণ উপস্থাপন করেন যা পুরোটাই ভিত্তিহীন' উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, পুরো ক্যানভাসটা আমাদের বিশ্লেষণ করা প্রয়োজন। বাসন্তীকে জাল পরিয়ে কাগজের পাতায় ছবি ছাপিয়ে নানা ধরণের অপবাদ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই বাসন্তীকে যারা ছবি তুলে কাগজের পাতায় ছাপিয়েছিল তারা বাসন্তীকে কাপড় কিনে দেননি। বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে দেশে আসার পর সেই বাসন্তিকে দেখতে গিয়ে কাপড় কিনে দিয়েছেন এবং ঘর বানিয়ে দিয়েছেন।

 

          মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির যে রেকর্ড ৭ দশমিক ৪ শতাংশ, তাকে হত্যা করার ৪০ বছর পর পর্যন্ত কেউ সে রেকর্ড অতিক্রম করতে পারেনি। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আমরা সেই রেকর্ড অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা না হলে দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার বহু আগেই বাংলাদেশের সমৃদ্ধির গল্প শুনতো পৃথিবীর মানুষ। বঙ্গবন্ধুকে তারাই হত্যা করেছিল যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা চায়নি, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক শক্তি।

 

          বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি এডভোকেট সৈয়দ মোক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব এডভোকেট মেজবাহ উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের কেন্দ্রিয় সদস্য সচিব ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নুর তাপস, কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক এডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, যুগ্ম আহবায়ক এডভোকেট বাসেত মজুমদার, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোঃ রেজাউল করিম চৌধুরী, এডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল, রতন কুমার রায়, ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, আবু মোঃ হাশেম প্রমুখ।

 

#

 

আকরাম/খালিদ/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/২১০০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৪৫০৫

প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খানকে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব প্রদান

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রুলস অভ্ বিজনেজ, ১৯৯৬ এর রুল ৩(IV) এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খানকে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব প্রদান করেছেন।

          আজ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

#

 

সাহেলা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/২১০৪ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর :  ৪৫০৪

 

প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষার ক্ষেত্রে শেখ হাসিনার অবদান কল্পনাতীত

                                                    -- প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

 

পিরোজপুর, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, বাংলাদেশকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর করার জন্য বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা অবিরাম চেষ্টা করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চান বিজ্ঞানের নতুন নতুন আবিষ্কার দিয়ে সারা পৃথিবীর সাথে বাংলাদেশও এগিয়ে যাবে। এজন্য কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক করার জন্য বিজ্ঞান সপ্তাহসহ অন্যান্য আয়োজনকে সরকার গুরুত্ব দিয়েছে। আধুনিক, বিজ্ঞানমনস্ক ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষার ক্ষেত্রে শেখ হাসিনার অবদান কল্পনাতীত।

          আজ পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে নাজিরপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ৪২তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ, বিজ্ঞান মেলা ও ৫ম জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড ২০২০ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীদের আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। শুধুমাত্র পুঁথিগত শিক্ষায় শিক্ষিত করলে তারা আদর্শ মানুষ হতে পারবে না।

          এ সময় ‍শিক্ষকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীরা মেধা, বিচক্ষণতা, বুদ্ধিমত্তা এবং জ্ঞানকে যেনো সম্পদ মনে করে। সকলের জন্য জীবনকে বিকশিত করা তাদের শেখাতে হবে। তাহলে সে শিক্ষা আমাদের কাজে আসবে। যে শিক্ষা ব্যক্তিকেন্দ্রিকতা শেখায়, যে শিক্ষা একা ভালো থাকা শেখায় সে শিক্ষা আদর্শ শিক্ষা নয়। সন্তানরা মানুষ না হলে আমাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। কারণ ওরাই আগামী দিনে দেশের নেতৃত্ব দেবে।

          পরে রবিশস্য চাষিদের প্রণোদনা প্রদান ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের মাঝে কৃষি উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, সরকার এখন বিনামূল্যে কৃষি সরঞ্জাম, সার-কীটনাশক ও বীজ দিচ্ছে। এমনকি কৃষকদের দশ টাকার হিসাব খুলে বিনা জামানতে ঋণ দেয়া হচ্ছে। কৃষিকে বাঁচাতে হলে কৃষককে বাঁচাতে হবে। সেজন্য কৃষকের সকল চাহিদা পূরণ করছে শেখ হাসিনা সরকার। কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণের মাধ্যমে কৃষিব্যবস্থাকে সরকার আধুনিক করছে। একই মেশিনে চাষাবাদ, ধান কাটা ও ধান মাড়াই হবে। এ মেশিন ইতোমধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।

