তথ্য অধিদফতর (পিআইডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১st জুন ২০১৮

তথ্যবিবরণী 1/6/2018

তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর :  ১৬৩৯

জেনেভায় শ্রম সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন আইনমন্ত্রী

ঢাকা, ১৮ জ্যৈষ্ঠ (১ জুন) : 

আজ শুক্রবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ১০৭তম আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনের (আইএলসি) সাধারণ সভায় যোগ দিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।  

সম্মেলনে আইনমন্ত্রী ৪০ সদস্য বিশিষ্ট বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। প্রতিনিধিদলে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক, শ্রম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. রুহুল আমীন ও মো. রেজাউল হক চৌধুরী,  আইন মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক, শ্রম সচিব আফরোজা খানসহ সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং ব্যবসায়িক ও শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধি রয়েছেন। গত ২৮ মে থেকে এই আন্তর্জাতিক সম্মেলন জেনেভায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আগামী ৯ জুন এটি শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

এবারের আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে বাংলাদেশের জন্য সুখবর হলো, বাংলাদেশের শ্রম অধিকার নিয়ে কোন শুনানি হবে না। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত ১০৫তম আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে বাংলাদেশের কড়া সমালোচনা করা হয় এবং  শ্রম অধিকার সুরক্ষার জন্য কয়েকটি শর্ত জুড়ে দেওয়া হয় যা বিশেষ অনুচ্ছেদ নামে পরিচিত। এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল জেনেভায় অনুষ্ঠিত ১০৬তম আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনে আইনমন্ত্রী আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার ওইসব শর্ত বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দেন এবং বিশেষ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের বিষয়ে জোর প্রচেষ্টা চালান। ফলে বিশেষ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। ১০৬তম সম্মেলনে আইনমন্ত্রী যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা যথাসময়ে বাস্তবায়ন করায় এবছর আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার শুনানির তালিকা থেকে বাংলাদেশের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। ফলে বিগত চার বছরের মধ্যে এই প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক শ্রম সম্মেলনে বাংলাদেশের শ্রম অধিকার নিয়ে কোন শুনানি হবে না। 

#

রেজাউল/মাহমুদ/সেলিম/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/২০০০ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                    নম্বর : ১৬৩৮

ব্যানবেইসের প্রশিক্ষণ সমাপনী অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী
প্রশিক্ষণের জ্ঞান কর্মক্ষেত্রে কাজে লাগাতে হবে

ঢাকা, ১৮ জ্যৈষ্ঠ (১ জুন) : 

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অর্জিত জ্ঞান কর্মক্ষেত্রে কাজে লাগাতে হবে। অর্জিত জ্ঞানের নিয়মিত চর্চা করতে হবে। উপজেলা পর্যায়ে শিক্ষক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ভালভাবে প্রশিক্ষণ দিতে হবে। আইসিটি বিষয়ক আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে তাদেরকে ভালভাবে প্রশিক্ষিত করতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী আজ ঢাকায় বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) সম্মেলনকক্ষে ব্যানবেইস এবং এর উপজেলা আইসিটি ট্রেনিং এন্ড রিসোর্স সেন্টার ফর এডুকেশন (ইউআইটিআরসিই)-এর কর্মচারীদের ‘অফিস ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স’-এর সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে আইসিটির ব্যবহার এবং দক্ষতা বাড়াতে ইউআইটিআরসিই-গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষাক্ষেত্রে ডিজিটাল প্রযুক্তির প্রসার এবং শিক্ষার মানোন্নয়নে এগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তাই এর সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জনগণকে সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে। দেশের শিক্ষার উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, ভর্তিসহ বিভিন্ন কর্মকা- অনলাইনে সম্পন্ন হচ্ছে। পরীক্ষার ফলাফল কাগজহীন করা হয়েছে। ডিজিটাল কন্টেন্ট ও ই-বুক তৈরি করা হচ্ছে। এসব বিষয়ে শিক্ষকদের প্রশিক্ষিত ও দক্ষ করে তুলতে হবে।

ব্যানবেইসের পরিচালক মোঃ ফসিউল্লাহ্র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আলমগীর এবং প্রশিক্ষণ কোর্সের পরিচালক এ কিউ এম শফিউল আযম। 

পরে শিক্ষামন্ত্রী প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন এবং একটি স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন।

উল্লেখ্য, ১০ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণে ব্যানবেইস ও ইউআইটিআরসিই’র ৫৭ জন কম্পিউটার অপারেটর এবং ল্যাব এসিস্ট্যান্ট অংশগ্রহণ করেন।

#

আফরাজ/মাহমুদ/পারভেজ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮৩০ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                     নম্বর : ১৬৩৭

দেশের স্বার্থ অক্ষুণœ রেখে  প্রতিবেশীর সাথে বন্ধুত্ব 
                                      -- তথ্যমন্ত্রী
কুষ্টিয়া, ১৮ জ্যৈষ্ঠ (১ জুন) : 

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, প্রতিবেশীর সাথে শত্রু-শত্রু খেলার কূটকৌশল নয়, দেশের স্বার্থ অক্ষুণœ রেখে বন্ধুত্বই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নীতি।

