তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

তথ্যবিবরণী                                                                                                           নম্বর : ৪৬৫৪

কানাডায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদ্যাপন অনুষ্ঠানে তথ্য প্রতিমন্ত্রী

 শেখ হাসিনার জন্মদিনে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণে দৃঢ় প্রত্যয়

ভ্যানকুভার (কানাডা), ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :

          তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সুদৃঢ় নেতৃত্বে আমরা এখন উন্নয়নের মহাসড়কের যাত্রী। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের প্রত্যেককে যে যেখানে আছি সেখান থেকে নিজ নিজ দায়িত্ব-কর্তব্য সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে হবে। সবার মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা এগিয়ে যাব।’

          প্রতিমন্ত্রী কানাডার ভ্যানকুভারে গতকাল সন্ধ্যায় কানাডাস্থ বঙ্গবন্ধু পরিষদ আয়োজিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতাবিরোধীরা যতই ষড়যন্ত্র করুক, মুক্তিযুদ্ধের স¦পক্ষের সকল শক্তি আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবেই, কেউই সে পথে বাধা হতে পারবে না।  বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি নূর চৌধুরীর বিচারের রায় কার্যকর করার জন্য বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর দাবি জানান। কানাডায় অবস্থানরত প্রবাসী বাঙালিদের নূর চৌধুরীকে দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য কানাডা সরকারকে বাধ্য করতে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে  উদাত্ত আহ্বানও জানান।

          তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশে দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ চলবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মাটি থেকে এসব অপশক্তিকে উৎখাত করতে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। আমরা যদি ঐক্যবদ্ধ থাকি তাহলেই আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণ করতে পারব ইনশাআল্লাহ।’

#

গিয়াস/পাশা/নাইচ/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২১০০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৬৫৩

দুবাই বিজনেস সামিটে প্রবাসীদের ব্যাপকভাবে দেশে বিনিয়োগের আহ্বান

                                                               -- প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

দুবাই (২৯ সেপ্টেম্বর) :

          দুবাই বিজনেস সামিটে প্রবাসীদের এখনই ব্যাপকভাবে দেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

          আজ সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে এনআরবি সিআইপিদের দুই দিনব্যাপী গ্লোবাল বিজনেস সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির মন্ত্রী বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান।

          মন্ত্রী বলেন, দেশে বিনিয়োগের যে সুযোগ এখন বিরাজমান তা দ্রুতই কঠিন হয়ে উঠতে পারে। যেসব সুযোগ দেয়া হলে বিনিয়োগ নিশ্চিত হয়, সেসব সুযোগ এর মধ্যেই দেয়া আছে। আরো কোনো সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা থাকলে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের তা উপস্থাপনের জন্য তিনি আহ্বান জানিয়েছেন।

          মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রবাসীরা দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। ২৪ দশমিক ৭৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স তারা মহামারি চলাকালীন সময়ে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বাংলাদেশে পাঠিয়েছে। যা বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভকে রেকর্ড উচ্চতায় উন্নীত করতে সাহায্য করেছে।

          উল্লেখ্য, কূটনৈতিক কর্মকর্তাসহ ২০০ টিরও বেশি বিনিয়োগকারী এবং সারা বিশ্বের ব্যবসায়ী নেতারা

এ বিজনেস সামিটে উপস্থিত ছিলেন।

          এসময় তারা বিনিয়োগ ও রেমিট্যান্সের সুযোগ, উদ্ভাবন, ব্র্যান্ডিং, ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং অর্থনৈতিক মিরাকেলস নিয়ে আলোচনা করেন।

#

রাশেদুজ্জামান/পাশা/নাইচ/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৫০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                                নম্বর : ৪৬৫২

রাষ্ট্রপতির সাথে বিএসএমএমইউ’র প্রতিনিধিদলের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :

          বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) -এর উপাচার্য অধ্যাপক ডাক্তার মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল আজ সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

          সাক্ষাৎকালে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। প্রতিনিধিদলে আরো ছিলেন প্রো-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশাররফ হোসেন, প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমেদ ও পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নজরুল ইসলাম খান।

          রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ করোনা মোকাবিলায় বিএসএমএমইউ এর ভূমিকার প্রশংসা করেন এবং চিকিৎসক ও নার্সসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। তিনি করোনা চিকিৎসার জন্য অন্য রোগের চিকিৎসা যাতে ব্যাহত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে বলেন। রাষ্ট্রপতি  বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়কে রোগ নির্ণয়, চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং রোগী ও স্বজনদের প্রতি সেবা প্রদানকারীদের আচরণের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আস্থা ও স্বস্তির জায়গায় পরিণত করতে হবে। তিনি বিএসএমএমইউকে চিকিৎসা, শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

          রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাউদ্দিন ইসলাম এবং সচিব সংযুক্ত মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

#

ইমরানুল/পাশা/নাইচ/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৩৫ঘণ্টা

 

তথ্যবিবরণী                                                                                                                  নম্বর : ৪৬৫১

বাংলাদেশ বিশ্বে এখন উন্নয়নের রোল মডেল

                                       -- পার্বত্যমন্ত্রী

থানচি, বান্দরবান, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :

          পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেছেন, মানবতার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা আছেন বলেই বাংলাদেশ বিশ্বে এখন উন্নয়নের রোল মডেল। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আছে বলেই পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটেছে। তিনি দলমত নির্বিশেষে পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান।  

          মন্ত্রী আজ বান্দরবান পার্বত্য জেলার থানচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১শয্যা থেকে ৫০শয্যায় উন্নীতকরণ উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতার কল্যাণেই থানচিতে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ পরিচালিত হচ্ছে, আর এসকল উন্নয়নের সুফল জনগণ পেতে শুরু করেছে। থানচিতে কোনো রোগী চিকিৎসা সেবা হতে যাতে বঞ্চিত না হয় তা নিশ্চিতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানান মন্ত্রী। 

          সিভিল সার্জন ডা: অংসুপুই মারমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ইয়াসছিম পারভীন তিবরীজি। এছাড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রেজা সরওয়ার, উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াই মারমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আতাউল গণি ওসমানি, থানচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা সুদীপ রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

#

নাছির/পাশা/নাইচ/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/২০৩০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                               নম্বর : ৪৬৫০

বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে সকল ধর্মের মানুষের অধিকার সমান

                                           -- মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :

          মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে সকল ধর্মের মানুষের অধিকার সমান। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সকল ধর্মের মানুষ  ঐক্যবদ্ধভাবে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছে। বঙ্গবন্ধু ’৭২ সালের সংবিধানেই সকল ধর্মের মানুষের সমান  অধিকার নিশ্চিত করে গেছেন।

          আজ রাজধানীর নিউ ইস্কাটন রোডে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ‘জাতীয় চার্চ পরিষদ বাংলাদেশ’ আয়োজিত আলোচনা সভা ও বিশেষ প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, ’৭৫ এর ১৫ই আগস্ট  বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর সাম্প্রদায়িক শক্তি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে  সংখ্যালঘু ধর্মীয় সম্প্রদায়কে  অধিকার বঞ্চিত করেছে। তাদের সম্পদ দখলসহ বিভিন্নভাবে অত্যাচার করেছে।

          তিনি আরো বলেন, বর্তমানে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  নেতৃত্বে  বাংলাদেশে সকল ধর্মের মানুষ  সমান অধিকার ভোগ করছে। এসময় মন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে  সকল ধর্মের মানুষকে  ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

          জাতীয় চার্চ পরিষদ বাংলাদেশ- এর সাধারণ সম্পাদক রেভা: ডেভিড অনিরুদ্ধ রায়ের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। এছাড়া বাংলাদেশে রোমান ক্যাথলিক চার্চের সাবেক আর্চবিশপ কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি রোজারিও, বাংলাদেশ খ্রিষ্টান এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মি. নির্মল রোজারিওসহ জাতীয় চার্চ পরিষদের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

          পরে মন্ত্রী জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে জাতীয় চার্চ পরিষদের উদ্যোগে প্রকাশিত বিশেষ প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন করেন।

#

মারুফ/পাশা/এনায়েত/রফিকুল/জয়নুল/২০২১/১৯০০ঘণ্টা
তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর :  ৪৬৪৯

 

ডিআরইউতে শেখ রাসেল আধুনিক ডিজিটাল ল্যাব গঠন করা হবে

                                                        -- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :  

          তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেছেন, সাংবাদিকরা যেন নিজেদেরকে সাংবাদিকতার পাশাপাশি দক্ষ আইটি পেশাজীবি হিসেবে তৈরি করতে পারেন এ জন্য  ডিআরইউতে একটি শেখ রাসেল আধুনিক ডিজিটাল ল্যাব গঠন করা হবে। ২০টি ল্যাপটপ, মাল্টিমিডিয়া স্মার্টবোর্ডসহ পূর্ণাঙ্গ এই ল্যাব তৈরি করারও ঘোষণা দেন তিনি ।

          প্রতিমন্ত্রী আজ রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে মিট দ্য রিপোর্টাস এরং ডিআরইউ অ্যাপস এর উদ্বোধনী  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিআরইউ সভাপতি মুরসালিন নোমানী। সঞ্চালক ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান খান।

          ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি বাংলাদেশের একটি রোল মডেল সংগঠন উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিক ভাইয়েরা যত সুন্দর করে বলতে এবং ওয়ার্কশপ আয়োজন করতে পারে সেটা অন্য কেউ এতোটা সুন্দর করে করতে পারে না। তিনি বলেন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি সফল ও সুশৃঙ্খল এবং অত্যন্ত স্মার্ট প্রতিষ্ঠান।

          প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব ও তাঁর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের  তত্ত্বাবধানে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে ৪টি প্রধান স্তম্ভকে সামনে রেখে কাজ করেছে। তার নির্দেশনায় আইসিটি অবকাঠামো  গড়ে তোলার কারণে বিগত ১২ বছরের ব্যবধানের দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৫৬ লাখ থেকে ১২ কোটিতে উন্নীত হয়েছে। ২৬ মিলিয়ন ডলার থেকে আইসিটি রপ্তানি বেড়ে  ১ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে।

          পলক বলেন, দেশের ব্যাংকগুলোর মধ্যে প্রায় ৫০ শতাংশ সেবা বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ প্রতিষ্ঠান বা জনশক্তি দিচ্ছে। বাকিগুলো দেশের বাইরে থেকে নিচ্ছে। দেশে সাইবার নিরাপত্তা খাতে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে ডিজিটাল সিকিউরিটির এজেন্সির মাধ্যমে পরিকল্পিতভাবে কাজ করছে সরকার। দেশের বিভিন্ন সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ২৭টি ক্রিটিকাল ইনফ্রাস্ট্রাকচার (জনগুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো) চিহ্নিত করা হয়েছে। এসবকে মাথায় রেখে ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সি কাজ করছে।

          আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, সাইবার নিরাপত্তা সচেতনতা মাস অক্টোবরকে উপলক্ষ্য করে দেশব্যাপী সচেতনতামূলক কর্মসূচির পরিকল্পনা করা হচ্ছে। কোনো একটি দিবস, সপ্তাহ বা মাসকে কেন্দ্র করে সচেতনতামূলক কর্মসূচি নেয়া হলে সেটি বেশ কার্যকর হয়। সেই দৃষ্টিভঙ্গি থেকে আমরা সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে গুরুত্ব দিচ্ছি।

          পরে প্রতিমন্ত্রী ‘ডিআরইউ অ্যাপস’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন।

#

শহিদুল/পাশা/এনায়েত/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৮.৪০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                                নম্বর :  ৪৬৪৮

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :  

          স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৮ হাজার ৫৯৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১ হাজার ১৭৮ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৫৫ হাজার ৫১ জন। 

          গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ জন-সহ এ পর্যন্ত ২৭ হাজার ৪৮৭ জন এ রোগে মৃত্যুবরণ করেছেন।

          করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ১৪ হাজার ৯৬২ জন।

#

ফেরদৌস/পাশা/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৮.২০ ঘণ্টা

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর : ৪৬৪৭

 

শেখ হাসিনার রাজনীতি গরিব-দুঃখী মেহনতি মানুষের জন্য

                                     -- তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :  

          তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগের রাজনীতি সাধারণ ও গণমানুষের জন্য। গরিব-দুঃখী, মেহনতি মানুষের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতি করেন। তাঁর হাত ধরে বাংলাদেশে গরিব মেহনতি মানুষের মুখে হাসি ফুটেছে।’

          আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী হকার্স লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন।

          আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান বলেন, ‘আওয়ামী লীগের রাজনীতি দেশের গণমানুষের জন্য রাজনীতি। আমাদের নেত্রী দেশ পরিচালনার দায়িত্ব পাওয়ার পর দেশের সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের, হকার, শ্রমিক, কৃষকদের যাতে কষ্ট না হয়, সেজন্য নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। আমরা মনে করি, খেটে খাওয়া মানুষ হচ্ছে আওয়ামী লীগের প্রাণ। তারা যুগ যুগ ধরে সমর্থন দিয়ে আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়ে রেখেছে, টিকিয়ে রেখেছে, আওয়ামী লীগ দেশের বৃহত্তর দলে রূপান্তরিত হয়েছে, গণমানুষের দলে রূপান্তরিত হয়েছে।’