          কৃষকের জন্য সকল সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে উল্লেখ করে এসময় মন্ত্রী আরো যোগ করেন, কোথাও এক শতাংশ জমি ফাঁকা থাকবে না। প্রতি ইঞ্চি জমিকে আমরা কাজে লাগাতে চাই যাতে কোথাও পরিত্যক্ত জমি না থাকে। সেজন্য সরকার কাজ করছে।

          নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমানের সভাপতিত্বে  নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। নাজিরপুর উপজেলায় কর্মরত বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

          পরে পিরোজপুর খেয়াঘাট-হুলারহাট সড়কের পল্লী বিদ্যুৎ সংলগ্ন খালে কালভার্ট নির্মাণ কাজ এবং মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের নিবন্ধিত স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সমিতিসমূহের মধ্যে অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন মন্ত্রী। পরে জাতির ‍পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল উদ্বোধন করেন তিনি।

#

ইফতেখার/সাহেলা/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৯৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                           নম্বর : ৪৫০৩

বাণিজ্যমন্ত্রী-নরওয়ের রাষ্ট্রদূত ভার্চুয়াল বৈঠক

বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াবে নরওয়ে

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সরকার প্রয়োজনীয় সবধরণের সুযোগ সুবিধা প্রদান করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে একশতটি স্পেশাল ইকোনমিক জোন  গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে অনেক দেশ বিনিয়োগের জন্য এগিয়ে এসেছে। বাংলাদেশ সরকার বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ট্যাক্সসহ বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে। এ মুহুর্তে বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ খুবই আকর্ষণীয় স্থান। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নরওয়ের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্য বৃদ্ধির বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। নরওয়ে বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র। উভয় দেশের ব্যবসায়ীরা পারস্পরিক দেশ সফরের মাধ্যমে এ সুযোগকে কাজে লাগাতে পারে। নরওয়েতে বাংলাদেশের তৈরিপোশাক রপ্তানি হচ্ছে। এছাড়াও ঔষধ, সিরামিক পণ্য, ফার্নিচার, আইসিটি, হিমায়িত মৎস্য, চামড়াজাত পণ্য এবং হালকা ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য রপ্তানি করার সুযোগ রয়েছে।

          মন্ত্রী আজ সরকারি বাসভবনের অফিস থেকে ঢাকায় নিযুক্ত নরওয়ের রাষ্ট্রদূত ইসপেন রিকটার এসভেনডসেন (Espen Rikter Svendsen) এর সাথে ভার্চুয়াল বৈঠকে এসব কথা বলেন।

          বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ পণ্যের একটি বড় বাজার। পার্শ্ববর্তী চীন এবং ভারতও পণ্যের বড় বাজার। বাংলাদেশে উৎপাদিত পণ্য এসব দেশে রপ্তানি করার সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ দক্ষ জনশক্তি রয়েছে। এখানে তুলনামূলক কম মূল্যে বিশ্বমানের পণ্য উৎপাদন করা সম্ভব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সফলভাবেই কোভিড-১৯ মোকাবিলা করে যাচ্ছে। প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও বাংলাদেশের জিডিপি গ্রোথ ৫ দশমিক ২৪ ভাগ হবে, যা এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

          নরওয়ের রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের উন্নতিতে নরওয়ে খুশি। বাংলাদেশে নরওয়ের বাণিজ্যিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। নরওয়ে টেলিফোন খাতে বড় বিনিয়োগ করেছে। নরওয়ের বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে সম্ভাবনাময় খাতগুলোতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।  বাংলাদেশের তৈরিপোশাকের প্রচুর চাহিদা নরওয়েতে। বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের দেয়া সুযোগ-সুবিধা খুবই আকর্ষণীয়। ভবিষ্যতে উভয় দেশের ব্যবসায়ীরা বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির উদ্যোগ গ্রহণ করবে। উভয় দেশের সরকার প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করবে।