কুষ্টিয়ায় নিজ নির্বাচনী এলাকা সফররত তথ্যমন্ত্রী আজ সকালে জেলা সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফরের সূত্র ধরে এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

অতীতের সামরিক-সাম্প্রদায়িক সরকারগুলোর প্রতিবেশীর সাথে শত্রু-শত্রু খেলার নীতি ঝেড়ে ফেলে শেখ হাসিনা বন্ধুত্বের মাধ্যমে সমাধানের নীতি গ্রহণ করে অনন্য সফলতা এনেছেন, বলেন হাসানুল হক ইনু। 
  
ভারত প্রসঙ্গে এসময় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য পুনর্ব্যক্ত করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অবশ্যই ভারতকে বন্ধুত্ব দিতেই থাকব। আর বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনার টেবিলেই যে দ্বিপাক্ষিক বিষয়গুলোর সমাধান সম্ভব, শেখ হাসিনা তা প্রমাণ করেছেন। তিস্তা পানি বণ্টন সমাধানে নরেন্দ্র মোদীর ইতিবাচক সাড়া আদায়, দু’দেশের সমুদ্রসীমার সঠিক নির্ধারণ, দীর্ঘ প্রতীক্ষিত ছিটমহল বিনিময় -এসব শেখ হাসিনার বন্ধুত্বপূর্ণ নীতিরই যুগান্তকারী অর্জন, বলেন তিনি। 

এরপর স্থানীয় মিরপুর উপজেলার হালসা ডিগ্রি কলেজ ও তালবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পৃথক দুই সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বিএনপি গণতন্ত্র বা আইন-আদালতের ধার ধারে না। বিচার বিভাগ খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করলে তারা মিষ্টি খান, আর স্থগিত করলে সরকারকে গালি দেন। আদালত মানা, না মানার এই দ্বৈত নীতি গণতন্ত্রের জন্য ভালো খবর নয়, বরং রাজনীতিকে দুর্নীতিগ্রস্ত করারই চক্রান্ত।’

এদিন বিকেলে উপজেলার নিমতলা বিল আমলা গ্রামে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ উদ্বোধন ও মিটার বিতরণ করেন মন্ত্রী। 

কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসিন, মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আহাম্মদ আলী, জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, জাসদ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা তথ্যমন্ত্রীর সাথে  ছিলেন।
#

আকরাম/মাহমুদ/মোশারফ/সেলিমুজ্জামান/২০১৮/১৮০০ ঘণ্টা  

তথ্যবিবরণী                                                                                           নম্বর : ১৬৩৬
 
শিক্ষার্থীদের জীবনকে সুন্দরভাবে গড়তে হবে
       ---ভূমিমন্ত্রী
ঈশ্বরদী, ১৮ জ্যৈষ্ঠ (১ জুন) : 
 
ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়ন করতে হলে শিক্ষার্থীদের জীবনকে সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে হবে। রুটিনমাফিক পড়াশোনা আর পিতামাতা, গুরুজন, শিক্ষকদের আদেশ উপদেশ মেনে চললেই এদেশ আদর্শের সোনার বাংলা হয়ে যাবে।
আজ ঈশ^রদীতে বাংলাদেশ সুগারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে বিএসবি ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্রুপ ও সাপ্তাহিক ঈশ^রদীর উদ্যোগে কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে মন্ত্রী শেরশাহ রোডে ঈশ^রদী গণগ্রন্থাগার ও ক্যামব্রিয়ান কলেজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন। 
ভূমিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ছিলেন কালজয়ী মহাপুরুষ। শতবছরের ইতিহাস এবং আগামী শতকের বিষয়ে তাঁর ছিল স্বচ্ছ ধারণা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে বিশেষ ভূমিকা রেখেছিলেন। কিন্তু পাকিস্তান সরকার সেই সময় তা বাস্তবায়ন হতে দেয়নি। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দৃঢ়তা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের স্থাপন কাজ শুরু করেছেন এবং এর সফল বাস্তবায়নও নিশ্চিত করবেন। প্রধানমন্ত্রী তাঁর পিতার পথ অনুসরণ করে বাঙালি জাতিকে উচ্চতর আসনে নিয়ে যাচ্ছেন। 
পরে মন্ত্রী ২৫০ জন শিক্ষার্থীর মাঝে শিক্ষা উপকরণসহ কৃতী শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট ও মেডেল ক্রেস্ট বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে বিএসবি ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্রুপের পক্ষ থেকে মন্ত্রীকে আজীবন সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
সাপ্তাহিক ঈশ^রদী পত্রিকার সম্পাদক সেলিম সরদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএসবি ক্যামব্রিয়ান এডুকেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান লায়ন এম কে বাশার, ভাইস চেয়ারম্যান লায়ন খন্দকার সেলিমা রওশন, ঈশ^রদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন, ঈশ^রদী উপজেলা চেয়ারম্যান মকলেছুর রহমান মিন্টু, বাংলাদেশ সুগারক্রপ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. আমজাদ হোসেন, ঢাকাস্থ ঈশ^রদী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খান উপস্থিত ছিলেন।
 
#
রেজুয়ান/মাহমুদ/মোশারফ/আব্বাস/২০১৮/১৬৩২ ঘণ্টা  
Todays handout (3).docx Todays handout (3).docx

Share with :

Facebook Facebook