          মন্ত্রী বলেন, ‘যারা ড্রয়িং রুমের মধ্যে বসে থাকে আর সেখান থেকে নেতৃত্ব করে তারা আওয়ামী লীগের প্রাণ নয়, আওয়ামী লীগের প্রাণ হচ্ছে মাঠের নেতাকর্মীরা। আমাদের নেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি গণমানুষের জন্য, হকার-কৃষক-শ্রমিক ভাইদের জন্য।’

          ‘আমি দেখতে চাই একটি সম্মেলনের মাধ্যমে আওয়ামী হকার্স লীগের একটি নতুন কমিটি হবে, তারপর সারাদেশে আপনারা শাখা কমিটি করবেন, হকার্স লীগ একটি মজবুত লীগ হবে’ বলেন ড. হাছান।

          তথ্যমন্ত্রী এসময় বিকল্প ব্যবস্থা না করে হকারদের উচ্ছেদ করা উচিত নয় উল্লেখ করে বলেন, হকারদের বিকল্প ব্যবস্থা করার জন্য শহর কর্তৃপক্ষের কাছে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা আছে। বিদেশে যেমন সাপ্তাহিক বাজার বসে, তেমনি প্রতি ওয়ার্ডে যদি সাপ্তাহিক বাজার বসত তাহলে হকারদের জন্য সুবিধা হত। দেশের অন্যান্য বড় শহরগুলোতেও সাপ্তাহিক বাজার বসানো যায়। তাহলে হকারেরা সেখানে গিয়ে বিক্রি করতে পারে এবং তাদের সংসারটা চলে।

          প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের অগ্রগতির কথা উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, ‘আজকে পাকিস্তান আমাদের দিকে তাকিয়ে আক্ষেপ করে কারণ পাকিস্তানের চেয়ে আমরা এখন অনেক এগিয়ে গেছি। ভারতে আমাদের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনার ঝড় উঠে টেলিভিশনের পর্দা, রাজনীতির মাঠে, বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতি নিয়ে আলোচনার ঝড় উঠে। এটি জননেত্রী শেখ হাসিনার কারণেই সম্ভবপর হয়েছে।’

          আওয়ামী হকার্স লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক এস এম জাকারিয়া হানিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংগঠনের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক হাজি মোঃ আনোয়ার হোসেন, তসলিম আহমেদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহেদ আলীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

#

আকরাম/পাশা/রফিকুল/সেলিম/২০২১/১৮.০০ ঘণ্টা

Handout                                                                                  Number : 4646

Minister of Liberation War Affairs interacted with a group of Turkish Civil Society

Istanbul (Turkey), September 29 :

           Minister of Liberation War Affairs A K M Mozammel Huq interacted with a group of Turkish Civil Society, comprising academic and media personalities of Istanbul on 28 September 2021, organised by the Consulate General of Bangladesh, Istanbul. Minister briefed them about the historical context of our great Liberation War and emergence of Bangladesh as an independent and sovereign nation under the courageous and visionary leadership of Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman. He also highlighted the phenomenal socio-economic developments of Bangladesh under the able guidance and stewardship of Prime Minister Sheikh Hasina. In his initial remarks, Consul General Dr. Mohammad Monirul Islam welcomed the Minister and his delegation, terming this particular visit a significant moment in Bangladesh- Turkey bilateral relations as it is taking place at a time when the people of Bangladesh is celebrating two historic occasions, Birth Centenary of Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and the golden jubilee of independence. He also outlined the contours of Bangladesh-Turkey friendship, especially the recent developments in the political understanding and expansion of business and economic engagements between the two countries. 

            Turkish dignitaries attended the event expressed appreciation to the Minister for his briefing on the great Liberation War of Bangladesh and exchanged views as to how to further consolidate and improve the relationship between our two brotherly nations. 

            During his visit to the Bangladesh Consulate in Istanbul, Minister briefed the Mission officials on the development plans and programmes of the government and thanked them in making relentless efforts to promote the image of Bangladesh in Turkey, especially by bringing out some special publications on the illustrious life and works of Bangabandhu in Turkish language

#

Mofakkharul/Pasha/Rafiq/Salim/2021/17.30 Hrs.