          উল্লেখ্য, গত ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে বাংলাদেশ নরওয়েতে ৬৮ দশমিক ১৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানি করেছে, একই সময়ে আমদানি করেছে ৫১ দশমিক ৯০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য।

#

বকসী/সাহেলা/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৯৪৫ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                               নম্বর :  ৪৫০২

 

তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে বাংলাদেশ বিশ্বে অনুকরণীয়

                              -- জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

 

          জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে বাংলাদেশ বিশ্বের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত।

 

          আজ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ আয়োজিত ‘ডিজিটাল নিরাপত্তায় মেয়েদের সচেতনতা’ শীর্ষক ওয়েবিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

 

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, যোগাযোগ, শিক্ষা, চিকিৎসা, কৃষি সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারে বাংলাদেশ ঈর্ষণীয় সাফল্য দেখিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের অন্যতম রূপকল্প ডিজিটাল বাংলাদেশের সফল বাস্তবায়ন ঘটেছে। সারা বিশ্ব যখন করোনার প্রভাব মোকাবিলায় হিমশিম খাচ্ছে, তখন আমরা তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি।

 

          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, সারা পৃথিবীতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার ভবিষ্যতে আরো বৃদ্ধি পাবে। তাই এখন থেকেই এ বিষয়ে দক্ষ জনশক্তি গড়ার প্রতি নজর দিতে হবে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ল্যাবগুলোকে আরো সমৃদ্ধ করতে হবে যাতে শিক্ষার্থীরা হাতে-কলমে জ্ঞান অর্জন করতে পারে।

 

          ফরহাদ হোসেন বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি সফলতার পাশাপাশি কিছু চ্যালেঞ্জও রয়েছে।  প্রযুক্তির মাধ্যমে  বিভিন্ন সাইবার অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। এসব সাইবার অপরাধের যারা শিকার হচ্ছেন তাদের অধিকাংশই কিশোরী বয়সের। এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক ও অভিভাবকদের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।

 

          ইলেকট্রনিক স্বাক্ষর সার্টিফিকেট প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রক আবু সাঈদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক ডক্টর মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাইবার অপরাধ ও নিরাপত্তার উপ-নিয়ন্ত্রক হাসিনা বেগম‌।

 

          প্রতিমন্ত্রী এরপর মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও  কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত ২০২০-২১ অর্থবছরে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। 

 

          মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক ডক্টর মোহাম্মদ মুনসুর আলম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক স্বপন কুমার খাঁ স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

#

শিবলী/সাহেলা/সঞ্জীব/সেলিম/২০২০/১৯২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                     নম্বর : ৪৫০১

 

করোনাকালে চাকরিচ্যুত গণমাধ্যমকর্মীদের পুনর্বহালের উদ্যোগ নেয়া হবে

                                                                -- তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মোঃ মুরাদ হাসান বলেছেন, করোনাকালে চাকরিচ্যুত গণমাধ্যমকর্মীদের পুনর্বহালের উদ্যোগ নেয়া হবে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মালিকপক্ষ ও পেশাজীবী সংগঠনসমূহের সাথে আলোচনা করা হবে। তিনি করোনার কঠিন সময়ে গণমাধ্যম কর্মীদের চাকরিচ্যুত না করতে মিডিয়া হাউজ মালিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

          প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টার (বিজেসি) আয়োজিত ‘করোনায় গণমাধ্যমের লড়াই: চিত্রকর্ম ও আলোকচিত্রে’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের সমাপনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, করোনার বিপদাপন্ন দিনগুলোতে যখন নিকটজনরাও দূরে সরে গিয়েছিলেন, অনেকেই শুধু নিজেকে নিয়ে ভেবেছেন তখন বিজেসির কর্মীরা জীবন বাজি রেখে মনুষ্যত্ব ও মানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করেছেন। এটি সোনার হরফে লেখা থাকবে এবং সবার জন্য অনুকরণীয় হয়ে পথ দেখাবে।

          সংগঠনের সভাপতি রাহুল রাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব এনামুল হক, গাজী গ্রুপের ডিএমডি গোলাম মর্তূজা বাপ্পা, শাকের আহমেদ, নূর সাফা জুলহাস, নজরুল কবির, ডা. আশরাফুল হক, ডা. সালেহ মোঃ তুষার প্রমুখ।

#

মাহবুবুর/সাহেলা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৮৫৬ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                     নম্বর : ৪৫০০

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে সম্প্রচারিত

টেলিভিশন চ্যানেলের মান পর্যবেক্ষণে মনিটরিং সেন্টার উদ্বোধন

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে সম্প্রচারিত টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর সম্প্রচারের মান পর্যবেক্ষণের জন্য বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিএল) প্রধান কার্যালয়ে স্থাপিত নবনির্মিত মনিটরিং সেন্টার আজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।

          অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার উপস্থিত ছিলেন।

          মনিটরিং সেন্টারের পাশাপাশি উক্ত অনুষ্ঠানে সিএসসিএল-এর বেশ কিছু উদ্ভাবনী সেবা যেমন: স্যাটেলাইটের ভি-স্যাট প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলসমূহে মোবাইল ফোনের বেইজ টান্সসিভার স্টেশন (বিটিএস)-এ সংযোগ স্থাপন, এক টেলিফোন এক্সচেঞ্জ থেকে অন্য এক্সচেঞ্জে সংযোগ স্থাপন, ভিডিও সার্ভেলেন্স সিস্টেম পরিচালনা করা ইত্যাদি প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়।

          অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন।

          স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তির সুবিধা নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তরসমূহের মাধ্যমে কিভাবে জনগণের সেবার মান বৃদ্ধি করা যায় সে বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে।

          বিএসসিএল -এর চেয়ারম্যান ড. শাজাহান মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহ ও বিএসসিএল-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

#

মাহমুদ/সাহেলা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৮৪৮ ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৪৪৯৯

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সাথে ভারতের নবনিযুক্ত হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের সাথে বাংলাদেশে নবনিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী (Vikram Doraiswami) আজ সচিবালয়স্থ অফিস কক্ষে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তারা পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে নিয়ে আলোচনা করেন।

          প্রতিমন্ত্রী নবনিযুক্ত হাইকমিশনারকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এ অঞ্চলে জ্বালানি খাতের উন্নয়নে বাংলাদেশ ও ভারতের একসাথে কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। ডেল্টা প্লানিং-এ সমন্বিতভাবে উন্নয়নের পরিকল্পনা দেয়া হয়েছে। ক্লিন ও গ্রিণ এনার্জি প্রসারকে বাংলাদেশ বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। নেপালে জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে ত্রি-পাক্ষিক বিনিয়োগ করার বিষয়টি এগিয়ে নেয়া যেতে পারে। ইলেক্ট্রিক ভিহাইকেল  নিয়েও এসময় আলোচনা হয়।

          হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশের সাথে সম্পর্কটা ভারত সম্মানের সাথে দেখে। বাংলাদেশ এ অঞ্চলের জন্য জ্বালানি হাব হিসেবে কাজ করতে পারে। বিদ্যুৎ বিনিময়, প্রযুক্তি বিনিময়, বিদ্যুৎ ও জ্বালানির সাশ্রয়, যৌথভাবে যন্ত্রাদি উৎপাদন করে জ্বালানি হাবটাকে সুসংহত করা যেতে পারে। 

          এ সময় ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ পাইপলাইন, H-Energy কর্তৃক ক্রস বর্ডার পাইপলাইন, IOCL কর্তৃক ক্রস বর্ডার পাইপলাইন, বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন নির্মাণ, ONGC (OVL)-এর কার্যক্রম, বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী পাওয়ার কোম্পানি, নেপাল ও ভূটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি, জ্বালানির সাশ্রয়  ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। 

#

আসলাম/সাহেলা/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৮০৬ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                             নম্বর : ৪৪৯৮

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট বাৎসরিক ইভেন্ট হিসেবে প্রতিবছর আয়োজন করা হবে

                                                                                                    -- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। তিনি বলেন, তরুণদের অনুপ্রাণিত ও উৎসাহিত করতে চাইলে বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ ও রাজনৈতিক দর্শন বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজেন্মর কাছে তুলে ধরতে হবে।