তথ্যবিবরণী                                                                                                                   নম্বর : ৪৬৪৫

নন-হিউম্যান কনজামশনসহ নানা কারণে চালের আমদানি বেড়েছে

                                                      -কৃষিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :  

কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, বর্তমান সরকারের সময়োপযোগী পদক্ষেপের ফলে  দেশে চালের রেকর্ড উৎপাদন হয়েছে। গড় উৎপাদনশীলতাও বেড়েছে। এখন দেশে প্রতি শতাংশ জমিতে ১ মণ করে ধান উৎপাদন হয়। তারপরও চাল আমদানি করতে হচ্ছে নানা কারণে। বছর বছর জনসংখ্যা বাড়ছে, চাষের জমি কমছে। অন্যান্য ফসল চাষেও জমি ব্যবহার হচ্ছে। দেশে বছরে এখন ৬০ লাখ টন ভুট্টা উৎপাদন হচ্ছে। আগে যে খেতে ধানের চাষ হতো সেখানেই ভুট্টা চাষ হচ্ছে। একইসাথে, চালের নন-হিউম্যান কনজামশন অনেক বেড়েছে। মাছ, পোল্ট্রি, প্রাণি খাদ্য ও স্টার্চ হিসেবে চালের ব্যবহার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এসব মিলে দেশে চালের ঘাটতি দেখা যাচ্ছে।

আজ ঢাকার ফার্মগেটে বিএআরসি মিলনায়তনে ‘ফার্ম সেক্টর অভ্ বাংলাদেশ: প্রসপেক্টস অ্যান্ড চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। ফোরাম ফর ইনফরমেশন ডিসেমিনেশন অন এগ্রিকালচার (ফিডা) ও সিনজেন্টা বাংলাদেশ লি. এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।  

            কৃষিমন্ত্রী আরো বলেন, যে যেভাবে পারছে দেশের বাইরে থেকে নতুন ধরণের ফসলের জাত নিয়ে আসছে ও চাষ করছে। এটিকে আমরা উৎসাহ দেই, কিন্তু সাথে সাথে দেখতে হবে দেশে এসব ফসল চাষে কোন ঝুঁকি বা স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে কিনা। এসব ফসল চাষ আদৌ আমাদের প্রয়োজন আছে কিনা।

দেশের কৃষির সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে ‘ফার্ম সেক্টর অভ্ বাংলাদেশ: প্রসপেক্টস অ্যান্ড চ্যালেঞ্জ’ বইটি ফিডা ও সিনজেন্টা বাংলাদেশ ফেলোশিপের আওতায় প্রকাশিত হয়েছে। এর প্রশংসা করে ড. রাজ্জাক বলেন, প্রাইভেট সেক্টর ও সাংবাদিকদের এ যৌথ উদ্যোগকে অভিনন্দন জানাই। আমরা কৃষিকে বাণিজ্যিক, আধুনিক ও লাভজনক করতে চাই। এক্ষেত্রে মিডিয়ার বিরাট ভূমিকা রয়েছে। প্রাইভেট সেক্টরকেও এগিয়ে আসতে হবে।

ফিডার সভাপতি রিয়াজ আহমদের সভাপতিত্বে বিএডিসির চেয়ারম্যান ড. অমিতাভ সরকার, বিএআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ মো: বখতিয়ার, কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ ইউসুফ, বারির মহাপরিচালক নাজিরুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিচালক মনিরুল আলম, ফিডার সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দিন বাবলু, ফিডার সদস্য কাউসার রহমান, সিনজেন্টার ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম তৌহিদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। 

#

কামরুল/অনসূয়া/শাম্মী/জসীম/মাসুম/২০২১/১৫২২ ঘণ্টা 

Not to publish before 5 PM

Handout                                                                                         Number : 4644

President's message on the World Maritime Day

Dhaka, (29 September) :

            President Md. Abdul Hamid has given the following message on the occasion of the ‘World Maritime Day 2021’.

            "On the auspicious occasion of  ‘World Maritime Day 2021’, I extend my sincere thanks and felicitation to the shipping community, authorities and organizations related to maritime industry. The theme of ‘World Maritime Day' for this year is "Seafarers: at the core of shipping future''. The purpose of the theme is to highlight the unprecedented hardship of the Seafarers due to COVID-19 pandemic to keep the world's supply chain alive and their invaluable role towards the world's economy.