          প্রতিমন্ত্রী আজ আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারে বিসিসি অডিটরিয়ামে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্পের উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট-২০২০’এর উদ্বোধন  উপলক্ষ্যে  আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          পলক বলেন, উদ্যোক্তা এবং উদ্ভাবকদের  উৎসাহিত  করতে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট-এর আয়োজন করা হয়েছে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট শুধু মুজিববর্ষেই নয়, বাৎসরিক ইভেন্ট হিসেবে প্রতিবছর আয়োজন করা হবে। বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশরই নয়, সারা বিশ্বের। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবন আদর্শকে অনুপ্রাণিত করতে ইনোভেশন গ্র্যান্ট প্লাটফর্মে সারা বিশ্বের তরুণ উদ্ভাবকদের জন্য স্বপ্ন পূরণের আকর্ষণীয় প্লাটফর্ম হিসেবে গড়ে তোলা হবে। তিনি বলেন, আইসিটি বিভাগ কর্তৃক মুজিববর্ষে ইনোভেশন গ্র্যান্টসহ প্রযুক্তিনির্ভর ২০টি উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

          পরে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২০’ উদ্বোধন করেন। বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে আগ্রহী তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক উদ্যোক্তারা িি.িনরম.মড়া.নফ এই ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। দেশীয় উদ্যোক্তারা আগামী ২৫ ডিসেম্বর ২০২০ এবং বিদেশি উদ্যোক্তারা ২৫ জানুয়ারি ২০২১ পর্যন্ত নিবন্ধন করতে পারবেন।

          বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম ও আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক সৈয়দ মজিবুল হক।

#

শহিদুল/সাহেলা/সঞ্জীব/জয়নুল/২০২০/১৮১০ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                      নম্বর : ৪৪৯৭

বন্য হাতি হত্যা প্রতিরোধে ব্যর্থদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

                                                     -- পরিবেশমন্ত্রী

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, বর্তমান সরকার পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে নিরলসভাবে কাজ করছে। কিন্তু সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, পার্বত্য চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সহ দেশের কিছু এলাকায় বিভিন্ন কারণে বন্য হাতি নিহত হচ্ছে। এসকল বন্য হাতি নিধন প্রতিরোধে ব্যর্থ ও দায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি আরো বলেন, বন্য হাতি হত্যার সাথে জড়িত মানুষদের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত থাকবে।

          আজ মন্ত্রণালয়ের ২০২০-২১ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি)-র বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনার জন্য ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে আয়োজিত মাসিক সভায় ঢাকাস্থ সরকারি বাসভবন হতে অনলাইনে যুক্ত হয়ে সভাপতির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          বনমন্ত্রী জনসাধারণকে বন্য হাতি নিধন হতে বিরত করতে সচেতনতামূলক কর্মসূচি জোরদারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, বন্য হাতির কারণে ক্ষতির সম্মুখীন মানুষদের সরকারের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদানের বিষয়টি সকলকে জানাতে হবে। মন্ত্রী বলেন, হাতিসহ অন্য সকল প্রকার বন্যপ্রাণির নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

          সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, সচিব জিয়াউল হাসান, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) ড. মোঃ বিল্লাল হোসেন, অতিরিক্ত সচিব (পরিবেশ) মাহমুদ হাসান, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) আহমদ শামীম আল রাজ, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. এ কে এম রফিক আহাম্মদ, বন অধিদফতরের প্রধান বন সংরক্ষক মোঃ আমির হোসেন চৌধুরীসহ দফতর প্রধানগণ ও বিভিন্ন প্রকল্পের পরিচালকরা আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

#

দীপংকর/ফারহানা/খালিদ/সঞ্জীব/রেজাউল/২০২০/১৭৩৫ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                 নম্বর : ৪৪৯৬

নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে সরকার অত্যন্ত কঠোর

-- মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১০ অগ্রহায়ণ (২৫ নভেম্বর) :

          মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সরকার বদ্ধপরিকর। এক্ষেত্রে সরকারের অবস্থান অত্যন্ত কঠোর। সরকার নারী নির্যাতন বন্ধ, নারী নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, আইনি সহায়তা পাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) আইন, ২০২০ প্রণয়ন করেছে। এ আইনে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি ‘যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড’ এর স্থলে ‘মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড’ এর বিধান রাখা হয়েছে। সংশোধিত আইনের মাধ্যমে অপরাধীদের শাস্তি নি

2020-11-25-21-33-c3a8e91810be6508d4aa9ba53efeb2e4.docx 2020-11-25-21-33-c3a8e91810be6508d4aa9ba53efeb2e4.docx

Share with :

Facebook Facebook