            Maritime Industry facilitates the international transportation of goods and carries forward the world's economy. The world relies on shipping to transport more than 90% of the trade by volume including food, medical goods, fuel, raw materials and manufactured goods across the globe. Seafarers are at the heart of shipping industry and have been the unsung heroes of the corona pandemic. They are also victims of the crisis, as travel restrictions have left thousands of Seafarers stranded on ships or unable to join ships due to suspended flights, closed borders and quarantine requirements, which created a humanitarian emergency that threatens the safety of shipping. I apppreciate Bangladeshi Seafarers for their continuous service in spite of the immense hardship of pandemic and other issues. I am happy to know that, responding to call of the UN, Government of Bangladesh declared Seafarers as `Key Worker'  to establish their rigthts in the national and international context and arranged priority COVID-19 vaccination for them. I am also happy to know that Maritime Training and Education of Bangladesh achieved the International Standard and recognition.

            Shipping and maritime are interwoven for development and growth. The Government has promoted trade by sea, nurtured national shipping lines, promoted women career development in the maritime sector, improved port infrastructure and development of marine and coastal fisheries resources in a sustainable manner. I hope all relevant Government authorities and stakeholders will take proper and effective action to facilitate, enhance and explore the job market of Bangladeshi Seafarers.

            I wish the observance of ‘World Maritime Day 2021' a grand success.

            Joi Bangla

            Khoda Hafez, May Bangladesh Live Forever. "

#

Hasan/Anasuya/Shammi/Zashim/Masum/2021/1230 hours

Not to publish before 5 PM

তথ্যবিবরণী                                                                                                           নম্বর : ৪৬৪৩

প্রি-কপ ২৬ কনসালটেশন সভায় অংশগ্রহণ করতে ইতালি যাচ্ছেন পরিবেশমন্ত্রী

ঢাকা, ১৪ আশ্বিন (২৯ সেপ্টেম্বর) :

          পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত ইতালির মিলানে অনুষ্ঠিতব্য প্রি-কপ ২৬ কনসালটেশন সভায় অংশগ্রহণের লক্ষ্যে আজ ঢাকা ত্যাগ করেছেন। ইতালির মিনিস্টার অভ্ ইকোলজিক্যাল ট্রানজিশন রবার্তো সিঙ্গোলানির আমন্ত্রণে তিনি এ সভায় অংশে নেবেন।

          পরিবেশমন্ত্রী তিন সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন- পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) ও ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম (সিভিএফ) এর বাংলাদেশ ফোকাল পয়েন্ট আহমদ শামীম আল রাজী এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক
মো. জিয়াউল হক।

          সফরে পরিবেশমন্ত্রী প্রি-কপ ২৬ কনসালটেশন সভা ছাড়াও সিভিএফ সেক্রেটারিয়েট এবং অন্যান্য দেশের প্রতিনিধিদের সাথে কপ-২৬ প্রস্তুতির বিষয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হবেন। স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে অনুষ্ঠেয় বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনের এক মাস পূর্বে অনুষ্ঠিতব্য এ সভা জলবায়ু পরিবর্তনের বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

          সভায় পরিবেশমন্ত্রী বিভিন্ন দেশের মন্ত্রীদের সাথে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সম্ভাব্য সমস্যা সমাধানের বিষয়ে আলোচনা করবেন, যা কপ-২৬ এ সিদ্ধান্ত গ্রহণে সহায়ক হবে। বর্তমানে বাংলাদেশ সিভিএফ এর প্রেসিডেন্ট, ফলে এ সম্মেলনে অংশগ্রহণের মাধ্যমে পরিবেশমন্ত্রী সিভিএফ এর বক্তব্য সম্মেলনে তুলে ধরার সুযোগ পাবেন। সভায় অংশগ্রহণ শেষে মন্ত্রী ৪ অক্টোবর দেশে ফিরবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

                                                                #

দীপংকর/অনসূয়া/শাম্মী/জসীম/কুতুব/২০২১/১৪৩০ ঘণ্টা 

তথ্যবিবরণী                                                                                                            নম্বর : ৪৬৪২

প্রধানমন

2021-09-30-03-32-a5050cc0269f8fba1d3e838afee4709b.doc 2021-09-30-03-32-a5050cc0269f8fba1d3e838afee4709b.doc

Share with :

Facebook Facebook